অবৈধ হোর্ডিং সরাতে গিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের বাধার মুখে পুরসভা!

অবৈধ হোর্ডিং সরাতে গিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের বাধার মুখে পুরসভা!

অবৈধ হোর্ডিং সরাতে বাধা হাওড়ায়। তৃণমূল কাউন্সিলরেরই বাধার মুখে পড়তে হল পুরসভার কর্মীদের। অভিযোগ, স্থানীয় কাউন্সিলর লক্ষ্মী সাহানি লোকজন জুটিয়ে ঝামেলা শুরু করেন। হস্তক্ষেপ করতে বাধ্য হন কমিশনার এবং মেয়র। কলকাতার পথেই, বেআইনি হোর্ডিং মুক্ত হওয়ার পথে হাঁটতে হবে হাওড়াকে। নবান্ন থেকে এসেছে এমনই নির্দেশ। কিন্তু হবে কীভাবে? যদি বাধা হয়ে দাঁড়ান শাসক দলেরই কাউন্সিলর!

ফের গুলি চলল হাওড়ায় ফের গুলি চলল হাওড়ায়

ফের গুলি চলল হাওড়ায়। এবার গোলাবাড়ি থানার ঘাসের বাগান এলাকায় ঘটল। গুলিবিদ্ধ হয় দুই কুখ্যাত দুষ্কৃতী। এর মধ্যে সুরজ সিং-এর কাঁধে ও কোমরে গুলি লাগে। গুলিবিদ্ধ হয় ছাতু রায় নামে আরেক দুষ্কৃতীও। পুলিস সূত্রে খবর, বাইকে চেপে যাওয়ার সময় আচমকাই বাইকের পিছনে বসা ছাতুর পকেটে থাকা নাইন এমএম পিস্তল থেকে গুলি বেরিয়ে যায়। তাতেই গুলি দুজনের গুলি লাগে। প্রথমে মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলেও পরে অন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয় সুরজ সিংকে। তবে দুষ্কৃতী হামলার বিষয়টিও উড়িয়ে দিচ্ছে না পুলিস।

ফের চলল গুলি! কিন্তু এবার কাকে? ফের চলল গুলি! কিন্তু এবার কাকে?

রাজ্যে ফের দুষ্কৃতী হামলা। ফের চলল গুলি। এবার হাওড়ার গোলাবাড়ি থানার ঘাসেরবাগান এলাকায়। গুলিবিদ্ধ হল দুই কুখ্যাত দুষ্কৃতী। এর মধ্যে সুরজ সিং-এর কাঁধে ও কোমরে গুলি লাগে। গুলিবিদ্ধ হয় ছাতু রায় নামে আরেক দুষ্কৃতীও। তাদের চিকিত্সার জন্য হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

রেলের ইতিহাসে এইটাই প্রথম যা আজ হাওড়া স্টেশনে হল রেলের ইতিহাসে এইটাই প্রথম যা আজ হাওড়া স্টেশনে হল

  লিভারের হাতল টেনে কারও কেটে গেছে ২৬ বছর কারও বা আরও বেশি। নাওয়া-খাওয়া ভুলে একটানা আটঘন্টা টেনে নিয়ে যেতে হয় ট্রেন। কারণ ট্রেনের চালক ওরা। সময়ে ট্রেনে ছাড়া আর গন্তব্যে পৌছানো এর মধ্যেই আটকে ছিল ওদের জীবন। আর তাদেরকেই এই প্রথম সম্মান জানালো ভারতীয় রেল। তাও আবার হাওড়া ডিভিশন।

নবান্নের সামনে চলল গুলি, কিন্তু পুলিশ বলছে গুলির খোল পাওয়া যায়নি! নবান্নের সামনে চলল গুলি, কিন্তু পুলিশ বলছে গুলির খোল পাওয়া যায়নি!

  হাওড়ার শিবপুরে সিন্ডিকেট রাজের অভিযোগ। রাজ্য প্রশাসনের সদর দফতর নবান্নের অদূরে শনিবার রাতে গুলি চলল। অভিযোগ বাড়ি ভাঙা ও প্রোমোটিংয়ের সঙ্গে যুক্ত দুই ব্যবসায়ীর মধ্যে বিবাদের জেরে এই ঘটনা। তবে সিন্ডিকেট নিয়ে মুখ খুলতে চায়নি পুলিস। পুলিসের দাবি,  ঘটনাস্থল থেকে উদ্ধার হয়নি কোনও গুলির খোল।

হাওড়ার নিরাপত্তারক্ষী খুনের রহস্যভেদ করল পুলিস! হাওড়ার নিরাপত্তারক্ষী খুনের রহস্যভেদ করল পুলিস!

  আটচল্লিশ ঘণ্টার মধ্যে হাওড়ায় নিরাপত্তারক্ষী খুনের রহস্যভেদ করল পুলিস। গ্রেফতার করা হয়েছে ৪ দুষ্কৃতীকে। ধৃতদের জেরা করে পুলিস জানতে পেরেছে, প্রোমোটারি বিবাদের জেরেই এই খুন। দুষ্কৃতীদের তোলা না দেওয়াতেই খুনের ছক কষে তারা।

প্রোমোটারের সঙ্গে বিবাদের জেরে খুন হাওড়ার বহুতলের নিরাপত্তা রক্ষী প্রোমোটারের সঙ্গে বিবাদের জেরে খুন হাওড়ার বহুতলের নিরাপত্তা রক্ষী

জমি নিয়ে প্রোমোটারের সঙ্গে বিবাদের জেরেই খুন হাওড়ার বহুতলের নিরাপত্তা রক্ষী। প্রাথমিক তদন্তের পর নিশ্চিত পুলিস। গতকাল রাত বিজয় মল্লিক নামে ওই নিরাপত্তারক্ষীকে লক্ষ্য করে গুলি চালায় কয়েকজন দুষ্কৃতী। সিসিটিভি ফুটেজে তাদের ছবি ধরা পড়া সত্ত্বেও, এখনও অধরা দুষ্কৃতীরা।

দেশে ফের পোলিও ভাইরাসের হদিশ পাওয়া গেল দেশে ফের পোলিও ভাইরাসের হদিশ পাওয়া গেল

পোলিও মুক্ত ভারত ঘোষণার ৫ বছর পর দেশে ফের পোলিও ভাইরাসের হদিশ পাওয়া গেল। তেলেঙ্গানার আমবেরপেতে একটি নিকাশি নালা থেকে সংগ্রহ করা জলে মিলেছে পোলিও ভাইরাস টাইপ টু-র জীবাণু। ব্যবস্থা নিতে দেরি করেনি তেলেঙ্গানা সরকার। টিকাকরণের জন্য তড়িঘড়ি জেনেভা থেকে উড়িয়ে আনা হয়েছে প্রায় ২ লক্ষ ভ্যাকসিন। সতর্কতা জারির পাশাপাশি সরকারের তরফে বিশেষ প্রচার কর্মসূচিরও ব্যবস্থা করা হচ্ছে। ২০১১-এ শেষবার পোলিও আক্রান্তের হদিশ মিলেছিল এরাজ্যের হাওড়ায়।

বেপরোয়া বাইক চালানোর প্রতিবাদ করায় হামলা বেপরোয়া বাইক চালানোর প্রতিবাদ করায় হামলা

হাওড়ার জগাছায় বেপরোয়া বাইক চালানোর প্রতিবাদ করায় হামলা। রাতে ইছাপুর শুমি চণ্ডীপুরে কালীপুজো চলাকালীন বাইক নিয়ে প্রতিযোগিতা শুরু করে একদল স্থানীয় যুবক। খোলা রাস্তায় চলতে থাকে তাদের মধ্যে বাইকের রেষারেষি।

জানলার সামনে যুবককে প্রস্রাব করতে নিষেধ করায় বেধড়ক মারধর ২ বিএসএফ কর্মীকে জানলার সামনে যুবককে প্রস্রাব করতে নিষেধ করায় বেধড়ক মারধর ২ বিএসএফ কর্মীকে

জানালার সামনে কুকর্ম। প্রতিবাদ করায় দুই বিএসএফ কর্মীকে বেধড়ক মারধর। ঘটনাটি হাওড়ার জগাছার জিআইপি কলোনির কেন্দ্রীয় সরকারি আবাসনের।

হাওড়া জেলার ফল হাওড়া জেলার ফল

জেলা হাওড়া  - 

এই জেলায় কংগ্রেস একটি আসনে জিতেছে, সেটি হল - আমতা

উত্তরাখণ্ডে বেড়াতে গিয়ে গঙ্গায় তলিয় গেলেন হাওড়ার যুবক উত্তরাখণ্ডে বেড়াতে গিয়ে গঙ্গায় তলিয় গেলেন হাওড়ার যুবক

  ছোট বয়স থেকেই অ্যাডভেঞ্চার স্পোর্টেস নেসা ছিল তাঁর। আর এবার সেই অ্যাডভেঞ্চার স্পোর্টসের নেশাই নিয়ে নিল তাঁর প্রাণ। উত্তরাখণ্ডে রাফটিং করতে গিয়ে গঙ্গায় তলিয়ে গেলেন হাওড়ার যুবক। মৃতের নাম অয়ন বেরা। বাড়ি হাওড়ার ঘুষুরিতে। আজই বাড়িতে তাঁর নিখোঁজ হয়ে যাওয়ার খবর পৌঁছয়।

হাওড়ার বাগনানে ৩ ছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগ, গ্রেফতার ২ হাওড়ার বাগনানে ৩ ছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগ, গ্রেফতার ২

হাওড়ার বাগনানে তিন ছাত্রীর শ্লীলতাহানির অভিযোগ। উত্তেজিত জনতার রোষে বাগনান থানা। অভিযুক্ত যুবকেরা পলাতক। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে RAF। বাগনানের কামারদা গ্রামে টিউশন পড়ে বাড়ি ফেরার পথে তিন ছাত্রীর শ্লীলতাহানি করা হয় বলে অভিযোগ। ছাত্রীদের চিত্কারে ১ যুবককে ধরে ফেলে গ্রামবাসীরা। বাকি ৩ যুবক পালিয়ে যায়। পরে পাশের গ্রাম রানা থেকে ওই যুবকদের পরিচিত কিছু লোকজন এসে গ্রামবাসীদের মারধর করে আটক যুবককে ছাড়িয়ে নিয়ে যায় বলে অভিযোগ। উত্তপ্ত হয়ে ওঠে এলাকা।

গঙ্গার তলা দিয়ে মেট্রো যাত্রা আর মাত্র কয়েক মাসের অপেক্ষা গঙ্গার তলা দিয়ে মেট্রো যাত্রা আর মাত্র কয়েক মাসের অপেক্ষা

গঙ্গার তলা দিয়ে মেট্রো যাত্রা আর মাত্র কয়েক মাসের অপেক্ষা। পুজোর পরেই অ্যাডভেঞ্চারাস এই জার্নির সওয়ার হতে পারবেন সকলে। মাটির নিচে চলছে বিশাল কর্মযজ্ঞ। কিন্তু যদি ভূমিকম্প হয়, তখন কী হবে? নদী তলদেশের মেট্রো টানেল কতটা নিরাপদ ভূমিকম্প প্রতিরোধে? মেট্রো কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, প্রবল ভূমিকম্পেও একচুলও টলবে না অত্যাধুনিক মেট্রো টানেল।

দু-এক জায়গায় বিক্ষিপ্ত গোলমাল ছাড়া মোটের ওপর শান্তিপূর্ণই রইল পঞ্চম দফার ভোট দু-এক জায়গায় বিক্ষিপ্ত গোলমাল ছাড়া মোটের ওপর শান্তিপূর্ণই রইল পঞ্চম দফার ভোট

দু-এক জায়গায় বিক্ষিপ্ত গোলমাল ছাড়া মোটের ওপর শান্তিপূর্ণই রইল পঞ্চম দফার ভোট। উত্তর ২৪ পরগনা ও হাওড়ায় শান্তিতে ভোট করানো ছিল কমিশনের কাছে চ্যালেঞ্জ। দিনের শেষে ফার্স্ট ডিভিশনে পাশ নির্বাচন কমিশন। তবে, তারমধ্যেও আক্রান্ত হলেন উত্তর ২৪ পরগনার দুই সিপিএম প্রার্থী। পঞ্চম দফায় ৪৯ আসনে ভোট হল মোটের ওপর শান্তিতে। তবে, এড়ানো গেল না বিক্ষিপ্ত অশান্তি।

বোরখার আড়ালে ওরা কারা? বোরখার আড়ালে ওরা কারা?

মাথার ওপর গনগনে রোদ। ভর দুপুরে বুথে ঢুকলেন তিন মহিলা। পরনে বোরখা। হাতে ভোটার স্লিপ। এত পর্যন্ত ঠিকই ছিল। কিন্তু, তারপর?