মুন্নাভাইয়ের মুক্তিতে খুশির হাওয়া বলিউডে

মুন্নাভাইয়ের মুক্তিতে খুশির হাওয়া বলিউডে

সাজার মেয়াদ শেষ হওয়ার চার মাস আগেই মুক্তি পেলেন সঞ্জয় দত্ত। সংশোধনাগারে থাকাকালীন ভালো আচরণের জন্য মুন্নাভাইকে আগাম মুক্তির সিদ্ধান্ত নেয় মহারাষ্ট্র সরকার। তবে মুক্তি পেলেও অস্বস্তি কাটল না। সময়ের আগেই সঞ্জয়ের মুক্তি নিয়ে মুম্বই হাইকোর্টে একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়েছে।

মুন্নাভাইয়ের সার্কিটের ভূমিকায় এবার আমির খান! মুন্নাভাইয়ের সার্কিটের ভূমিকায় এবার আমির খান!

মুন্নাভাই সিরিজের তৃতীয় সিনেমায় সার্কিট-এর ভূমিকায় এবার হয়তো অভিনয় করতে দেখা যেতে পারে আমির খানকে। বলিউডের মিস্টার পারফেক্ট আমির মুন্নাভাই সিরিজে অভিনয় করার ইচ্ছাপ্রকাশ করেছেন। পিকে সিনেমায় আমিরের কাজে মুগ্ধ প্রযোজক বিধু বিনোদ চোপড়া আমিরকে মুন্নাভাই সিনেমায় নিতে চেয়েছেন। শোনা যাচ্ছে আরশিদ ওয়ার্সির পরিবর্তে মুন্নাভাইয়ের সঙ্গি সার্কিটের ভূমিকায় এবার হয়তো অভিনয় করবেন আমির খান। এমনও শোনা যাচ্ছে দিওয়ালিতে পিকে সিনেমার টিজার রিলিজের দিনে নাকি আমিরকে তাঁর পছন্দের রোল সার্কিটের ভূমিকায় অভিনয়ের প্রস্তাব দেবেন পরিচালক সুভাষ কাপুর। যদিও এমন খবরকে এখনও কোনও পক্ষই স্বীকার করেনি।

পুণের ইয়েরওয়াড়া জেলে সরানো হল মুন্নাভাইকে

আর্থার রোড জেল থেকে পুণের ইয়েরওয়াড়া জেলে সরানো হল সঞ্জয় দত্তকে। বেআইনি অস্ত্র রাখার দায়ে আদালতে দোষী সাব্যস্থ হন মুন্না ভাই। এরপর ষোলোই মে আদালতে আত্মসমর্পণ করেন তিনি। সেই থেকে মুন্না তাঁর ঠিকানা ছিল মুম্বইয়ের আর্থার রোড জেল।

মুন্নাভাইয়ের পাশে বলিউড, উঠছে প্রশ্ন

শেষ পর্যন্ত জেলেই গেলেন সঞ্জয় দত্ত। বৃহস্পতিবার দুপুরে দক্ষিণ মুম্বইয়ের বিশেষ টাডা আদালতে আত্মসমর্পণ করেন তিনি। ছয় ঘণ্টা আদালতে জেরা করার পর রাতে নিয়ে যাওয়া হয় আর্থার রোড জেলে। গোটা দিনই তাঁর পাশে ছিলেন বলিউডের অভিনেতা-অভিনেত্রী থেকে পরিচালক-প্রযোজকরা। আর এখানেই প্রশ্ন উঠছে, অস্ত্র আইনে দোষী সাব্যস্ত এক অপরাধীর পাশে কেন দাঁড়াল গোটা বলিউড?