শহর কলকাতার বাজারগুলোয় আলুর কোনও ফিক্সড রেটই নেই

শহর কলকাতার বাজারগুলোয় আলুর কোনও ফিক্সড রেটই নেই

ঢালাও ফলন। দাম একেবারে তলানিতে। মাথায় হাত রাজ্যের আলুচাষিদের। লাভের মুখ দেখা দুরে থাক, লোকসানের আশঙ্কা কৃষকদের রাতের ঘুম কেড়েছে। মন্দার এই দিনে বাজারের অবস্থাও বেহাল। শহর কলকাতার বাজারগুলোয় আলুর

মিড ডে মিলের আলু সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে কিনবে সরকার

মিড ডে মিলের আলু সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে কিনবে সরকার

আলু চাষিদের পাশে দাঁড়াতে উদ্যোগী রাজ্য। মিড ডে মিলের আলু সরাসরি কৃষকদের কাছ থেকে কিনবে সরকার। শুধু তাই নয়, রফতানির ক্ষেত্রেও মিলবে ভর্তুকি। ঘোষণা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের। উদ্যোগ

চুক্তি চাষে লক্ষ্মীলাভ

চুক্তি চাষে লক্ষ্মীলাভ

চুক্তি চাষে লক্ষ্মী আসছে চাষির ঘরে। হাটের চেয়ে বেশি দর দিচ্ছে কোম্পানি। সহ্য করতে হচ্ছে না ফড়েদের উত্‍পাতও। জেলায় জেলায় ঘুরে কৃষকদের অভিজ্ঞতার কথা শুনলেন আমাদের প্রতিনিধিরা।   

চাষীরা বলছেন, নোট বাতিলের কারণে কৃষিক্ষেত্রে জোরালো ধাক্কা লেগেছে

চাষীরা বলছেন, নোট বাতিলের কারণে কৃষিক্ষেত্রে জোরালো ধাক্কা লেগেছে

নোট বাতিল। ATM এ লাইন, পেটিএম নির্ভরতা। ক্রমশ পুরনো হচ্ছে। কিন্তু যে আদি অর্থনীতির ওপর ভর করে গোটা দেশ চলে, সেই কৃষিক্ষেত্র কেমন আছে। চাষিরা বলছেন জোরালো ধাক্কা লেগেছে।

আজই পূর্ণ হচ্ছে সিঙ্গুর আন্দোলনের বৃত্ত, কৃষকদের জমি ফিরিয়ে দিতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী

আজই পূর্ণ হচ্ছে সিঙ্গুর আন্দোলনের বৃত্ত, কৃষকদের জমি ফিরিয়ে দিতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী

আজই পূর্ণ হতে চলেছে সিঙ্গুর আন্দোলনের বৃত্ত। নিজে মাঠে নেমে, কৃষকদের হাতে তাঁদের জমি ফিরিয়ে দিতে চলেছেন মুখ্যমন্ত্রী। শুধু তাই নয় জমিতে বীজ বপনের কাজও করবেন তিনি। কৃষকদের সঙ্গে  কথা বলে প্রস্তুত

সিঙ্গুরে জমি ফেরতের দিন ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী

সিঙ্গুরে জমি ফেরতের দিন ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী

বৃহস্পতিবার থেকে সিঙ্গুরে জমি ফেরত শুরু। নবান্নে ঘোষণা করলেন মুখ্যমন্ত্রী। ওইদিন সিঙ্গুর যাচ্ছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মালিকদের হাতে নিজেই জমি তুলে দেবেন। গোপালনগর মৌজা থেকে শুরু হবে জমি ফেরতের কাজ।

অবশেষে সিঙ্গুরে জমি হাতে পেতে চলেছেন কৃষকরা

অবশেষে সিঙ্গুরে জমি হাতে পেতে চলেছেন কৃষকরা

অবশেষে সিঙ্গুরে জমি হাতে পেতে চলেছেন কৃষকরা। ইতিমধ্যেই বহু কৃষক জমির পরচা পেয়ে গেছেন। কিন্তু জমির দখল না পাওয়ায় সেখানে ঢুকতে পারেননি তারা। জেলা প্রশাসনের সিদ্ধান্ত আগামিকাল বা পরশু থেকে জমির দখল

১০ বছর পর নিজেদের জমি ছুঁয়ে গেলেন সিঙ্গুরের ইচ্ছু-অনিচ্ছুক কৃষকরা

১০ বছর পর নিজেদের জমি ছুঁয়ে গেলেন সিঙ্গুরের ইচ্ছু-অনিচ্ছুক কৃষকরা

এতদিন শুধু অপলক দৃষ্টিতেই তাকিয়ে থাকতেন। কাঁটাতারের ওপারে থাকা জমির দিকে তাকিয়ে চোখের জল মুছতেন। অবশেষে শীর্ষ আদালতের নির্দেশে জমির অধিকার ফিরে পেয়েছেন। আর আজ সেই জমি ফিরে পাওয়ার দিন।  ১০ বছর পর

 কৃষকদের ৫০ লক্ষ মোবাইল ফোন দেওয়া হবে!

কৃষকদের ৫০ লক্ষ মোবাইল ফোন দেওয়া হবে!

পাকিস্তানে আধুনিক চাষাবাদে উৎসাহিত করার লক্ষ্য নিয়ে সরকার কৃষকদের মধ্যে ৫০ লক্ষ মোবাইল ফোন বিতরণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। পাঞ্জাবের আইটি বোর্ডের চেয়ারম্যান ডঃ উমার সইফ বলছেন, আগামী অক্টোবর মাসেই

বিপদ যখন ভাতের থালায়

বিপদ যখন ভাতের থালায়

ভাত ছাড়া বাঙালির একটা দিনও চলে না। কিন্তু সরু চাল বলে যেটা কিনছেন, জানেন কি তা আসলে কী?  চালের কোনো পুষ্টিগুণ কি আদৌ পাচ্ছে আপনার বাচ্চা?  বিশেষজ্ঞরা বলছেন সরু চালেই যত গণ্ডগোল। বারবার পালিশে সেই

জমি মাফিয়াদের বিরুদ্ধে এবার সরাসরি নবান্নে দ্বারস্থ কৃষকেরা

জমি মাফিয়াদের বিরুদ্ধে এবার সরাসরি নবান্নে দ্বারস্থ কৃষকেরা

মিঠুন গড়াইয়ের পথে আসানসোলের চার কৃষক। জমি মাফিয়াদের বিরুদ্ধে এবার সরাসরি নবান্নের দ্বারস্থ তাঁরা। দুই তৃণমূল নেতার বিরুদ্ধে মুখ্যমন্ত্রীর অভিযোগ সেলে তোলাবাজির লিখিত অভিযোগ করলেন ৪জনই। সেকেন্ড

অশান্ত ভূসর্গের দিগন্ত জুড়ে চলছে সুগন্ধী আর ঔষধি গাছ চাষের তোড়জোড়

অশান্ত ভূসর্গের দিগন্ত জুড়ে চলছে সুগন্ধী আর ঔষধি গাছ চাষের তোড়জোড়

অশান্তি যে আঘাত করে তাই তো বীণা বাজে। বীণায় সুর না উঠলেও অশান্ত ভূসর্গের দিগন্ত জুড়ে চলছে সুগন্ধী আর ঔষধি গাছ চাষের তোড়জোড়। বিজ্ঞানীদের প্রশিক্ষনে আচ্ছে দিনের আশায় বুক বাঁধছেন জম্মু কাশ্মীরের

সরকারি চাকরি ছেড়ে কোটিপতি হলেন এই যুবক

সরকারি চাকরি ছেড়ে কোটিপতি হলেন এই যুবক

এই বাজারে একটা সরকারি চাকরি করতেন তিনি। কিন্তু ছেড়ে দিলেন। চাকরি ছেড়ে চাষবাস করা শুরু করলেন। আর রাতারাতি কোটিপতি হয়ে গেলেন। হ্যাঁ, সংক্ষেপে বলতে গেলে এটাই হরিষ দান্দেভের রূপকথার গল্প।

কৃষির স্বার্থে সংশোধন হয়েছে অনেক আইনের

কৃষির স্বার্থে সংশোধন হয়েছে অনেক আইনের

কৃষি ক্ষেত্রের উন্নতির স্বার্থে  গত চার বছরে সংশোধন করা হয়েছে অনেক কৃষি আইন। ২০১৪ সালে সংশোধন করা হয় 'এগ্রিকালচার প্রডিউস মার্কেটিং রেগুলেশন অ্যাক্ট, ১৯৭২'। নতুন আইন অনুযায়ী তৈরি করা হয় জেলা চালিত

১কোটি টাকা ইলেকট্রিক বিল কৃষকের বাড়িতে!

১কোটি টাকা ইলেকট্রিক বিল কৃষকের বাড়িতে!

এক-দু হাজার টাকা নয়। বিদ্যুতের বিল এসেছে একেবারে ১কোটি টাকা। তাও আবার সামান্য এক কৃষকের বাড়িতে। আর এতেই প্রমাদ গুনছেন উত্তর দিনাজপুরের ইসলামপুরের ডাঙাপাড়ার বাসিন্দা আফতাব আলম। ভুতুড়ে বিল নিয়ে এখন

খামখেয়ালি আবহাওয়ায় মাথায় হাত চাষীদের

খামখেয়ালি আবহাওয়ায় মাথায় হাত চাষীদের

খামখেয়ালি আবহাওয়া। ফেব্রুয়ারিতেই রেকর্ড গরম। আর তারপর তুমুল ঝড়বৃষ্টি। স্বস্তি মিলেছে ঠিকই। কিন্তু চাষীদের মাথায় হাত। অকাল বর্ষায় হুগলিতে নষ্ট হওয়ার পথে বিঘার পর বিঘা জমির ফসল।