এই পাঁচ কারণের জন্য অবশ্যই দেখুন ''প্রাক্তন''

এই পাঁচ কারণের জন্য অবশ্যই দেখুন ''প্রাক্তন''

এই প্রথম বাংলা ছবির ব্যবসা তিনদিনে এক কোটি! শিবপ্রসাদ-নন্দিতা জুটির ছবি প্রাক্তন-এর এটাই এখন জাজ্জ্বল্যমান বর্তমান। কেন প্রাক্তন দেখবেন, কারণ খুঁজছেন ফিল্ম-সমালোচক শর্মিলা মাইতি

আত্মপ্রত্যয়ের চৌকাঠ পেরিয়ে দর্শকের মনদুয়ারে

আত্মপ্রত্যয়ের চৌকাঠ পেরিয়ে দর্শকের মনদুয়ারে

শর্মিলা মাইতি ছবির নাম: চৌকাঠ রেটিং: ***1/2

৩০ বছর পর 'বেলাশেষে' সৌমিত্র চ্যাটার্জি ও স্বাতীলেখা সেনগুপ্ত জুটি

৩০ বছর পর 'বেলাশেষে' সৌমিত্র চ্যাটার্জি ও স্বাতীলেখা সেনগুপ্ত জুটি

মুক্তি পেল শিবপ্রসাদ মুখার্জি ও নন্দিতা রায়ের বেলাশেষে। ছবিতে রয়েছে অনেক চমক। একদিকে সত্যজিত্‍ রায়ের ঘরে-বাইরে জুটি আরও একবার পর্দায়। সঙ্গে রয়েছে নানান স্বাদের গান। গতকাল হল ছবির প্রিমিয়ার।

দেশের গন্ডী ছাড়িয়ে বিদেশেও সুচিত্রা স্মরণ

সুচিত্রা সেনের মৃত্যুর খবরই এই মুহুর্তে বাংলার সংবাদমাধ্যমের শিরোনামে। শুধু দেশের মিডিয়াতেই নয়, মহানায়িকার মৃত্যুর খবর বড় করে ছাপা হয়েছে পৃথিবীর সব বড় কাগজেই। মার্কিন সংবাদপত্র ওয়াশিংটন পোস্ট,

মিসেস সেন -উত্তম কুমার জুটি, ম্যাজিক-সম্মোহনের রুপোলি রূপকথা

শুরুটা হয়েছিল ১৯৫২ সালে। নির্মল দের পরিচালনায় সাড়ে চুয়াত্তরের হাত ধরে। বাংলা সিনেমায় এক অবিস্মরণীয় রোম্যান্টিক জুটির উত্থানের সাক্ষী থেকেছিলেন দর্শকরা। উত্তম-সুচিত্রা জুটি। রুপোলী পর্দায় চির প্রেমিক

সুচিত্রার দেশে

চলে গেলেন সুচিত্রা সেন। তাঁর অনবদ্য অবদানের একঝলক।

মহানায়িকার স্মৃতিতে হবে সুচিত্রা সেন সরণি, বালিগঞ্জ ফাঁড়ির নাম হবে সুচিত্রা সেন স্কোয়ার

সকাল ৯টা ৩৫- হাসপাতালে এলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

বাঙালির রোম্যান্টিসিজমের ইতি, বিদায় মহানায়িকা

সালটা ১৯৫২। সকলের অজান্তেই বাংলা সিনেমার ইতিহাসে শুরু হয়েছিল এক নতুন অধ্যায়। ধনী ব্যবসায়ী আদিনাথ সেনের পুত্রবধূ রমা পা রেখেছিলেন অভিনয়ের জগতে। চলচ্চিত্রের পর্দায় তাঁর নাম সুচিত্রা। প্রথম ছবি শেষ

যুগের অবসান, বাংলা সুচিত্রা বিহীন

প্রয়াত বাংলা চলচ্চিত্রের মহানায়িকা সুচিত্রা সেন। অবসান ঘটল বাংলা তথা ভারতীয় সিনেমার একটা যুগের। বহুদিন ধরেই অসুস্থ ছিলেন তিনি। গত ২৬ দিন ধরে ভর্তি ছিলেন একটি বেসরকারি হাসপাতালে। আজ সকাল ৮টা ৩০ নাগাদ

আরও সঙ্কটে সুচিত্রা, দেখে এলেন মুখ্যমন্ত্রী

প্রতিদিনের মতো এদিনও সন্ধেবেলা বেলভিউতে গিয়ে সুচিত্রা সেনকে দেখে এলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বিকেল গড়াতেই সঙ্কট বেড়েছে বলে জানানো হয়েছে মেডিক্যাল বুলেটিনে। খুলে ফেলা হল এন্ডোট্র্যাকিয়াল

স্থিতিশীল হলেও এখনও সঙ্কট মুক্ত নন সুচিত্রা সেন

সঙ্কট জনক হলেও কিছুটা স্থিতিশীল সুচিত্রা সেন। তাঁর হৃদস্পন্দন ওঠানামা করছে। খোলা হয়েছে এন্ডোট্র্যাকিয়াল টিউব। টিউব ছাড়াই তিনি এখন শ্বাস নিচ্ছেন। পরিবারের সম্মতিতেই খোলা হয়েছে এই টিউব। আজ সকালে গভীর

স্থিতিশীল মহানায়িকা, তবে সঙ্কট কাটেনি, দেখে এলেন মুখ্যমন্ত্রী

এখনও সঙ্কট কাটেনি সুচিত্রা সেনের। রাত সাড়ে ৯টার মেডিক্যাল বুলেটিন দুপুর, বিকেলের দিকে তাঁর শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। রক্তে অক্সিজেনের মাত্রা কমে যাওয়ায় সঙ্কট তৈরি হলেও অক্সিজেন দেওয়ায় আপাতত

যেখানে ভূতের ভয়

যে তিনটে গল্প নিয়ে সন্দীপ রায় এই ছবি বানালেন, সেগুলো অনেকেরই ফেলে আসা সোনালি কৈশোরের বড় আদরের বন্ধু ছিল। গত বছর অনীক দত্ত যেভাবে বাঙালিমানসে ভূতগুলোকে অকৃত্রিম ঠাঁই দিয়েছিলেন, তারপর থেকেই বাংলা

জন্মদিনে মহানায়িকা

২০০৫ এ ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির সর্ব্বোচ্চ সম্মান দাদাসাহেব ফালকে পুরস্কার পেয়েছিলেন তিনি। কিন্তু তিনি বেছে নিয়েছেন নির্জনতা। তাই লোকসমক্ষে না গিয়ে সেই পুরস্কার না নেওয়ার সাহস দেখিয়েছিলেন তিনিই। এই মোহ

ডাবিং আর্টিস্ট নয়, দিয়া নিজেই বাংলা বললেন আগামী ছবিতে

বিপাশা বসু থেকে মণীষা কৈরালা। ঐশ্বর্য রাই থেকে সোহা আলি খান। অনেক `বলিউড` কন্যাই কেরিয়ারের কোনও এক মাহেন্দ্রক্ষণে কাজ করেছেন কোনও না কোনও বাংলা ছবিতে। তবে বাংলা ছবিতে নিজেদের অভিনয় দক্ষতার প্রমাণ

জানি বিরসা!

`জিরো থ্রি থ্রি`-র পর `জানি দেখা হবে`। প্রথম ছবিতে কলকাতাকে `এক্সপ্লোর` করার মধ্যে দিয়ে তৈরি হয়েছিল প্রেম।