ভাঙড় জলসা কাণ্ড, সাসপেন্ড মীর তাহের আলি

ভাঙড় কাণ্ডে অস্বস্তিতে তৃণমূল। ড্যামেজ কন্ট্রোলে নেমে প্রথমে ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দেয়। পরিস্থিতি সামলাতে যদিও তড়িঘড়ি ব্যবস্থা নেওয়া হয় ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে। মীর তাহের আলি সহ অন্য তৃণমূল নেতাদের সাসপেন্ড করে তৃণমূলের শৃঙ্খলা রক্ষা কমিটি। পাশাপাশি থানার অদূরে বিনা অনুমতিতে এমন একটি জলসা কী করে চলল। সেবিষয়ে ভাঙড় থানার কাছে জবাবদিহি চেয়েছে রাজ্যের স্বরাষ্ট্র দফতর।

ভাঙড় জলসায় নিন্দা সব মহলেই, ড্যামেজ কন্ট্রোলে ডেরেক

ভাঙড়ে প্রতিষ্ঠা দিবস উদযাপন অনুষ্ঠানে অশালীন নাচ-গান এবং টাকা ছড়ানোর ঘটনায় ফের একবার দেশজোড়া সমালোচনার মুখে তৃণমূল নেতৃত্ব। এই পরিস্থিতিতে ড্যামেজ কন্ট্রোলে নেমেছে তৃণমূলের থিঙ্কট্যাঙ্ক। আটচল্লিশ ঘন্টার মধ্যে ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন তৃণমূল সাংসদ ডেরেক ও`ব্রায়ান।

প্রতিষ্ঠা দিবসে অশ্লীল নাচগানে অস্বস্তিতে তৃণমূল

তৃণমূলের প্রতিষ্ঠা দিবস উদযাপন। ভাঙর থানার সামনে মঞ্চ বেঁধে বসল অশ্লীল নাচগানের জমজমাট আসর। উদ্যোগে তৃণমূলের এক জনপ্রতিনিধি, জেলা পরিষদ সদস্য মীর তাহের আলি। সেই আসরে চটুল গানের তালে উদ্দাম নৃত্য শালীনতার সীমা ছাড়াল। উড়ল টাকা। মঞ্চ থেকেই দর্শকদের আহ্বান জানানো হল, এই জলসা প্রাণভরে উপভোগ করতে। চব্বিশ ঘণ্টায় এই খবর সম্প্রচারের পরে অবশ্য অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেয় ভাঙর থানার পুলিস। জানা গেল, এতকিছু হচ্ছিল পুলিসের অনুমতি ছাড়াই।