জার্মান ভাষার বদলে সংস্কৃত ভাষাকে অগ্রাধিকার, ধর্মনিরপেক্ষতা অটুট থাকবে দাবি মোদীর জার্মান ভাষার বদলে সংস্কৃত ভাষাকে অগ্রাধিকার, ধর্মনিরপেক্ষতা অটুট থাকবে দাবি মোদীর

সংস্কৃত ভাষার জন্য ভারতের ধর্মনিরপেক্ষ পরিকাঠামো কোনওভাবেই ক্ষতিগ্রস্ত হবে না। বার্লিনে ভারতীয় দূতাবাসের উদ্যোগে প্রবাসীদের অনুষ্ঠানে একথা বললেন প্রধানমন্ত্রী  নরেন্দ্র মোদী। কিন্তু, হঠাত্‍ করে কেন একথা বললেন প্রধানমন্ত্রী? রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, এর পিছনে রয়েছে গত বছরের এক বিতর্কিত সিদ্ধান্ত। ২০১৪ তে দেশের ৫০০ টি স্কুলে জার্মান ভাষার জায়গায় সংস্কৃতকে তৃতীয় ভাষা করে মোদী সরকার। এতে অসন্তোষ প্রকাশ করেছিল জার্মানি। তখন এ নিয়ে জার্মান চ্যান্সেলর মর্কেলের সঙ্গে মোদীর কথাও হয়েছিল। সোমবার বার্লিনে মোদী বলেন, একসময় জার্মান রেডিওয় সংস্কৃত ভাষায় খবর পড়া হত। কিন্তু, ভারতে তা কখনই হয়নি। এজন্য জার্মানদের প্রশংসা প্রাপ্য। মোদীর দাবি, ভারতের ধর্ম নিরপেক্ষতা এত দুর্বল নয়, যে কোনও ভাষার জন্য তার ক্ষতিগ্রস্ত হবে।

ফেড কাপে ভারতের নেতৃত্বে সানিয়া ফেড কাপে ভারতের নেতৃত্বে সানিয়া

মহিলাদের ফেড কাপে ভারতকে নেতৃত্ব দেবেন সানিয়া মির্জা। ফেড কাপের এশিয়া-ওশিনিয়ার গ্রুপ টু-তে এবছর ভারত সহ ১১ টি দেশ অংশ নেবে। চ্যাম্পিয়ন দেশ ২০১৬ ফেড কাপ চ্যাম্পিয়নশিপের গ্রুপ ওয়ানে অংশ নিতে পারবে। ভারতের হয়ে সানিয়া মির্জা ছাড়া অংশ নিচ্ছেন  টেনিস তারকা অঙ্কিতা রায়না, নাতাশা পালহা এবং প্রার্থনা থোম্বারে। এবছর দুরন্ত ফর্মে রয়েছে সানিয়া। ফ্যামিলি সার্কেল কাপ চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন সানিয়া। মার্টিনা হিঙ্গিসের সঙ্গে জিতে নিয়েছেন ৩ টি খেতাব। ডাবলসে এখন বিশ্বের ১ নং খেলোয়াড় তিনিই। দেখার বিষয় সানিয়া ফেড কাপে কোনও সিঙ্গলস ম্যাচে অংশ নেন কি না।

রুফটপ সোলার পাওয়ার প্লান্ট পেল চিন্নাস্বামী রুফটপ সোলার পাওয়ার প্লান্ট পেল চিন্নাস্বামী

বিশ্ব ক্রিকেটের আঙ্গিনায় নজির গড়তে চলেছে বেঙ্গালুরুর চিন্নাস্বামী স্টেডিয়াম। বিশ্বের প্রথম ক্রিকেট স্টেডিয়াম হিসেবে চিন্নাস্বামীতে বসছে রুফটপ সোলার পাওয়ার প্লান্ট। আইপিএলের মাঝে বুধবার নতুন রুপে সেজে ওঠা এই স্টেডিয়ামের উদ্বোধন করবেন কর্নাটকের বিদ্যুৎমন্ত্রী। গত সপ্তাহেই সোলার পাওয়ার প্লান্ট বসানোর কাজটি শেষ হয়। এখন থেকে এই স্টেডিয়ামের ৪০% শতাংশ বিদ্যুত দেবে এই সোলার প্লান্ট। যার ফলে কমবে দুষণ। বিদ্যুতও সাশ্রয় করা সম্ভব হবে। বাঁচবে আর্থিক খরচও। ৫০ দিনের মধ্যেই এই সোলার প্লান্ট বসানোর কাজ শেষ করা হয়েছে। সব মিলিয়ে খরচ হয়েছে মোট ৩ কোটি ৮২ লক্ষ টাকা। বিশ্ব ক্রিকেটে নজির করে সোলার প্লান্ট বসাতে পেরে উচ্ছ্বসিত কর্নাটক স্টেট ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশনের কর্তারা।