চিট ফান্ড কাণ্ড: আত্মহত্যার চেষ্টা এজেন্টের

চিটফান্ড কাণ্ডের জেরে বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন নদিয়ার এক এজেন্ট। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে রানাঘাট মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অনুমতি না নিয়ে একটি বেআইনি চিটফান্ড সংস্থা তাঁর মোবাইল নম্বর ব্যবহার করায় আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন মালদার এক অশিক্ষক কর্মী। তাঁর অভিযোগ, ওই চিটফান্ড সংস্থার কয়েকজন এলাকার পরিচিত তৃণমূল কর্মী হওয়ায় বারবার জানানোতেও কোনও ব্যবস্থা নেয়নি পুলিস। সারদাকাণ্ডের পর থেকে প্রায় প্রতিদিনই বাড়িতে চড়াও হচ্ছিলেন আমানতকারীরা। টাকা ফেরত দেওয়ার জন্য ক্রমশই চাপ বাড়ছিল। র‍্যামেল এবং ন্যাপেলাইন সংস্থার হয়ে প্রায় কোটি টাকা বাজার থেকে তুলেছিলেন নদিয়ার রানাঘাটের সৌমিত্র কুমার দাস। পরিবারের দাবি, আমানতকারীদের চাপ সহ্য করতে না পেরেই বিষ খেয়ে আত্মঘাতী হওয়ার চেষ্টা করেন সৌমিত্রবাবু।  

অভিযুক্ত সুরাহা মাইক্রোফিনান্সও

সারদা, অ্যানেক্সের পর এবার শিলিগুড়ির সুরাহা মাইক্রোফিনান্স। আমানতকারীদের থেকে প্রায় কুড়ি কোটি টাকা নিয়ে উধাও  সংস্থার কর্ণধার দিলীপ রঞ্জন নাথ। গত বাইশে এপ্রিল সংস্থার কর্ণধারের বিরুদ্ধে শিলিগুড়ির প্রধাননগর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন সংস্থার এজেন্টরা। যদিও এখনও অধরা সুরাহা মাইক্রোফিনান্সের কর্ণধার। অল্প সময়ে কয়েকগুণ টাকা ফেরত।  এই লোভ দেখিয়ে আমানতকারীদের থেকে কয়েক কোটি টাকা সংগ্রহ। এরপর নির্ধারিত সময় পেরিয়ে গেলেও টাকা ফেরত না দিয়ে সংস্থা বন্ধ করে উধাও কর্ণধার। সারদা, অ্যানেক্সের পর এবার একই ছকে প্রতারণা উত্তরবঙ্গে। সংস্থার নাম সুরাহা মাইক্রোফিনান্স। উত্তরবঙ্গ জুড়ে সংস্থার ছেচল্লিশটি কার্যালয়ে এজেন্টের সংখ্যা প্রায় পাঁচ হাজার। দশ লক্ষ আমানতকারীদের থেকে প্রায় কুড়ি কোটি টাকা সংগ্রহ করেছে এই অর্থলগ্নি সংস্থা। একত্রিশে জানুয়ারি সংস্থার কার্যালয়ে তালা ঝুলিয়ে উধাও হন কর্ণধার দিলীপ রঞ্জন নাথ।  অবিলম্বে তাকে গ্রেফতার করে আমানতকারীদের টাকা ফেরত দেওয়ার দাবি করেছেন সংস্থার এজেন্টরা।