রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে বামেদের অনাস্থা প্রস্তাব গ্রহণ করলেন স্পিকার রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে বামেদের অনাস্থা প্রস্তাব গ্রহণ করলেন স্পিকার

রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে বামেদের আনা অনাস্থা প্রস্তাব গ্রহণ করলেন বিধানসভার স্পিকার। কিন্তু খারিজ হল কংগ্রেস ও বিজেপির অনাস্থা। আর এরই জেরে বিধানসভায় তৃণমূলের সঙ্গে বামেদের গোপন সমঝোতার অভিযোগ তুলল  কংগ্রেস, বিজেপি।   আইনশৃঙ্খলার অবনতি এবং অপশাসনের অভিযোগ তুলে রাজ্য সরকারের বিরুদ্ধে সরব বিরোধী দলই সরব। কংগ্রেস, বামফ্রণ্ট এবং বিজেপি সব পক্ষই  সরকারের বিরুদ্ধে বিধানসভায় অনাস্থা প্রস্তাব আনে। কিন্তু শুধুমাত্র বামেদের প্রস্তাব গৃহীত হওয়ায় বেজায় চটেছে কংগ্রেস ও বিজেপি। তাদের অভিযোগ, মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের তৃণমূলের সঙ্গে সূর্যকান্তের বিরোধী দলের সমঝোতা হয়েছে।

মতভেদ দূরে সরিয়ে, সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে এক মঞ্চে বামদলগুলি মতভেদ দূরে সরিয়ে, সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে এক মঞ্চে বামদলগুলি

এ রাজ্যে কি ধর্মের ভিত্তিতে ভোটের মেরুকরণ হচ্ছে?  ইতিমধ্যেই এই আশঙ্কা দেখা দিয়েছে রাজ্য-রাজনীতিতে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় বামদলগুলি এক মঞ্চে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বহু ইস্যুতে মতবিরোধ থাকলেও, সাম্প্রদায়িকতার প্রশ্নে এক মঞ্চ গড়তে একমত তারা। নভেম্বর মাস থেকেই সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে লাগাতার প্রচার কর্মসূচি নিচ্ছে বামমঞ্চ। বসিরহাটের উপনির্বাচনে বিজেপির জয় এবং ওই কেন্দ্রের ভোটবিন্যাস বেশকয়েটি প্রশ্ন তুলে দিয়েছে। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের একাংশ বলছেন ধর্মের ভিত্তিতে ভোটের মেরুকরণ শুরু হয়েছে এ রাজ্যেও।   আর সেকারণেই ধর্মনিরপেক্ষতার স্লোগানকে সামনে রেখে রাজ্যের সমস্ত বামশক্তিকে এককাট্টা করার কাজ শুরু হয়েছে।