মমতা গড়ে পদ্ম ফোটা রুখতে সেনাপতি ববি

মমতা গড়ে পদ্ম ফোটা রুখতে সেনাপতি ববি

মুখ্যমন্ত্রীর নির্বাচনী কেন্দ্র। আর সেখানেই কিনা পিছিয়ে তৃণমূল। গত লোকসভা ভোটে ভবানীপুরের তিনটি ওয়ার্ডে এগিয়ে ছিল বিজেপি। এবার সেই ওয়ার্ড গুলিতে বিজেপিকে রুখে দেওয়াটাই তৃণমূলের বড় চ্যালেঞ্জ। সম্মান-রক্ষার লড়াইয়ে ঘাসফুল শিবিরের সেনাপতি ফিরহাদ হাকিম।

পুজোর আগেই শহরের সব ভাঙাচোড়া রাস্তার হাল ফেরানোর আশ্বাস পুরমন্ত্রীর পুজোর আগেই শহরের সব ভাঙাচোড়া রাস্তার হাল ফেরানোর আশ্বাস পুরমন্ত্রীর

পুজোর আগেই শহরের সবকটি ভাঙাচোরা রাস্তার হাল ফেরানোর আশ্বাস দিলেন পুরমন্ত্রী। বাইপাস থেকে ডায়মন্ডহারবার রোড। যাদবপুর কানেক্টর থেকে বিটি রোড। বর্ষার ভরা মরশুমে শহরের রাস্তার হাল বেহাল। বাকি রাস্তাগুলির মেরামতি কাজ সবে শুরু হয়েছে। মেট্রোর কাজ চলায় রাস্তা সারাইয়ে সমস্যা রয়েছে বেশ কিছু রাস্তায়। সমস্যা কাটিয়ে রাস্তা সারাইয়ের কাজ সেপ্টেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহে শেষ হবে বলে মন্ত্রীর আশ্বাস।

অবশেষে বিহার থেকে গ্রেফতার মুন্না

অবশেষে গ্রেফতার হলেন গার্ডেনরিচকাণ্ডের অন্যতম অভিযুক্ত মহম্মদ ইকবাল ওরফে মুন্না। বিহারের রোহতাস জেলার ডেহরি অন শোন থেকে তাঁকে গ্রেফতার করেছে বিহার পুলিস। একটি পিসিও থেকে ফোন করার সময় তাঁকে গ্রেফতার করা হয় বলে জানা গেছে সিআইডি সূত্রে। সিআইডি-র দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতেই মুন্নাকে গ্রেফতার করা হয়। বিহারের স্থানীয় আদালতে পেশ করার পর  ট্রানজিট রিমান্ডে মহম্মদ ইকবাল ওরফে মুন্নাকে কলকাতায় আনা হবে। কবে বা কখন তাঁকে গ্রেফতার করা হয়েছে তা নিয়ে কোনও স্পষ্ট তথ্য মেলেনি।

আক্রান্তকে অভিযুক্ত প্রমাণের চেষ্টার `সিলসিলা` অব্যাহত শাসকের

আক্রান্ত রেজ্জাক মোল্লা হাসপাতালের বিছানায় শুয়ে নাটক করছেন। রবিবারই এই মন্তব্য করেছিলেন পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। কিন্তু এই প্রথম নয়। পার্কস্ট্রিট ও কাটোয়া ধর্ষণকাণ্ড, বর্ধমানে প্রদীপ তা, কমল গায়েন হত্যাকাণ্ড থেকে বর্ধমানের জেলা সভাধিপতির ওপর আক্রমণ--সব ক্ষেত্রেই এই ধরনের বিরূপ মন্তব্য করেছিলেন শাসক দলের নেতা-মন্ত্রীরা। আক্রান্তদের ওপরই ঘটনার দায় চাপানোর চেষ্টা করেছেন তাঁরা।

এসএসকেএমে অগ্নিকান্ডে ষড়যন্ত্রের অভিযোগ পুরমন্ত্রীর

এসএসকেএম হাসপাতালের অগ্নিকাণ্ডেও উঠে এল অন্তর্ঘাতের তত্ত্ব। গোটা ঘটনায় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে স্বাস্থ্য

দফতর। তদন্ত শুরুর আগেই পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের অভিযোগ, ষড়যন্ত্র করেই ডাক্তারদের রেস্টরুমে

এসি বন্ধ করা হয়নি। আগ বাড়িয়ে করা এই মন্তব্যের জেরে তদন্ত আদৌ ঠিক পথে এগোবে কিনা, তা নিয়ে সংশয়

দেখা দিয়েছে।

বিসর্জন ঘিরে উত্তপ্ত ভবানীপুর, গ্রেফতার করতে ব্যর্থ পুলিস

ভবানীপুরে জগদ্ধাত্রী পুজোর ভাসানকে ঘিরে গণ্ডগোলের ঘটনায় এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করতে পারল না পুলিস। সরকারি কাজে বাধাদান, সরকারি সম্পত্তি নষ্ট, থানায় হামলা চালানোর চেষ্টা সহ একাধিক অভিযোগে ইতিমধ্যে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা দায়ের করেছে পুলিস।