সুদীপ্তর ডায়রি, পেন ড্রাইভ, ক্যাশবুক হারায়নি, দাবি দেবযানীর আইনজীবীর

সুদীপ্তর ডায়রি, পেন ড্রাইভ, ক্যাশবুক হারায়নি, দাবি দেবযানীর আইনজীবীর

সুদীপ্ত সেনের ডায়রি, পেন ড্রাইভ, সারদার ক্যাশবুক হারিয়ে যায়নি। বিধাননগর পুলিসকে সেগুলি জমা দেওয়া হয়েছিল। আলিপুর আদালতে এমনই দাবি করলেন দেবযানী মুখোপাধ্যায়ের আইনজীবী। তদন্তে নেমে শুরু থেকেই এইসব

সারদা কাণ্ডে প্রশ্নের মুখে সিবিআই-এর তদন্ত প্রক্রিয়া

সারদা কাণ্ডে প্রশ্নের মুখে সিবিআই-এর তদন্ত প্রক্রিয়া

  সারদা কেলেঙ্কারিতে প্রশ্নের মুখে সিবিআইয়ের তদন্ত প্রক্রিয়া। আদালতে বাজেয়াপ্ত নথির তালিকা পেশে ব্যর্থ হল কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা সংস্থা। সিবিআই আইনভঙ্গ করেছে বলে অভিযোগ, অভিযুক্তপক্ষের। এদিকে, সুদীপ্ত,

সারদা কাণ্ড: এখনও বিজ্ঞপ্তিই হয়েনি মুখ্যমন্ত্রীর প্রতিশ্রুত তহবিলের

সারদা গোষ্ঠীর চিটফান্ডে টাকা রেখে প্রতারিত হয়েছেন রাজ্যের কয়েকলক্ষ মানুষ। ক্ষতিগ্রস্তদের টাকা ফেরত দিতে পাঁচশ কোটি টাকার বিশেষ তহবিল গঠনের কথা ঘোষণা করেন মুখ্যমন্ত্রী। কিন্তু দুমাসের বেশি সময় পেরিয়ে

সুদীপ্ত-দেবযানীকে নিয়ে সারদার ঢাকুরিয়া অফিসে তল্লাসি পুলিসের

সুদীপ্ত সেন ও দেবযানী মুখোপাধ্যায়কে নিজেদের হেফাজতে নেওয়ার পর বৃহস্পতিবার ঢাকুরিয়ায় সারদার অফিসে তল্লাসি চালায় কলকাতা পুলিস। সংস্থার কর্ণধার সুদীপ্ত সেনকে সঙ্গে নিয়ে দুপুর তিনটে থেকে রাত এগারোটা

ছাড়া পেলেন দেবযানী

এসএসকেএম হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হল সারদা চিটফান্ড কেলেঙ্কারির অন্যতম অভিযুক্ত দেবযানী মুখোপাধ্যায়কে। সকালে কয়েকটি রুটিন পরীক্ষার পর তাঁকে ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন চিকিৎসকেরা। এসএসকেএম কর্তৃপক্ষ

আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগ সুদীপ্তর বিরুদ্ধে

সারদা চিটফান্ড কেলেঙ্কারিতে সুদীপ্ত সেনের বিরুদ্ধে এবার যোগ হতে চলেছে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার মামলা। সারদা গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে আর্থিক প্রতারণার অভিযোগ সামনে আসার পরই আত্মঘাতী হন উর্মিলা প্রামাণিক

দেবযানী কেন দামি বেসরকারি হাসপাতালে, তুমুল বিতর্ক

বেসরকারি হাসপাতালে চিকিত্‍‍সা করানো নিয়ে বিতর্কে জড়ালেন সারদার সেকেন্ড ইন কমান্ড দেবযানী মুখার্জি। শনিবার শারীরিক অসুস্থতার কারণে তাঁকে সল্টলেকের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শনি ও রবি

আজ আদালতে পেশ দেবযানীকে

আজ আদালতে পেশ করা হবে দেবযানী মুখার্জিকে। সারদাকাণ্ডে অন্যতম অভিযুক্ত দেবযানীকে শনিবারই বিধাননগর মহকুমা আদালতে পেশ করার কথা ছিল। তবে অসুস্থতার কারণে তাঁকে সেদিন আদালতে পেশ করা সম্ভব হয়নি।

চিট ফান্ড কাণ্ড: আত্মহত্যার চেষ্টা এজেন্টের

চিটফান্ড কাণ্ডের জেরে বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন নদিয়ার এক এজেন্ট। আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাঁকে রানাঘাট মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অনুমতি না নিয়ে একটি বেআইনি চিটফান্ড সংস্থা তাঁর মোবাইল নম্বর

আদালতে সুদীপ্ত, হাসপাতালে দেবযানী

আজ ফের আদালতে পেশ করা হল সুদীপ্ত সেন, অরবিন্দ সিং চৌহানকে। সুদীপ্ত সেনের জেল হেফাজতের আর্জি জানান হল বিধাননগর পুলিসের পক্ষ থেকে। অসুস্থ হয়ে পড়ায় একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে দেবযানী

দশদিনেই ডিগবাজি সুদীপ্ত সেনের

মাত্র এক মাস দশ দিনের ব্যবধানে একশো আশি ডিগ্রি ঘুরে গেল সারদাকর্তা সুদীপ্ত সেনের বয়ান। যে সিবিআইএয়ের উপর ভরসা করেই চিঠি  লিখেছিলেন সুদীপ্ত সেন, সেই সিবিআই তদন্তেই অনাস্থা প্রকাশ করে আদালতে হলফনামা

সরকারের সঙ্গেই সুর মিলিয়ে সিবিআই তদন্তের বিরোধীতায় সুদীপ্ত সেন

রাজ্য সরকারের মতোই সুদীপ্ত সেনও চান না সারদা চিটফান্ড কাণ্ডে তদন্ত করুক সিবিআই। শুধু তাই নয়, সুদীপ্ত সেনের ভরসার জায়গা রাজ্য সরকারের তৈরি করা স্পেশাল ইনভেস্টগেশন টিম এবং কমিশন। কলকাতা হাইকোর্টে

সারদা কাণ্ডে রাজ্যের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ

সারদা-কাণ্ডের তদন্তে এ বার রাজ্যের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ উঠল। হাইকোর্টের বিচারপতির কাছে সরাসরি এই অভিযোগ জানিয়েছে ডিরেক্টরেট অফ এনফোর্সমেন্ট। আগামিকালের মধ্যে এ বিষয়ে রাজ্যকে তাদের বক্তব্য

রহস্যজনক ফোনে নেপাল ছেড়ে ভারতে প্রত্যাবর্তন সুদীপ্তর

পরিকল্পনামাফিক পালিয়েছিলেন সারদাকর্তা। পুলিসি জেরায় ক্রমশ জোরালো হচ্ছে সেই তথ্য। দেশ ছেড়ে তিনি নেপাল পৌঁছে গেলেও একটি ফোন পেয়ে ভারতে ফিরে এসেছিলেন বলে জেরায় জানিয়েছেন সুদীপ্ত সেন। গত সতেরোই এপ্রিল

সর্ষের মধ্যে ভূত, নজরদারী অফিসাররা মাসোহারা নিতেন সুদীপ্তর থেকে

আদালতের অনুমতি নিয়ে এই প্রথম সারদাকাণ্ডের তদন্তে হস্তক্ষেপ করল কেন্দ্রীয় সরকার। শুক্রবার অর্থমন্ত্রকের অধীনস্থ সিরিয়াস ফ্রড ইনভেসটিগেটিং অর্গানাইজেশনের দুই কর্তা পুলিসের থেকে তদন্তের গতিপ্রকৃতি

সুদীপ্তর পর আজ বিবৃতির পালা দেবযানীর

সুদীপ্ত সেনের পর এবারে মুখ খুলবেন দেবযানী মুখোপাধ্যায়ও। গতকালই বিস্ফোরক মন্তব্য করেছিলেন সুদীপ্ত সেন। শুধু বিভিন্ন লোকের নাম বলাই নয়, যাবতীয় তথ্যই ফাঁস করে দেওয়ার হুঁশিয়ারি শোনা গিয়েছিল সারদা কর্তার