ছত্রিসগড়ে কংগ্রেস কনভয়ে মাওবাদী হামলা, নিহত ২৪

ছত্তিসগড়ের বস্তার জেলার দরভাঘাটে কংগ্রেস নেতাদের কনভয়ে বড়সড় হামলা চালালো মাওবাদীরা। ল্যান্ডমাইন, বন্দুক নিয়ে ৪০০ থেকে ৫০০ জনের একটি দল হামলা চালায়। নিহত হয়েছেন কংগ্রেস নেতা মহেন্দ্র কর্মা। মৃত্যু হয়েছে রাজ্যের আরও দুই কংগ্রেস নেতার। গুলিবিদ্ধ হয়েছেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বিদ্যাচরণ শুক্লা। উদ্ধার হয়েছে বস্তার জেলার কংগ্রেস সভাপতি নন্দ কুমার প্যাটেল ও তাঁর ছেলের মৃতদেহ। এখনও পর্যন্ত ২৪ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। আহত হয়েছেন কমপক্ষে ৩০ জন। 

মাও হামলা: গণতন্ত্রের উপর আক্রমণ বললেন রাহুল, নিন্দা সোনিয়া, মনমোহনের

ছত্তিসগড়ে কংগ্রেস নেতা-কর্মীদের ওপর মাওবাদী হামলার তীব্র নিন্দা করেছেন মনমোহন সিং ও সোনিয়া গান্ধী। এই ঘটনা গণতন্ত্রের ওপর আঘাত বলে মন্তব্য করেছেন তাঁরা। ছত্তিসগড় সরকার তাদের জন্য পর্যাপ্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা করেনি বলে অভিযোগ করেছে কংগ্রেস। ছত্তিসগড়ে মাওবাদী হামলায় কংগ্রেস নেতা-কর্মীদের মৃত্যুর খবর পাওয়ার পরই প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংয়ের সঙ্গে বৈঠকে বসেন ইউপিএ চেয়ারপার্সন সোনিয়া গান্ধী। ছিলেন রাহুল গান্ধী ও আহমেদ প্যাটেল। মুখ্যমন্ত্রী রমন সিংয়ের সঙ্গে ফোনে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী। রাজ্যকে সবরকম সাহায্যের আশ্বাস দেন তিনি। খোঁজ নেন প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বিদ্যাচরণ শুক্লার শারীরিক অবস্থার। কংগ্রেস সহসভাপতি রাহুল গান্ধী ইতিমধ্যে রায়পুরে নিহতদের সঙ্গে দেখা করে এসেছেন। নিহতদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়েছেন তিনি। জানিয়েছেন আক্রান্তদের পরিবারের পাশেই তাঁর দল রয়েছে।

ছত্রিশগড়ের মাওবাদী হামলায় নিহত ২৫ কংগ্রেস কর্মী

ভয়াবহ মাওবাদী হামলায় ছত্রিশগড়ে প্রাণ হারিয়েছেন ২৫জন। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক সূত্রে এই খবর জানা গেছে। এই হামলায় মারা গেছেন  ছত্রিশগড়ের কংগ্রেস নেতা মহেন্দ্র কর্মা। নিহত হয়েছেন প্রাক্তন বিধায়ক উদয় মুড়িয়ার। গুরুতর আহত হয়েছেন আর এক নেতা ও প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী ভিসি শুক্লা। ছত্রিশগড়ের জগদলপুর জেলায় আজ কংগ্রেসের `পরিবর্তন যাত্রা`-র উপর অতর্কিতে হামলা চালায় সশস্ত্র মাওবাদীরা। ছত্রিশগড়ের কংগ্রেস প্রধান নন্দ কুমার পাটেল ও তাঁর ছেলেকে মাওবাদীরা অপহরণ করেছে বলে খবর।