বইমেলার প্রাঙ্গণে পোলট্রি মেলা!

বইমেলার প্রাঙ্গণে পোলট্রি মেলা!

বইমেলার প্রাঙ্গণে পোলট্রি মেলা। পশ্চিমবঙ্গের পোলট্রি ফেডারেশনের উদ্যোগে মিলনমেলায় হল দেশবিদেশের ডিম-মুরগির মেলা । দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম এই মেলায় এসে অনেকেই বললেন পোলট্রি প্রফেশনাল হবো। একেই বোধহয় বলে আন্ডেকা ফান্ডা।দেশি পোলট্রি বিদেশি পোলট্রি। মিলনমেলায় ডিমমুরগির মেলা। চারশোর মতো স্টল। আর স্টলে যাঁরা তাঁদের অনেকেই বাংলার এই শিল্প নিয়ে লড়ে আজ সুপ্রতিষ্ঠিত। আধুনিক পদ্ধতি বিশাল ফার্ম । নামী হোটেল থেকে হাসপাতাল ভরসা তাঁদের পোলট্রিতেই।পনেরো হাজার কোটি টার্নওভার। বাইশ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে পোলট্রি শিল্প। প্রায় পনেরো লাখ মানুষের রুটিরুজি।

 এবারের বইমেলায় জায়গা করে নিয়েছে e -বুক স্টল এবারের বইমেলায় জায়গা করে নিয়েছে e -বুক স্টল

এবারের বইমেলায় জায়গা করে নিয়েছে E-বুক স্টল। স্মার্ট ফোনের যুগে বই পড়ার অ্যাপ কিনতে ভিড় জমাচ্ছেন অনেকেই। অ্যাপটি কিনে ফেলতে পারলে বই পড়ার খরচ বেশ কম। কিন্তু বইমেলায় E-বুক স্টল কেন? E-বুক তো আখেরে ক্ষতি করবে ছাপার অক্ষরে বইয়ের। প্রশ্ন তুলছেন বই অনুরাগীরা। এতদিন তার এন্ট্রি ছিল না। তবে এবারের বইমেলায় গুটি গুটি পায়ে ঢুকে পড়েছে সে। আর শুরুতেই  সাড়া ফেলেছে জেন ওয়াই-এর কাছে। এমনটাই দাবি ই বুকের বিদেশ বিপনন সংস্থার স্টল কর্তৃপক্ষের। ই বুকের এই বিপনন সংস্থাকে , এক ডাকে আজ অনেকেই চেনেন। ছাপার অক্ষরে কেনা বইয়ের থেকে নেটে বই পড়ার খরচ তিনগুণ কম। ফলে ক্রমেই জনপ্রিয় হয়ে উঠছে ই বুকের বিদেশ বিপনন সংস্থার অ্যাপটি ।