মহাকাশ থেকে রাতের বেলায় কেমন লাগে ভারতকে? ছবি প্রকাশ করল নাসা

মহাকাশ থেকে রাতের বেলায় কেমন লাগে ভারতকে? ছবি প্রকাশ করল নাসা

আমাদের দেশ। ভারতবর্ষ। আমাদের জন্মভূমি। আমাদের মাতৃভূমি। তাকে নিয়ে আমাদের কত গর্ব। শস্য শ্যামলা আমাদের দেশের রূপের মধ্যে কত বৈচিত্র। কোথায় ঘন সবুজ তো কোথাও ধু ধু বালির মরুভূমি। কোথাও বা সাদা পাহাড়ের

আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে 'গলদ' আছে, নাসা'কে নিজের ভুল ধরিয়ে দিল ১৭   বছরের কিশোর

আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে 'গলদ' আছে, নাসা'কে নিজের ভুল ধরিয়ে দিল ১৭ বছরের কিশোর

১৭ বছরের ব্রিটিশ ছাত্রের নজরে এল নাসার তথ্য বিভ্রাট! স্কুলের পদার্থবিদ্যার প্রজেক্ট করতে গিয়েই নাসা'র ভুল সনাক্ত করল ১৭ বছরের কিশোর মাইলস সলমন। ইন্টারন্যাশনাল স্পেস স্টেশনে যে রেডিয়েশন সেন্সর রয়েছে

মঙ্গল থেকে পৃথিবী এবং চাঁদকে কেমন দেখতে লাগে, দেখিয়ে দিল নাসা!

মঙ্গল থেকে পৃথিবী এবং চাঁদকে কেমন দেখতে লাগে, দেখিয়ে দিল নাসা!

সত্যি বিজ্ঞান ঠিক কতটা এগিয়েছে। আর তার সুফল আমরা প্রতিনিয়ত ভোগ করছি। অন্য সুবিধার কথা এক্ষেত্রে প্রাসঙ্গিক নয়। বরং, বিজ্ঞানের জন্য আমরা বাস্তবে এমন কিছু দৃশ্য দেখতে পাচ্ছি, যেটা আমরা কল্পনা করেও

এই MMS-ই নাকি এখন ওয়ার্ল্ড রেকর্ড করেছে!(দেখুন MMS)

এই MMS-ই নাকি এখন ওয়ার্ল্ড রেকর্ড করেছে!(দেখুন MMS)

এবার এই MMS-ই নাকি গিনেস ওয়ার্ল্ড রেকর্ড তৈরি করে ফেলেছে। ভূ-পৃষ্ঠ থেকে ৭০ হাজার কিলোমিটার উচ্চতায় GPS সিগন্যাল স্থাপন করে বিশ্ব রেকর্ড অর্জন করল NASA-র ম্যাগনেটোস্ফেরিক মাল্টিস্কেল মিশন বা MMS।

নাসার উপগ্রহে বিরল অগ্ন্যুত্পাতের ছবি

নাসার উপগ্রহে বিরল অগ্ন্যুত্পাতের ছবি

নাসার একাধিক উপগ্রহ রয়েছে যা পৃথিবীর চারপাশে সতর্ক নজর রেখে চলেছে। সেই উপগ্রহগুলোর মধ্যেই অন্যতম অ্যাকোয়া যা আসলে নাসার একটি বহুজাতীক বিজ্ঞানসম্মত উপগ্রহ।

১৩১ বছরের সবথেকে উষ্ণ মাস গেল ২০১৬-র আগস্ট!

১৩১ বছরের সবথেকে উষ্ণ মাস গেল ২০১৬-র আগস্ট!

আজ ১৩ সেপ্টেম্বর। আগস্ট মাস চলে গিয়েছে বেশ কিছুদিন তো হল। আবার আগস্ট আসবে সামনের বছর ২০১৭-তে। কিন্তু ২০১৬-র আগস্ট মাস আপনার মনে থেকে যাবে চিরকাল। কারণ, নাসার কথা অনুযায়ী গত ১৩৬ বছরের সবথেকে উষ্ঁতম

NASA-র ক্যামেরায় 'লাইভ' ধরা পড়ল পৃথিবীর আকাশে UFO! (ভিডিও)

NASA-র ক্যামেরায় 'লাইভ' ধরা পড়ল পৃথিবীর আকাশে UFO! (ভিডিও)

ধীরে ধীরে পৃথিবীর আকাশে ঢুকছে সে। একেবারে 'লাইভ' ভিডিও!

মহাশূণ্যের ইতিহাস সৃষ্টিকারী ছবি এবার বিজ্ঞানীদের হাতের মুঠোয়!

মহাশূণ্যের ইতিহাস সৃষ্টিকারী ছবি এবার বিজ্ঞানীদের হাতের মুঠোয়!

অজানাকে জানার ইচ্ছে মানুষের সবসময়ের। যা কিছু রহস্যময়, তার প্রতি অমোঘ আকর্ষণ এড়াতে পারে না কেউ। মহাকাশ এমনই এক ঠিকানা, যার প্রতি পরতে লুকিয়ে রহস্য। যদি বলি, তারার মৃত্যু দেখেছেন কখনও? দেখেছেন তার

বৃহস্পতির বাঁধনে ধরা দিল নাসার মহাকাশযান জুনো

বৃহস্পতির বাঁধনে ধরা দিল নাসার মহাকাশযান জুনো

পাঁচ বছরের যাত্রা শেষ। বৃহস্পতির বাঁধনে ধরা দিল নাসার মহাকাশযান জুনো। ইতিমধ্যেই দৈত্যগ্রহকে ঘিরে পাক খেতে শুরু করেছে সে। জুনোর কাছ থেকে পাওয়া তথ্য পৃথিবীতে প্রাণের রহস্য সন্ধানে কাজে আসবে বলে আশা

'মঙ্গল'-এ চাকরি আছে, করবেন নাকি?

'মঙ্গল'-এ চাকরি আছে, করবেন নাকি?

নিজের চাকরিতে বোর হয়ে গেছেন? ভাবছেন এই চাকরিটা ছাড়তে পারলেই ভালো হয়? তাহলে এবার আপনার জন্য রইল সুবর্ণ সুযোগ। তবে, এ চাকরি আপনার শহরে নেই। ভারতেও নেই। নেই গোটা বিশ্বের কোথাও!

মহাকাশে এবার বাসযোগ্য ঘর বানাচ্ছে নাসা!

মহাকাশে এবার বাসযোগ্য ঘর বানাচ্ছে নাসা!

শোনা যাচ্ছে পৃথিবীতে নাকি থাকার জায়গা কম পড়তে চলেছে। যে ভাবে ক্রমাগত জনসংখ্যা বৃদ্ধি হয়ে চলেছে তাতে এই পরিস্থিতি আগামী কয়েক বছরের মধ্যেই হতে চলেছে। আর তাই মহাকাশ গবষণাকেন্দ্র নাসা এবার মহাকাশের

আমেরিকার রাতের আকাশের অদ্ভূত ওই আলোটা কিসের! (ভিডিও)

আমেরিকার রাতের আকাশের অদ্ভূত ওই আলোটা কিসের! (ভিডিও)

প্রকৃতি মাঝেমাঝেই তার নানা রূপ দেখাচ্ছে। মনে আছে, কিছুদিন আগেই দেশের আকাশে দুটো সূর্য দেখা গিয়েছিল? এবার সেরকমই অদ্ভূত আলো দেখা গেল আমেরিকার আকাশে!

বিশ্ব ব্রহ্মান্ডে আছে আরও ৯টা 'পৃথিবী'!

বিশ্ব ব্রহ্মান্ডে আছে আরও ৯টা 'পৃথিবী'!

গোটা সৌরজগতে এমন একটি গ্রহের কথাই আমরা জানি যেখানে প্রাণ রয়েছে। পৃথিবী। বাকি ৯টা গ্রহে প্রাণ আছে কি নেই, সেখানে বাস করা সম্ভব কিনা এসব এখনও প্রমাণ সাপেক্ষ। মহাকাশচারীরা তা নিয়ে চালিয়ে যাচ্ছেন গবেষণা

পৃথিবীর যে অফিসে ইন্টারনেট স্পিড সবচেয়ে বেশি

পৃথিবীর যে অফিসে ইন্টারনেট স্পিড সবচেয়ে বেশি

আচ্ছা আপনার অফিস নিয়ে কী কী অভিযোগ আছে? জানি প্রথমে বলবেন মাইনে, তারপর বলবেন বস, সহকর্মীদের ব্যবহার। আর একটু মাথা চুলকে বলবেন অফিসের কম্পিউটারে ইন্টারনেট স্পিড। ইন্টারনেট স্পিডের ব্যাপারটায় হয়তো

৫ ডিগ্রি হেলে গেছে চাঁদের অক্ষরেখা

৫ ডিগ্রি হেলে গেছে চাঁদের অক্ষরেখা

চাঁদের মধ্যের 'ম্যান ইন দ্য মুন' নাকি চিরকাল একই রকম দেখতে ছিল না। এখন যে জায়গায় রয়েছে 'ম্যান ইন দ্য মুন'-এর নাক, তা নাকি আসল জায়গা থেকে একটু সরে গিয়েছে।

পিঙ্ক ফ্লয়েডের গান কি তবে চাঁদে তৈরি?

পিঙ্ক ফ্লয়েডের গান কি তবে চাঁদে তৈরি?

  দ্যা ডার্ক সাইড অব দ্যা মুন। ১৯৭৩তে রিলিজ হয়েছিল পিঙ্ক ফ্লয়েডের এই অ্যালবাম। লন্ডনে বসে গান বানালেও পিঙ্ক ফ্লয়েডের এই অ্যালবামের অনুপ্রেরণা কি কোনওভাবে চাঁদ? সত্যিই কি এই অ্যালবাম বানানোর আগে নিক