তামিলনাডুর কাছে ৬৯ রানে হেরে গেল সাইরাজ বহুতুলের বাংলা

তামিলনাডুর কাছে ৬৯ রানে হেরে গেল সাইরাজ বহুতুলের বাংলা

মুস্তাক আলি ট্রফির দ্বিতীয় ম্যাচেই মুখ থুবড়ে পড়ল বাংলা। তামিলনাডুর কাছে উনসত্তর রানে হেরে গেল সাইরাজ বহুতুলের দল। প্রথমে ব্যাট করে তামিলনাডু করে একশো একান্ন রান। জবাবে বিরাশি রানেই শেষ বাংলা। চোটের জন্য রবিবারের ম্যাচে খেলতে পারেননি মনোজ তিওয়ারি। শোনা যাচ্ছে, চোটের জন্য বাকি সৈয়দ মুস্তাক আলি ট্রফিতেই অনিশ্চিত বাংলার অধিনায়ক মনোজ তিওয়ারি। হ্যামস্ট্রিংয়ে চোটের জন্য মনোজের খেলা নিয়ে সংশয় রয়েছে। মনোজ খেলতে পারবেন না ধরেই দলের সঙ্গে যোগ দিচ্ছেন অভিমন্যু ঈশ্বরণ। অন্যদিকে জাতীয় দলে যোগ দেবেন পেসার মহম্মদ সামি। তার পরিবর্তে আসছেন তরুণ পেসার কুইলা। তাই বাংলা দলের শক্তি খানিকটা দুর্বল হয়ে গেল।

মনোজ তিওয়ারিকে মারতে দৌড়ে এলেন গৌতম গম্ভীর! মনোজ তিওয়ারিকে মারতে দৌড়ে এলেন গৌতম গম্ভীর!

মাঠের মধ্যে কথা কাটাকাটিতে জড়িয়ে বিতর্কে মনোজ তিওয়ারি ও গৌতম গম্ভীর। ফিরোজ শা কোটলায় দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামেন বাংলার অধিনায়ক মনোজ তিওয়ারি। সেই সময় উল্টোদিকে বোলার ছিলেন দিল্লির মনন শর্মা।

এক বছর পর জাতীয় দলে মনোজ তিওয়ারি এক বছর পর জাতীয় দলে মনোজ তিওয়ারি

গত বছর জুনে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে শেষবার জাতীয় দলের জার্সিতে খেলেছিলেন। তারপর দীর্ঘ এক বছরের অপেক্ষা। আজিঙ্কা রাহানে, আম্বাতি রায়াড়ুদের ফর্ম তাঁকে জাতীয় দলের সংসার থেকে দূরে ঠেলে দিয়েছে। বিশ্বকাপে প্রাথমিক ৩০ জনের দলে ছিলেন। কিন্তু ওই পর্যন্তই। কিন্তু শেষ অবধি শিঁকে ছিড়ল।

ইডেনে অভিশপ্ত দিনে মনোজের চোট, বাংলার লজ্জার হার ইডেনে অভিশপ্ত দিনে মনোজের চোট, বাংলার লজ্জার হার

ইনিংসে হার বাঁচালেও শেষ রক্ষা হল না। ইডেনে রঞ্জি ট্রফির ম্যাচে বাংলাকে নয় উইকেটে হারিয়ে ছয় পয়েন্ট নিয়ে চলে গেল গতবারের চ্যাম্পিয়ন কর্নাটক। প্রথম ইনিংসের মতো দ্বিতীয় ইনিংসেও ব্যর্থ বাংলার ব্যাটিং লাইন আপ। বুধবার ম্যাচের চতুর্থ দিনে ২২৭ রানেই শেষ হয়ে গেল বঙ্গ ব্রিগেডের দ্বিতীয় ইনিংস।

হেলমেটে বল লেগে আহত মনোজকে ভর্তি করা হল হাসপাতালে হেলমেটে বল লেগে আহত মনোজকে ভর্তি করা হল হাসপাতালে

ইডেন গার্ডেনে কর্ণাটকের বিরুদ্ধে রঞ্জি ট্রফির ম্যাচে চোট পেলেন মনোজ তেওয়ারি। কর্ণাটকের বিরুদ্ধে ম্যাচের চতুর্থ দিনে অভিমন্যু মিঠুনের বল হেলমেটে লাগে মনোজের। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে মনোজকে। মনোজের এই চোটের খবরে আতঙ্কের চাপা স্রোত রাজ্যজুড়ে।

ধোনির সংসারে ঢোকার লাইফলাইন পেলেন মনোজ তিওয়ারি ধোনির সংসারে ঢোকার লাইফলাইন পেলেন মনোজ তিওয়ারি

বিশ্বকাপের ঠিক আগে ভারতীয় দলে ঢোকার লাইফলাইন পেয়েছেন মনোজ তিওয়ারি। আর  এই সুযোগকে কাজে লাগাতে মরিয়া বাংলার এই ব্যাটসম্যান। ওয়েস্টইন্ডিজের বিরুদ্ধে দুটি একদিনের প্রস্তুতি ম্যাচে ভারতীয় এ দলকে নেতৃত্ব দেবেন মনোজ। একদিকে অধিনায়কত্ব ,অন্যদিকে ব্যাটসম্যান হিসেবে জাতীয় দলে ফেরার লড়াই। দুটো ভূমিকাতে সফল হওয়ার চ্যালেঞ্জ মনোজের কাছে। তবে নেতৃত্ব ছাপিয়ে ব্যাটসম্যান হিসেবে সফল হওয়াই প্রথম টার্গেট এই মিডল ওর্ডার ব্যাটসম্যানের। ওয়েস্টইন্ডিজের বিরুদ্ধে একদিনের সিরিজে টিম ধোনিতে কামব্যাক করতে এই দুটো ম্যাচকেই পাখির চোখ করেছেন মনোজ।

স্বপ্নভঙ্গ লক্ষ্মীদের, বিদায় বাংলা

বিজয় হাজারে ট্রফি থেকে বিদায় নিল গতবারের চ্যাম্পিয়ন বাংলা। সেমিফাইনালে দিল্লির কাছে ৬ উইকেটে পরাজিত হয় বাংলা দল। এদিন টসে জিতে দিল্লির অধিনায়ক রজত ভাটিয়া বাংলাকে প্রথম ব্যাট করতে পাঠান। কিন্তু দিল্লির বোলিং ব্রিগেডের সামনে তাসের ঘরের মত ভেঙে পড়ে বাংলার ব্যাটিং লাইন আপ। একমাত্র মনোজ তিওয়ারি ও লক্ষ্মীরতন শুক্লা ছাড়া কোনও ব্যাটসম্যানই দুঅঙ্কের ঘরে পৌঁছতে পারেননি।

সরাসরি জয়ের পথে বাংলা, মনোজ ১৯১

রঞ্জি ট্রফিতে সরাসরি জয়ের পথে বাংলা। সোমবার গুজরাতের বিরুদ্ধে ম্যাচের তৃতীয় দিনে যা ঘটল তাতে পাঁচ পয়েন্ট পাওয়াটা এখন সময়ের অপেক্ষা। অবশ্য বাংলা শিবির জুড়ে বোনাস পয়েন্টের স্বপ্ন। আর স্বপ্ন দেখবেই নাই বা কেন? আজ যা ঘটল সেটা তো বাংলা ক্রিকেটের অন্যতম সেরা দিন।

শতরান মনোজের, উপেক্ষার জবাব ইডেনে

গুজরাতের বিরুদ্ধে রঞ্জি ম্যাচে প্রথম ইনিংসে লিড পাওয়া কার্যত নিশ্চিত বাংলার। দ্বিতীয় দিনের শেষে পার্থিবদের থেকে মাত্র ৪০ রানে পিছিয়ে আছেন মনোজরা। হাতে রয়েছে এখনও ছয় উইকেট। রঞ্জি ট্রফির প্রথম দু ম্যাচে রান না পেলেও, গুজরাতের বিরুদ্ধে স্বমেজাজে অধিনায়ক মনোজ তেওয়ারি। দিনের শেষে ১০২ রানে অপরাজিত ভারতীয় টেস্ট দলে জায়গা পাওয়ার অন্যতম দাবিদার মনোজ। মনোজের সঙ্গে ক্রিজে রয়েছেন অনুষ্টুপ। ৭৫ রানে আউট হয়েছেন শুভময় দাস। রবিবার সকালে ২৬০ রানে অল আউট হয়ে যায় গুজরাত। ৩০ রানের মধ্যে গুজরাতের বাকি চারটি উইকেট তুলে নেন অশোক দিন্দারা। বাংলার হয়ে সৌরভ সরকার চারটি আর দিন্দা তিন উইকেট পেয়েছেন।

সিং ইজ কিংরা নেই, তবু পঞ্জাবকে গুরুত্ব মনোজদের

ইডেনের মত রঞ্জি ট্রফির দ্বিতীয় ম্যাচও সবুজ পিচেই খেলতে হবে বাংলাকে। শুক্রবার রঞ্জি ট্রফিতে তাদের দ্বিতীয় ম্যাচে খেলতে নামছে বাংলা। পঞ্জাবের বিরুদ্ধে এই ম্যাচের পিচ নিয়ে অবশ্য চিন্তিত নন বাংলার অধিনায়ক মনোজ তেওয়ারি। তাঁর মতে বাংলার পেস অ্যাটাক যথেষ্ট ভাল। ফলে এই ম্যাচ থেকে তারা পুরো পয়েন্ট পেতে মরিয়া। পঞ্জাবের হয়ে এই ম্যাচে খেলবেন না দুই `সিং ইজ কিং`।

মনোজদের তিন পয়েন্ট, তবু ইডেন জুড়ে হতাশা

রঞ্জি ট্রফির প্রথম ম্যাচটা ভালই হল বাংলার কাছে। প্রথম ইনিংসে এগিয়ে থাকার সুবাদে রঞ্জি ট্রফিতে গত দুবারের চ্যাম্পিয়ন রাজস্থানের বিরুদ্ধে তিন পয়েন্ট পেল বাংলা। চ্যাম্পিয়নদের বিরদ্ধে তিন পয়েন্ট পেয়ে প্রতিয়োগিতা শুরু করাটা সুখবরের ব্যাপার হলেও ইডেন জুড়ে শুধুই হতাশা। ইডেনে আজকের ম্যাচের থেকেও অনেক বেশি নজরে ছিল ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজের দল নির্বাচনের দিকে।

শিবকে নিয়ে মতবিরোধ চরমে রমন-মনোজের

রবিবার রঞ্জি ট্রফির জন্য বাংলা দল নির্বাচন হবে। তার আগেই শিবশঙ্কর পালকে নিয়ে বাংলা কোচ ও অধিনায়কের মধ্যে মতবিরোধ তৈরি হয়েছে। শিবশঙ্কর পাল রঞ্জি ট্রফির সম্ভাব্য বাংলা দলে ছিলেন না। চোট থাকায় তাঁকে রাখা হয়নি। তবে সামি আমেদ চোট পাওয়ায় শিবশঙ্কর পালকে দেখে নেওয়ার জন্য নেটে ডেকে নেন নির্বাচকরা। কোচ ডব্লু ভি রমন যদিও এখনই দলে নিতে চান না শিবশঙ্করকে।

শাহরুখের স্বপ্নপূরণ

লাস্ট বয় যখন দীর্ঘ প্রচেষ্টায় ফার্স্ট বয় হওয়ার দৌড়ে পৌঁছে যায়, তখন অভিভাবকদের ঠিক অবস্থা হয়, ঠিক তেমনি অবস্থা শাহরুখ খানের। পুনে ওয়ারিয়র্স ম্যাচ ছিল আইপিএল ফাইভে বাদশার প্রেজটিজ ইস্যু।

অস্ট্রেলিয়া সফরের আগে পরিণত বাংলার মনোজ তেওয়ারি

দ্বিতীয় অস্ট্রেলিয়া সফরের আগে অনেকটাই পরিণত বাংলার মনোজ তেওয়ারি। বৃহস্পতিবার থেকে নিজের কোচ মানবেন্দ্র ঘোষের তত্ত্বাবধানে শুরু করলেন অনুশীলন।

একদিনের সিরিজে মনোজ

অস্ট্রেলিয়া সফরের ত্রিদেশীয় সিরিজে ভারতীয় দলে সুযোগ পেয়েছেন মনোজ তেওয়ারি। গতবার অস্ট্রেলিয়ায় ব্যর্থ হলেও, এখন তিনি অসি চ্যালেঞ্জ সামলাতে তৈরী। রবিবার দল নির্বাচনে অস্ট্রেলিয়ার একদিনের সিরিজের জন্য ভারতীয় দলে জায়গা পেয়েছেন তিনি।

মনোজের ব্যাটিংয়ে পয়েন্ট বাংলার

মনোজ তেওয়ারির দুরন্ত ব্যাটিংয়ে ভড় করে দিল্লির বিরুদ্ধে রঞ্জি ম্যাচে ৩ পয়েন্ট নিশ্চিত করল বাংলা। ইডেনে বাংলা-দিল্লি ম্যাচ অমীমাংসিতভাবে শেষ হলেও প্রথম ইনিংসে লিড নেওয়ার জন্য ৩ পয়েন্ট পকেটে পুরল বাংলা