ওয়ার্মারে শিশু মৃত্যু কাণ্ডে সাসপেন্ড করা হল ৩ জন জুনিয়র ডাক্তার সহ কর্তব্যরত নার্সকে

ওয়ার্মারে শিশু মৃত্যু কাণ্ডে সাসপেন্ড করা হল ৩ জন জুনিয়র ডাক্তার সহ কর্তব্যরত নার্সকে

মেডিক্যালের ওয়ার্মারে শিশুমৃত্যুকাণ্ডে  নজনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিল স্বাস্থ্য দফতর। কর্তব্যরত নার্স ও ৩ জন জুনিয়র ডাক্তারকে সাসপেন্ড করা হয়েছে। বদলি করা হচ্ছে শিশু বিভাগের প্রধান, SNCUর ইনচার্জ, নার্সিং সুপার ও ডেপুটি নার্সিং সুপারকে।

ওয়ার্মারে শিশু মৃত্যু কাণ্ডে  প্রিন্সিপাল এবং সুপারকে শো কজ করা হল ওয়ার্মারে শিশু মৃত্যু কাণ্ডে প্রিন্সিপাল এবং সুপারকে শো কজ করা হল

মেডিকেলে রেডিয়ান্ট ওয়ার্মারে শিশু মৃত্যুর ঘটনায় কড়া ব্যবস্থা নেওয়া হল। শো কজ করা হল প্রিন্সপাল এবং সুপারকে।

শিশুমৃত্যু কাণ্ডে গাফিলতি স্বীকার করে নিল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ শিশুমৃত্যু কাণ্ডে গাফিলতি স্বীকার করে নিল হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ

হাসপাতালে সুবিচার না পেয়ে এবার মুখ্যমন্ত্রীর দ্বারস্থ দুই সন্তানহারা বাবা মা।  আজ সকালে মেডিক্যাল কলেজে অভিযোগ জানাতে গিয়ে চরম হেনস্থার মুখে পড়তে হয় অষ্টম-আফরিনদের।  অভিযোগ নেননি সুপার। মুখের ওপর দরজা বন্ধ করে দেন অধ্যক্ষ। বিকেলে নবান্নে মুখ্যমন্ত্রীর দফতরে গিয়ে অভিযোগ জানিয়ে আসে দুই বাবা মা। সরকারি হাসপাতালের অমানবিক মুখের সঙ্গে আগেই পরিচয় হয়েছে ওঁদের। চিকিত্সক- নার্সদের চরম গাফলতিতে ওয়ার্মারে পুড়ে গেছে প্রথম সন্তান।   

দলিত শিশুকে পুড়িয়ে মারার পর ফের দলিত কিশোরকে পিটিয়ে মারার ঘটনা ঘটল হরিয়ানায় দলিত শিশুকে পুড়িয়ে মারার পর ফের দলিত কিশোরকে পিটিয়ে মারার ঘটনা ঘটল হরিয়ানায়

ফরিদাবাদের দুই দলিত শিশুকে পুড়িয়ে মারায় নিন্দার ঝড় উঠেছে সারা দেশ জুড়ে। এখনও দগদগে রয়েছে সেই ঘা। ফের নৃশংস মৃত্যু। ফের খবরে সেই হরিয়ানা।

কান্দির ভবানীপুরে তিন কন্যা সহ মায়ের অগ্নিদগ্ধ দেহ উদ্ধার কান্দির ভবানীপুরে তিন কন্যা সহ মায়ের অগ্নিদগ্ধ দেহ উদ্ধার

আগুনে পুড়ে মা ও তিন শিশুকন্যার মৃত্যু। স্বামীর বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক জেনে ফেলাতেই খুন বলে অভিযোগ। পর পর তিন কন্যাসন্তানের জন্ম দেওয়াকে ঘিরে অশান্তি লেগেই ছিল স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে। এই অশান্তিকেই খুনের কারণ বলে অভিযোগ করছেন মৃতার পরিজনরা।

বিসি রায় হাসপাতালে ২৪ ঘণ্টায় ৪ শিশুর মৃত্যু, ১ সপ্তাহে ১৬ বিসি রায় হাসপাতালে ২৪ ঘণ্টায় ৪ শিশুর মৃত্যু, ১ সপ্তাহে ১৬

ওয়েব ডেস্ক: পরপর শিশুমৃত্যু বি সি রায় শিশু হাসপাতালে। ঘত ২৪ ঘণ্টায় ৪ জন শিশুর মৃত্যু হয়েছে বিধান রায় শিশু হাসপাতালে। গত ১ সপ্তাহে ১৬ জন শিশুর মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। অভিভাবকদের বিক্ষোভে এ দিন উত্তাল হয়ে ওঠে হাসপাতাল চত্বর। চিকিত্সায় গাফিলতি, হাসপাতালের অবহেলার অভিযোগ তুলেছেন তারা।

বিমানে অসুস্থ হয়ে মাঝ আকাশেই মৃত্যু হল শিশুর বিমানে অসুস্থ হয়ে মাঝ আকাশেই মৃত্যু হল শিশুর

মাঝপথে হঠাত্‍ অসুস্থ হয়ে বিমানেই মৃত্যু হল শিশুর। সোমবার কোচি থেকে বাহরিন গামী গলফ এয়ার বিমান জিএফ২৭১-এ বাবা, মায়ের সঙ্গে সওয়ার হয়েছিল বছর খানেকের ছোট্ট ঋষিপ্রিয়া। মাঝপথে হঠাত্‍ই অসুস্থ হয়ে পড়ায় আবু ধাবিতে জরুরি অবতরণও করানো হয় বিমান। কিন্তু, তাতেও বাঁচানো যায়নি ঋষিপ্রিয়াকে।

ভুল ইঞ্জেকশনে সদ্যজাতর মৃত্যু ভুল ইঞ্জেকশনে সদ্যজাতর মৃত্যু

ভুল চিকিৎসার শিকার হবেন আর কত মানুষ? ভুল ইঞ্জেকশনে সদ্যজাতর মৃত্যুর অভিযোগ ঘিরে উত্তেজনা ছড়াল মালদায়। ভুল করে মায়ের ইঞ্জেকশন শিশুটিকে দেওয়া হয় বলে অভিযোগ তুলেছেন আত্মীয়রা।

লিচি সিনড্রোমে রাজ্যে শিশুমৃত্যু বেড়ে ১৯

বিহারের পাশপাশি এ রাজ্যেও বেড়ে চলেছে এনসেফালাইটিসে শিশুমৃত্যুর হার। জুন মাসের ৩ তারিখ থেকে ১৯ তারিখ পর্যন্ত মালদায় এনসেফালাইটিসে মোট ১৯ জন শিশুর মৃত্যু হয়েছে। শেষ মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে শনিবার রাতে। মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সূত্র জানানো হয়েছে মৃত শিশুদের বয়স ২ থেকে ৪ বছরের মধ্যে। এনসেফালাইটিসে আক্রান্ত হওয়ার ফলে মস্তিষ্ক ফুলে গিয়ে তাদের মৃত্যু হয়েছে।

লিচি সিনড্রোমের আতঙ্কে রাজ্য জুড়েই ব্যপক হারে কমছে লিচু বিক্রি

এ এক অদ্ভুত সমস্যা। লিচু খেয়ে অসুস্থ হয়ে শুধু পশ্চিমবঙ্গে মারা গেছে ১৪ জন শিশু। মালদহ মেডিকেল কলেজে এ মাসের শুরুর এই ঘটনা আপাতত আতঙ্কের পরিবেশ তৈরি করেছে ।রাজ্যে লিচুর চিহ্ন পাওয়া যাচ্ছেনা। আতঙ্ক শুরু এ মাসের প্রথম থেকেই। রাতে মালদা কলেজে একদিনের মধ্যেই মৃত্যু হল ছজনের। কয়েকদিনের মধ্যে সেই সংখ্যা বেড়ে দাড়ালো চদ্দো।চিকিত্সকরা এখনও এই রোগের কারণ সঠিক করে বলতে পারেননি। কিন্তু বাড়ছে আতঙ্ক।

লিচি সিনড্রোমে আক্রান্ত হয়ে মালদা মেডিক্যাল কলেজে মৃত ৮ শিশু

লিচি সিনড্রোম। ভাইরাস ঘটিত এই রোগে আক্রান্ত হয়ে গত চব্বিশ ঘণ্টায় মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে আটটি শিশুর মৃত্যু হয়েছে। কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল এম রশিদ জানিয়েছেন, যেখানে লিচু উত্পাদনের আধিক্য বেশি সেখানেই এই রোগের প্রকোপ দেখা যায়।

১২ ঘণ্টায় ৫ শিশুর মৃত্যু কলকাতা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে

বারো ঘণ্টায় পাঁচটি শিশুর মৃত্যু হল কলকাতা মেডিক্যাল কলেজে। সবকটি শিশুই মারা গেছে হাসপাতালের এসএনসিইউ-তে। চিকিতসায় গাফিলতির অভিযোগ করেছেন শিশুদের অভিভাবকরা। পর্যাপ্ত চিকিতসক না থাকা, জুনিয়র ডাক্তারদের দিয়ে চিকিতসা করানো এবং সঠিক পরিকাঠামোর অভাবকেই শিশুমৃত্যুর জন্য দায়ী করেছেন তাঁরা।

একদিনে নটি শিশুর মৃত্যু মালদা হাসপাতালে

চব্বিশ ঘণ্টায় নটি শিশুর মৃত্যুর ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়াল মালদা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে। মৃত শিশুদের প্রত্যেকেরই বয়স এক দিন থেকে এক বছরের মধ্যে। ঘটনায় ইতিমধ্যেই শিশু মৃত্যুর কারণ খতিয়ে দেখার নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর।

মালদায় ফের শিশুমৃত্যুর মিছিল

ফের শিশুমৃত্যুর ঘটনা মালদা হাসপাতালে। গত চব্বিশ ঘণ্টায় ওই হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে ৯টি সদ্যোজাতের। আজ সকালে মারা গিয়েছে আরও ৩টি শিশু।ফলে ফের প্রশ্নের মুখে চিকিত্সা পরিষেবা।

শিশুমৃত্যুর ঘটনা স্বীকার করে নিয়ে মালদা মেডিক্যাল কলেজের সুপার হিমাদ্রি আরি জানিয়েছেন, জন্মের পর থেকে দুর্বলতার কারণেই ওই শিশুদের মৃত্যু হয়েছে। শিশুমৃত্যুর ঘটনায় উদ্বিগ্ন জেলা স্বাস্থ্য দফতরের কর্তারা রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের কাছে সাহায্যের জন্য আবেদন জানিয়েছেন। এই পরিস্থিতি নিয়ে গতকাল জেলা স্বাস্থ্য দফতরের সঙ্গে বৈঠক করেন জেলা স্বাস্থ্য দফতরের চেয়ারম্যান কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী। 

ফের শিশু মৃত্যু মালদহে

এর আগেও মালদহ মেডিক্যাল কলেজে একদিনে একাধিক শিশু মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছিল। বিভিন্ন ক্ষেত্রে চিকিত্‍‍সায় গাফিলতি ও অস্বাস্থ্যকর পরিবেশের অভিযোগ উঠেছিল। সমস্যা এড়াতে বেশ কিছু পদক্ষেপ নিয়েছিল স্বাস্থ্য দফতর। হাসপাতালের তরফ থেকেও বেশকিছু প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু গত একবছরে নিউ ন্যাটাল কেয়ার ইউনিট চালু বিশেষ কিছু হয়নি। চিকিত্‍‍সক, নার্স ও শয্যার সংখ্যা বাড়ানোর প্রস্তাব থাকলেও তা কার্যকর হয়নি। ফলে একই শয্যায় একাধিক শিশুকে রাখা হচ্ছে।

শিশুমৃত্যু রুখতে নয়া পদক্ষেপ

শিশুমৃত্যু প্রতিরোধে নতুন উদ্যোগ নিল রাজ্য সরকার। একদিনে ৩টির বেশি শিশুর মৃত্যু হলেই সংশ্লিষ্ট হাসপাতালকে তদন্ত কমিটি গড়ার নির্দেশ দিয়েছে রাজ্য স্বাস্থ্য দফতর। শিশু মৃত্যু প্রতিরোধে গঠিত হাই লেভেল টাস্ক ফোর্সের পরামর্শ মতই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতর।