কলেজের দখল নিয়ে তৃণমূলের দুই নেতার লড়াই, প্রকাশ্যে আরাবুল-কাইজার কাজিয়া

কলেজের দখল নিয়ে তৃণমূলের দুই নেতার লড়াই, প্রকাশ্যে আরাবুল-কাইজার কাজিয়া

ভোটের পর ফের প্রকাশ্যে আরাবুল-কাইজার কাজিয়া। ভাঙড় কলেজের ক্ষমতা দখল নিয়েই এবার লড়াই দুই নেতার। কলেজের বর্তমান জিএস আরাবুলের ছেলে হাকিমুল ইসলাম। তাসত্ত্বেও আজ কলেজে ঢুকে নাম না করে হাকিমুলের বিরুদ্ধে রীতিমত তোপ দাগেন কাইজার। কলেজের অস্থায়ী জিএস হিসাবে নাম ঘোষণা করেন ভাই ফিরোজ আহমেদের।

আরাবুলের বিরুদ্ধে অন্তর্ঘাতের অভিযোগ করলেন রেজ্জাক মোল্লা আরাবুলের বিরুদ্ধে অন্তর্ঘাতের অভিযোগ করলেন রেজ্জাক মোল্লা

ভাঙড়ে নিজের দলেরই বিক্ষোভের মুখে পড়লেন তৃণমূল প্রার্থী আব্দুর রেজ্জাক মোল্লা। ভাঙড়ের উত্তর গাজিপুরের ঘটনা। এলাকায় তৃণমূল কর্মী সমর্থকদের অভিযোগ, ৯২ ও ৯৩ নম্বর বুথে গিয়ে ছাপ্পা ভোট দিতে নির্দেশ দেন রেজ্জাক মোল্লা। এমনই অভিযোগ তাঁর বিরুদ্ধে। এর প্রতিবাদে রুখে দাঁড়ান তাঁরই দলের কর্মীরা। ঘটনায় আরাবুল ইসলামের বিরুদ্ধে অন্তর্ঘাতের অভিযোগ তুলেছেন রেজ্জাক মোল্লা। যদিও অভিযোগ অস্বীকার করেছেন আরাবুল ইসলাম। আরাবুলের দাবি, 'রেজ্জাক মোল্লাই জিতবে ভাঙড়ে।'

শুধু দলে ফিরলেন না, হয়তো ভাঙড়ে প্রার্থীও হচ্ছেন আরাবুল! শুধু দলে ফিরলেন না, হয়তো ভাঙড়ে প্রার্থীও হচ্ছেন আরাবুল!

দলে ফিরলেন আরাবুল, কাইজার। বিধানসভা ভোট এগিয়ে আসতেই আরাবুল ইসলামের ওপর থেকে সাসপেনশন তুলে নিল তৃণমূল কংগ্রেস।  আজ ভাঙড়ের এক  কর্মিসভায় ভাষণের সময়েই শোভন চট্টোপাধ্যায় ঘোষণা করেন, আরাবুলের ওপর থেকে সাসপেনশন তুলে নেওয়া হচ্ছে। একইসঙ্গে দলের আরাবুলের বিরোধী কাইজার আহমেদকেও ফিরিয়ে দেওয়া হচ্ছে তাঁর দলীয় পদ।

'তাজা নেতা'আরাবুলকে ফিরিয়ে নিল তৃণমূল 'তাজা নেতা'আরাবুলকে ফিরিয়ে নিল তৃণমূল

বিধানসভা ভোট এগিয়ে আসতেই আরাবুল ইসলামের ওপর থেকে সাসপেনশন তুলে নিল তৃণমূল কংগ্রেস। গত বছর ভাইফোঁটার দিন ভাঙড়ের ব্যাঁওতায় খুন হন দুজন। ওই ঘটনার জেরেই আরাবুলকে সাসপেন্ড করে দল। তবে ভাঙড় দু নম্বর পঞ্চায়েত সমিতির পদেই ছিলেন আরাবুল। আজ ভাঙড়ের বিজয়গঞ্জ বাজারে তৃণমূলের কর্মিসভায় হাজির ছিলেন মেয়র শোভন চট্টোপাধ্যায়। হাজির ছিলেন আরাবুলও।

তোলাবাজি মামলায় জামিন পেলেন আরাবুল ইসলাম তোলাবাজি মামলায় জামিন পেলেন আরাবুল ইসলাম

রাজারহাটে তোলাবাজি মামলায় জামিন পেলেন আরাবুল ইসলাম ও তার দুই সঙ্গী।  আজ বারাসত আদালতে মামলার সময় হাজির ছিলেন না সরকারি আইনজীবী। গত ২৬ তারিখ গ্রেফতার হন আরাবুল।

আরাবুল ইসলামকে ৫ দিনের পুলিসি হেফাজতের নির্দেশ বারাসত আদালতের আরাবুল ইসলামকে ৫ দিনের পুলিসি হেফাজতের নির্দেশ বারাসত আদালতের

আরাবুল ইসলামকে পাঁচদিনের পুলিসি হেফাজতের নির্দেশ দিল বারাসাত আদালত । সকালে বিধাননগর উত্তর থানা থেকে প্রাক্তন  তৃণমূল বিধায়ককে আদালতে নিয়ে আসা হয়। তাঁর বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় একাধিক মামলা রুজু

তৃণমূলের পুর প্রচারে সামিল দল থেকে বহিষ্কৃত আরাবুল তৃণমূলের পুর প্রচারে সামিল দল থেকে বহিষ্কৃত আরাবুল

দল বহিষ্কার করেছে। কিন্তু, প্রচারে দলীয় প্রার্থীর সঙ্গে দিব্যি ঘুরছেন  আরাবুল ইসলাম। কলকাতা পুরসভার একশো নয় নম্বর ওয়ার্ডে ঘাসফুলের প্রার্থী অনন্যা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পথসভায় দেখা গেল তাঁকে। তৃণমূল শিবিরের দাবি, প্রচারে হাজির থাকাটা একেবারেই আরাবুলের ব্যক্তিগত সিদ্ধান্ত।আরাবুল ইসলাম। ভাঙড়ের ত্রাস। বল্গাহীন দাপটের জেরে শেষপর্যন্ত তাঁকে ছেঁটে ফেলতে বাধ্য হয় দল। ছ বছরের জন্য তৃণমূল থেকে বহিষ্কার করা হয় আরাবুলকে।

আরাবুল স্বমহিমায়ই আরাবুল স্বমহিমায়ই

দল বহিষ্কার করলেও স্বমহিমায় আরাবুল। এলাকার উন্নয়ন থেকে প্রকল্পের উদ্বোধন, সর্বত্রই ভাঙড়ের মুকুটহীন সম্রাটের উপস্থিতি চোখে পড়ার মতো। শুক্রবার এমনই এক সরকারি প্রকল্পের শিলান্যাস অনুষ্ঠানে দেখা গেল আরাবুলকে।

গ্রেফতার হোক আরাবুল, আদালতে আর্জি ভাঙড়ে মৃতের স্ত্রীর গ্রেফতার হোক আরাবুল, আদালতে আর্জি ভাঙড়ে মৃতের স্ত্রীর

গ্রেফতার করা হোক আরাবুল ইসলামকে। এই আর্জি নিয়ে হাইকোর্টের দারস্থ হলেন ভাঙড়ে নিহত তৃণমূল কর্মী রমেশ ঘোষালের স্ত্রী। ভাইফোঁটার দিন খুন হন রমেশ ঘোষাল, বাপন মণ্ডল। হত্যাকাণ্ডে জড়িত থাকার অভিযোগ ওঠ

 দল তাড়ালেও আরাবুল রয়েছেন আরাবুলেই, সাক্ষী ২৪ ঘণ্টা দল তাড়ালেও আরাবুল রয়েছেন আরাবুলেই, সাক্ষী ২৪ ঘণ্টা

ভাঙড়ের মুকুটহীন সম্রাট আরাবুল আছেন আরাবুলেই। দল বহিষ্কার করলেও লোকচক্ষুর আড়ালে থেকে নিজস্ব ঢঙেই সব কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন আরাবুল ইসলাম। বারুইপুর মহকুমাশাসকের অফিসে গিয়ে ধরা পড়ে গেলেন চব্বিশ ঘণ্টার ক

আরেকবার সুযোগ চাইলেন আরাবুল আরেকবার সুযোগ চাইলেন আরাবুল

দলের কাছে ক্ষমা চেয়ে চিঠি দিলেন আরাবুল ইসলাম। একটা শেষ সুযোগ চাইলেন দলের কাছে। চিঠি পাঠিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। ভাঙড়ের প্রাক্তন বিধায়ক চিঠি পাঠিয়েছেন তৃণমূলের শৃঙ্খলা রক্ষা কমিটিতেও। দলের শী

কে পরবেন 'আরাবুল মুকুট'? কে পরবেন 'আরাবুল মুকুট'?

দলের রোষে ক্ষমতা গেছে ভাঙড়ের দাপুটে নেতা আরাবুল ইসলামের। কার মাথায় উঠবে এবার আরাবুলের মুকুট? কাইজার, নাকি ভাঙড় দুনম্বর ব্লকের সভাপতি ওহিদুল ইসলাম? কে হবেন ভাঙড়ের মুকুট হীন সম্রাট?

সন্ত্রাসের অপর নাম হয়ে উঠেছিল আরাবুল সন্ত্রাসের অপর নাম হয়ে উঠেছিল আরাবুল

আবার ভাঙড়, আবার আরাবুল। তৃণমূলের এই দাপুটে নেতার বিরুদ্ধে  দলের লোককেই খুনের অভিযোগ উঠেছে। আরাবুলের বাধায় পুলিস তাদের কথা শুনতে চায়নি বলে অভিযোগ করেছে নিহতের পরিবার। আরাবুলের বিরুদ্ধে মুখ খোলার পর দলের বিরোধী গোষ্ঠীর নেতাকে যেতে হয়েছে জেলে। এতকিছুর পর প্রশ্নটা উঠছেই। অবশেষে সেই আরাবুলকে দল থেকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিল তৃণমূল কংগ্রেস।

আরাবুলের জন্য  অপেক্ষা করছে শাস্তি, শিশিরের মুখে কুলুপ আঁটলেন পার্থ আরাবুলের জন্য অপেক্ষা করছে শাস্তি, শিশিরের মুখে কুলুপ আঁটলেন পার্থ

দলের ভাবমূর্তি "অম্লান' রাখতে কোনও রকম কসুর করবে না দল। ভাবমূর্তির স্বার্থে আরাবুলের মতো নেতাদেরও শাস্তি দিতে চাইছে তৃণমূল কংগ্রেস। মঙ্গলবার এমনই কড়া প্রতিক্রিয়া দিলেন পার্থ চট্টোপাধ্যায়। এদিন ভাঙড়ের ঘটনা নিয়ে মুখ খোলেন পার্থ বাবু। তিনি জানিয়েছেন  ভাঙড়ের ঘটনা নিয়ে দল তথ্য সংগ্রহ করছে দল। তিনি বলেন, ""আরাবুল ইসলামের শাস্তি হবেই।''

ভাঙড়ে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্ধের ঘটনায় গ্রেফতার আরও ১ ভাঙড়ে তৃণমূলের গোষ্ঠীদ্বন্ধের ঘটনায় গ্রেফতার আরও ১

ভাঙড়ের ব্যাঁওতায় তৃণমূলের গোষ্ঠী সংঘর্ষের ঘটনায় আরও একজনকে গ্রেফতার করল পুলিস। ধৃতের নাম পিনাকী মণ্ডল। এলাকায় তৃণমূল কংগ্রেসের যুব নেতা হিসাবেই পরিচিত পিনাকী। ধৃত পিনাকী মণ্ডলকে আজ বারুইপুর আদালতে নিয়ে আসা হয়।