সেমিফাইনাল থেকে বিদায় নিল মোহনবাগান, ফেড কাপ যাচ্ছে গোয়াতেই

ফেডারেশন কাপ থেকে বিদায় নিল মোহনবাগান। সেমিফাইনালে চার্চিল ব্রাদার্সের ২-১ গোলে হেরে সবুজ মেরুন নৌকাডুবি হল। ম্যাচের চার মিনিটে বলবন্ত সিংয়ের গোলে এগিয়ে যায় চার্চিল। পেনাল্টি থেকে ব্যবধান বাড়ান অ্যান্টনি উলফ। মোহনবাগানের হয়ে ব্যবধান কমান ওডাফা। মোহনবাগানের বিদায়ে আর কোনও বাংলার দলই রইল না ফেডারেশন কাপে।

ড্র করে ফেড কাপের সেমিফাইনালে মোহনবাগান, সামনে চার্চিল

সালগাঁওকরের বিরুদ্ধে এক-এক গোলে ড্র করে সেমিফাইনালে মোহনবাগান।প্রথমার্ধ গোলশূন্য থাকার পর।দ্বিতীয়ার্ধে পেনাল্টি থেকে গোল করে মোহনবাগানকে এগিয়ে দেন ওডাফা। সালগাঁওকরকে সমতায় ফেরান জাইরু।সেমিফাইনালে মোহনবাগানের প্রতিপক্ষ চার্চিল ব্রাদার্স।

এক ফোনে মিলল সুভাষ আর মানচিনির প্রাক্তন ক্লাব

বেজে উঠল চার্চিল ব্রাদার্সের মালিক আলেমাও চার্চিলের ফোন। ভেসে উঠল আইএসডি নম্বর। হ্যালো বলতেই চমক। ফোনের ওপারে ম্যানচেস্টার সিটির সিইও ফেরিয়ান সোরিয়ানো। ইপিএলের ক্লাব ম্যান সিটির সিইও চার্চিল ব্রাদার্স মালিককে শুভেচ্ছা জানালেন আইলিগ জয়ের জন্য।

চার্চিলকে আই লিগে এনে দিয়ে নতুন নজির সুভাষ ভৌমিকের

চার্চিল ব্রাদার্সকে আই লিগ চ্যাম্পিয়ন করিয়ে ভারতীয় ফুটবলে নতুন নজির গড়লেন সুভাষ ভৌমিক। দুটো আলাদা দলের হয়ে কোচিং করিয়ে আই লিগ জিতলেন সুভাষ ভোমিক। মঙ্গলবার গোয়ার তিলক ময়দানে মোহনবাগানের বিরুদ্ধে ১-১ গোলে ড্র করে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই চ্যাম্পিয়ন হল চার্চিল ব্রাদার্স।

আই লিগ খেতাব হাতছাড়া ইস্টবেঙ্গলের, রানার্সও হওয়া অনিশ্চিত

এবারের মত আই লিগে জেতার স্বপ্নভঙ্গ হল ইস্টবেঙ্গলের। শনিবার গোয়ার তিলক ময়দানে ডেম্পোর সঙ্গে পয়েন্ট নষ্ট করায় এবারের আই লিগ জেতার সম্ভাবনা আর থাকল না ইস্টবেঙ্গলের। মরগ্যানের দল আজ ২-২ গোলে ড্র করায় আই লিগ জিতে গেল সুভাষ ভৌমিকের দল চার্চিল ব্রাদার্স। চার্চিলকে এখন পয়েন্টের নিরিখ ধরতে পারে শুধু পুণে এফসি। পুণে ছুঁয়ে ফেললেও তাদের টপকে চার্চিলই খেতাব জিতবে হেড টু হেড নিরিখে৷ তাই আজই আই লিগ জিতে ফেলল চার্চিল ব্রাদার্স।

মোহনবাগানকে হারিয়ে আই লিগ এখন সুভাষ ভোমিকের পকেটে

মোহনবাগানকে হারিয়ে আই লিগ খেতাব প্রায় নিশ্চিত করে ফেলল চার্চিল ব্রাদার্স। বাকি দুম্যাচ থেকে দুপয়েন্ট পেলেই দেশের সেরা ক্লাবের তকমা পেয়ে যাবে গোয়ার দলটি। আই লিগের সুপার সানডেতে গোটা দেশের ফুটবলমহলের চোখ ছিল কল্যাণীর হাইপ্রোফাইল ম্যাচের দিকে। ইস্টবেঙ্গল সমর্থকরাও তাকিয়ে ছিলেন ওডাফা-টোলগেদের দিকে। কিন্তু লিগ শীর্ষে থাকা চার্চিলের বিরুদ্ধে হতাশ করল দুরন্ত ফর্মে থাকা মোহনবাগান।প্রথমার্ধে হেনরির করা জোড়া গোলে করিমের দলকে হারিয়ে দিল সুভাষ ভৌমিকের দল।প্রথমার্ধে দুরন্ত ফুটবল খেলে চার্চিল। হেনরি আর সুনীল ছেত্রীর জুটিকে আটকাতে কার্যত নাস্তানাবুদ হতে হয় ইচেবিহীন মোহনবাগান ডিফেন্সকে।

চার্চিল সুযোগ দিল, ইস্টবেঙ্গল নিল না

লিগ শীর্ষে থাকা চার্চিলের পয়েন্ট নষ্ট করার অ্যাডভান্টেজ কাজে লাগাতে পারল না ইস্টবেঙ্গল। মরগ্যানের স্ট্র্যাটেজির ভুলে ফের একবার পচা শামুকে পা কাটল লাল-হলুদ শিবিরের। কল্যাণীতে এয়ার ইন্ডিয়ার সঙ্গে ১-১ গোলে ম্যাচ শেষ করল ইস্টবেঙ্গল। ৯১ মিনিট পর্যন্ত এগিয়ে থেকেও জয় হাতছাড়া করলেন মেহতাবরা। শিল্ড ফাইনালের দলে বেশ কয়েকটি পরিবর্তন করেছিলেন লাল-হলুদ কোচ। অসুস্থতা আর চোটের জন্য প্রথম একাদশে ছিলেন না ওপারা আর খাবরা। তার উপর পেন অফ ফর্মে থাকায় প্রথমার্ধে ইস্টবেঙ্গলের খেলা সেভাবে দানা বাঁধেনি।

আই লিগে কাল ইস্টবেঙ্গল বনাম সুভাষ

ঘরের মাঠে চার্চিল ব্রাদার্সকে হারিয়ে আই লিগের খেতাবি দৌড় জমিয়ে দেওযার সুবর্ণ সুযোগ ইস্টবেঙ্গলের সামনে। শনিবার যুবভারতীতে লিগ শীর্ষে থাকা সুভাষ ভৌমিকের চার্চিলের বিরুদ্ধে খেলতে নামছে লাল-হলুদ শিবির। চলতি মরসুমে দুবারের সাক্ষাতেই গোয়ার দলটিকে টেক্কা দিয়েছেন চিড্ডিরা। তবে মেহতাব বলছেন,শনিবার একেবারে অন্য ম্যাচ। কেননা যুবভারতী জিততে না পারলে আই লিগ জয়ের স্বপ্ন শেষ হয়ে যাবে।

সুভাষের বাজিমাত, রন্টিকে হারালেন বেটো

চলতি মরসুমে চার্চিল টিডি হিসাবে কলকাতায় প্রথম ম্যাচেই বাজিমাত করলেন সুভাষ ভৌমিক। যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনে প্রয়াগকে ২-১ গোলে হারিয়ে তিন পয়েন্ট নিয়ে গেল সুভাষ ভোমিকের চার্চিল ব্রাদার্স। কার্লোস হার্নান্ডেজের ছাড়া মাঠে নামার খেসারত দিতে হল প্রয়াগ ইউনাইটেডকে। ৮ ম্যাচে ১৮ পয়েন্টে পেয় চার্চিল ব্রাদার্স লিগ তালিকায় দু নম্বরে চলে এল। অন্যদিকে শেষ দুটো ম্যাচে পাঁচ পয়েন্ট নষ্ট করে চ্যাম্পিয়নশিপের দৌড়ে বেশ খানিকটা পিছিয়ে পড়ল এলকোর প্রয়াগ।

আই লিগে শীর্ষে ইস্টবেঙ্গল, সুভাষকে পরাস্ত করলেন মরগ্যান

এই ম্যাচটা ছিল পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষে ওঠার, দুই কোচের মর্যাদার আর একটু বেশি করে ভাবলে গোয়া বনাম বাংলার। এই এত বড় সব মর্যাদার লড়াইয়ে শেষ হাসি হাসল ইস্টবেঙ্গল। গোয়ার মাটিতে সুভাষ ভৌমিকের চার্চিল ব্রাদার্সকে ৩-০ গোল উড়িয়ে দিয়ে মরগ্যান বাহিনী একসঙ্গে অনেকগুলো জয় পেল।

বিমানবিভ্রাটে নাজেহাল ইস্টবেঙ্গল

বিমানবিভ্রাটের দরুণ গোয়ায় দেরিতে পৌঁছল ইস্টবেঙ্গল। সোমবার সকাল সাড়ে নটায় বিমান ধরে ইস্টবেঙ্গল দল। মরগ্যানের ইচ্ছা ছিল,গোয়ায় পৌঁছে ফুটবলারদের ফিজিক্যাল ট্রেনিং করানোর। কিন্তু প্রায় একঘন্টা দেরিতে পৌঁছানোয় সেই পরিকল্পনা বাতিল হয় ইস্টবেঙ্গলের। স্বাভাবিকভাবেই হতাশ কোচ মরগ্যান। ফুটবলারদের বিশ্রাম দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন কোচ। শুক্রবার সকালে সাড়ে আটটা থেকে মূল স্টেডিয়ামে অনুশীলন সারবে ইস্টবেঙ্গল।

শনিবারের মেগাম্যাচে সুভাষকে সমীহ মরগ্যানদের

শনিবার মারগাঁওতে ভারতীয় ফুটবলের দুই সেরা কোচের লড়াই। ফতোরদা স্টেডিয়ামে মাঠের মাঝখানে যেমন বেটো আর মেহেতাবদের মধ্যে হাড্ডাহাড্ডি লড়াই চলবে, তেমনই নজর থাকবে রিজার্ভ বেঞ্চে বসে দুই অভিজ্ঞ কোচ মরগ্যান আর সুভাষ ভৌমিকের স্ট্র্যাটেজির লড়াইয়ের দিকেও। ফেডকাপে ভৌমিকের চার্চিলকে হারিয়েছিল ইস্টবেঙ্গল। আই লিগের মেগা ম্যাচকে অবশ্য তাঁর আর সুভাষ ভৌমিকের লড়াই হিসাবে দেখতে নারাজ মরগ্যান। তবে শনিবারের ম্যাচে অভিজ্ঞ সুভাষ ভৌমিক একটা ফ্যাক্টর হতে পারে বলে মানছেন লাল-হলুদ অধিনায়ক সঞ্জু প্রধান।

ফেড কাপ থেকে মোহনবাগানের বিদায়

ফেডারেশন কাপ থেকে বিদায় নিল মোহনবাগান। এয়ার ইন্ডিয়ার কাছে ০-২ গোলে হেরে প্রতিযোগিতার ইতিহাসে সবচেয়ে সফল দলের অভিযান শেষ হল।