বৃষ্টিতে কাকভেজা হয়েই অনুশীলনে কোচ বিশ্বজিত ও ইস্টবেঙ্গল

বৃষ্টিতে কাকভেজা হয়েই অনুশীলনে কোচ বিশ্বজিত ও ইস্টবেঙ্গল

তুমুল বৃষ্টির ফলে ক্লাবের মাঠের অবস্থা খারাপ। এরই মধ্যে বৃহস্পতিবার সকালে দল নিয়ে প্রথমবার মাঠে নামলেন ইস্টবেঙ্গলের নতুন কোচ বিশ্বজিত ভট্টাচার্য। প্রাক মরশুম অনুশীলনে প্রথমদিন অবশ্য বল ছুঁলেন না ফুটবলাররা। ঘন্টা খানেকের অনুশীলনে জোর দেওয়া হল ফ্যিজিকাল ট্রেনিং ও পেশি শক্তি বাড়ানোর দিকে। নয়া কোচের কড়া নজরের মধ্যে অনুশীলন করলেন রাহুল বেকে,বিকাশ জাইরুরা। মরশুমের প্রথম অনুশীলন বলে মেহতাবদের কড়া অনুশীলন করাননি বিশ্বজিত। সময় যত গড়াবে তত বাড়বে ট্রেনিংয়ে সময়। প্রথমদিন দলকে অনুশীলন করিয়ে খুশি বিশ্বজিত। 

র‍্যান্টিই কেবল থাকবেন, বাকি বিদেশীদের ছাঁটবে লাল-হলুদ র‍্যান্টিই কেবল থাকবেন, বাকি বিদেশীদের ছাঁটবে লাল-হলুদ

মরসুম শেষ হতে এখনও বেশ খানিকটা সময় বাকি। অঙ্কের বিচারে এখনও আই লিগে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার সুযোগ আছে লাল-হলুদের। তবে এখন থেকেই নতুন মরসুমের পরিকল্পনা শুরু করে দিয়েছে ইস্টবেঙ্গল। প্রাথমিকভাবে র‍্যান্টি মার্টিন্স ছাড়া বাকি সব বিদেশিকে ছেড়ে দিতে চলেছে লাল-হলুদ। মার্কি ফুটবলার লিও বার্তোসের সঙ্গে ২ বছরের চুক্তি থাকলেও, কিউই বিশ্বকাপারের সঙ্গে গোল্ডেন হ্যান্ডশেক করে নিতে চলেছে ইস্টবেঙ্গল। অসি ডিফেন্ডার মিলান সুসাককেও আর রাখবে না লাল-হলুদ। এমনকি বিদায় নিতে চলেছেন র‍্যান্টির স্ট্রাইকিং পার্টনার ডুডু। ভাল দল তৈরি করেও ঘরোয়া লিগ ছাড়া চলতি মরসুমে আর কিছুই জিততে পারেনি ইস্টবেঙ্গল। তাই আগামী মরসুমে বিদেশি বাছার ক্ষেত্রে আরও সাবধানী হতে চাইছে লাল-হলুদ কর্তারা।

ফেসবুকে এলকোর বিতর্কিত মন্তব্য,ছাড়ো ছাড়ো মনোভাব স্পষ্ট ফেসবুকে এলকোর বিতর্কিত মন্তব্য,ছাড়ো ছাড়ো মনোভাব স্পষ্ট

ইস্টবেঙ্গলের দায়িত্ব নেওয়ার দেড় মাসের মধ্যেই বিতর্কে জড়ালেন এলকো সাতোরি। রয়্যাল ওয়াইন্ডোর বিরুদ্ধে ম্যাচের একদিন আগে ফেসবুকে এলকোর একটি মন্তব্যে রীতিমত আলোড়ন সৃষ্টি হয়। সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটের মাধ্যমে মধ্যপ্রচ্যে যে কোনও দেশে কোচিং করানোর জন্য প্রস্তাব দেন একজন এজেন্ট। সঙ্গে সঙ্গে সেই এজেন্টকে মেলের মাধ্যমে তার সিভি পাঠাতে উতসাহী হয়ে পরেন এলকো। দায়িত্ব নেওয়ার দেড় মাসের মধ্যেই এলকোর এই কর্মকান্ডে নতুন করে বিতর্ক জন্ম দেয় ময়দানে। প্রশ্ন উঠতে শুরু করে তবে কি অল্প কয়েকদিনেই ইস্টবেঙ্গলের সঙ্গে দুরত্ব শুরু হয়েছে ডাচ কোচের? তাই কি এখন থেকেই নতুন চাকরির খোঁজে নেমে পরলেন এলকো। লালহলুদ কর্তারা অস্বস্তিতে পরে যান।