ফিলিপিন্সে ঘণ্টায় ১৭৫কিমি বেগে ঝাঁপিয়ে পড়ল 'কপ্পু'

ফিলিপিন্সে ঘণ্টায় ১৭৫কিমি বেগে ঝাঁপিয়ে পড়ল 'কপ্পু'

রবিবার ভোর রাতে উত্তর-পূর্ব ফিলিপিন্সে ঝাঁপিয়ে পড়ল শক্তিশালী টাইফুন 'কপ্পু'। দুর্যোগ সংস্থার এক কর্মকর্তা জানান, ঘরছাড়া হয়েছেন প্রায় ১০ লক্ষ মানুষ। এছাড়া সমুদ্রের উপকূলবর্তী অঞ্চলে আছড়ে পরে ১২ ফুট উচ্চতার ঢেউ। তবে হতাহতের কোনও খবর এখনও পর্যন্ত পাওয়া যায়নি।

 ফিলিপাইনসে ফেরি দুর্ঘটনায় মৃত অন্তত ৩৪ ফিলিপাইনসে ফেরি দুর্ঘটনায় মৃত অন্তত ৩৪

ফিলিপাইনসে ফেরি দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন অন্তত ৩৪ জন। বৃহস্পতিবার ১৭৩ জনকে নিয়ে মধ্য ফিলিপাইনসের উপকূল দিয়ে যাওয়ার সময় শক্তিশালী ঢেউয়ের সম্মুখীন হয়ে ডুবে যায় ফেরিটি।

আবার আছড়ে পড়ল হাগুপিট, তবে কিছুটা দুর্বল আবার আছড়ে পড়ল হাগুপিট, তবে কিছুটা দুর্বল

ফিলিপিন্সে ফের আছড়ে পড়ল ঘূর্ণিঝড়। শনিবার ভারতীয় সময় অনুযায়ী গভীর রাতে ঘূর্ণিঝড় হাগুপিট  আছড়ে পড়ে ফিলিপিন্সের উপকূল এলাকায়।  ঝড়ের গতি ছিল আনুমানিক ঘন্টায় দুশো দশ কিলোমিটার। ঝড়ের দাপটে বহু গা

ঘূর্ণিঝড় হাগুপিটের হুঙ্কার ফিলিপিন্সে, ফুঁসছে সমুদ্র ঘূর্ণিঝড় হাগুপিটের হুঙ্কার ফিলিপিন্সে, ফুঁসছে সমুদ্র

ফিলিপিন্সে আছড়ে পড়ল ঘূর্ণিঝড় হাগুপিট। শনিবার ভারতীয় সময় অনুযায়ী গভীর রাতে ভূখণ্ডে আছড়ে পড়ে। সেই সময় ঝড়ের গতি ছিল আনুমানিক ঘন্টায় ২১০ কিলোমিটার। ঝড়ের দাপটে বহু গাছপালা উপড়ে গিয়েছে। সমুদ্রে পাড়ের এলাকায় আছড়ে পড়েছে জলোচ্ছ্বাসও।

আছড়ে পড়ল টাইফুন হাগুপিট, মধ্য ফিলিপাইনস থেকে সরানো হল ১০ হাজার মানুষকে আছড়ে পড়ল টাইফুন হাগুপিট, মধ্য ফিলিপাইনস থেকে সরানো হল ১০ হাজার মানুষকে

ফিলিপাইনসের পশ্চিম উপকূলে আছড়ে পড়ল ঘূর্ণিঝড় হাগুপিট। মধ্য ফিলিপাইনসের উপকূলবর্তী ধস প্রবণ গ্রাম গুলি থেকে ইতিমধ্যে ১০ হাজারেরও বেশি মানুষকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। গত বছর এ দেশে ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড়ের কবলে প্রাণ হারিয়েছিলেন হাজারেরও বেশি সাধারণ মানুষ।

 ঝড় এসে তরুণীকে উড়িয়ে নিয়ে গেল প্রাক্তন প্রেমিকের ছাদে ঝড় এসে তরুণীকে উড়িয়ে নিয়ে গেল প্রাক্তন প্রেমিকের ছাদে

ফিলিপিন্সে ধেয়ে এল ভয়াবহ ঝড়। ঝড়ে একেবারে লন্ডভন্ড হয়ে গেল ফিলিপিন্সের উপকুলবর্তী এলাকাগুলি। ঝড়ের সঙ্গে চলল প্রচন্ড বৃষ্টি। ফলে বন্যা আর ধস। এখনও পর্যন্ত বন্যা ও ধসে ২ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে। নিখোঁজ সাতজন।

প্রেতাত্মার বয়ে আনা অসুখ সারাতে মাকে বলি দিয়ে মাংস খেল তিন ভাই

নিজের মাকে বলি দিয়ে মাংস খেল তিন ভাই। শুধু তাই নয়, বেছে বেছে মহিলার এক একটি অভ্যন্তরীণ অঙ্গ খেয়ে ফেলেছে ওই তিনজন। ঘটনা ফিলিপিনসের আম্পাটুয়ানের।

টাইফুনের দাগ মুছতে না মুছতেই মৃত্যুর সংখ্যা নিয়ে প্রেসিডেন্টের মন্তব্যে বিতর্কের ঝড়

টাইফুনে মৃতের সংখ্যা নিয়ে বিতর্ক আরও বাড়িয়ে দিলেন ফিলিপিন্সের প্রেসিডেন্ট। হাইয়ানের দাপটে কমপক্ষে ১০ হাজার জনের মৃত্যুর আশঙ্কা করা হচ্ছে। কিন্তু ফিলিপিন্সের প্রেসিডেন্ট বেনিগনো অ্যাকুইনোর অনুমান, আড়াই হাজারের বেশি মানুষের মৃত্যু হয়নি। রাষ্ট্রসংঘের মানবিক বিভাগের তরফে ঝড় বিধ্বস্ত ফিলিপিন্সের জন্য ২৫ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ত্রাণ সাহায্য বরাদ্দ করা হয়েছে।

ইতিহাসের সবচেয়ে বড় টাই‍ফুনে ফিলিপিন্সের তিনতলা বাড়ি উড়ে গেল গাছে, মৃতের সংখ্যা ১০০ ছাড়ল

২০১৩ সালের ৮ নভেম্বর। ফিলিপিন্স সাক্ষী থাকল বিশ্বের সবচেয়ে বড় ঝড়ের। ঘণ্টায় প্রায় ৩০০ কিলোমিটার বেগে মধ্য ফিলিপিন্সে আছড়ে পড়ল সুপার টাইফুন হাইয়ান। ক দিন আগে ওড়িশায় পাইলিন যে ঝড় আছড়ে পড়েছিল শক্তির নিরিখে ফিলিপিন্সের এই ঝড় তার প্রায় দেড় গুণ।

ফিলিপিনসের `ছোট` সুনামিতে মৃত ১

তীব্র ভূমিকম্পের জেরে ফিলিপিনসে `সমুদ্র দানব` সুনামির আগাম সতর্কবার্তা দেওয়া হয়েছিল। শেষপর্যন্ত সুনামি আছড়ে পড়ায় সেই ফিলিপিনসেই প্রাণ হারালেন একজন।

বন্দিকে ছাড়াতে কারাগারে এলোপাথাড়ি গুলি, নিহত ৩

এক বন্দিকে ছাড়াবার জন্য প্রায় ৫০ জন বন্দুকবাজ হামলা চালাল ফিলিপিন্সের একটি কারাগারে। দুষ্কৃতীদের এলোপাথাড়ি গুলিতে প্রাণ হারিয়েছেন ৩ ব্যক্তি। আহতের সংখ্যা ১৫।

ভূমিকম্পে বিধ্বস্ত ফিলিপিন্স, মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩৫

ভূমিকম্প বিধ্বস্ত মধ্য ফিলিপিন্সে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। শুক্রবার সে দেশের সরকার জানিয়েছে, ভূমিকম্পে মৃতের সংখ্যা এখনও পর্যন্ত ৩৫। বহু মানুষ নিখোঁজ। তাই সংখ্যাটা বাড়তে পারে বলেই আশঙ্কা।

ফিলিপিন্সের সামুদ্রিক ঝড়কে সুনামির সঙ্গে তুলনা রাষ্ট্রসঙ্ঘের

ফিলিপিন্সের বিধ্বংসী সামুদ্রিক ঝঞ্ঝাকে সুনামির সঙ্গে তুলনা করল  রাষ্ট্রসংঘ। সেই সঙ্গে তারা বন্যা কবলিত রাষ্ট্রের জন্য আন্তর্জাতিক মহলের কাছে প্রায় তিন কোটি ডলার ত্রাণেরও আবেদন জানিয়েছে।

জোড়া টাইফুনে বেহাল ফিলিপিন্স

নেসাত আর নালগে টাইফুনে বিপর্যস্ত ফিলিপিন্সের বিস্তীর্ণ অঞ্চল। নেসাতের প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্ত প্রায় পঁচিশ লক্ষ মানুষ। তারপর নালগের ছোবল কেড়ে নিয়েছে দশ লক্ষ মানুষের ঠিকানা। আপাতত তাঁদের নিরাপদ আশ্রয়ে সরিয়ে নেওয়া হলেও যাঁদের উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি, তাঁরা জলস্তর এড়াতে নিজেদের বাড়ির ছাদেই আশ্রয় নিয়েছেন।

টাইফুন নেসাতের তাণ্ডবে লন্ডভন্ড উত্তর ফিলিপিন্স

টাইফুন নেসাতের তাণ্ডবে লন্ডভন্ড উত্তর ফিলিপিন্স। ইতিমধ্যেই বাইশ মাসের এক শিশুসহ সাতজনের মৃত্যু হয়েছে। নিখোঁজ চারজন। মঙ্গলবার ভোরে উত্তর লুজোন দ্বীপে আছড়ে পড়ে নেসাত‍। এরপর থেকেই বেড়েছে বৃষ্টির মাত্রা। অপেক্ষাকৃত নিচু এলাকাগুলি বন্যার জলে ডুবে গেছে। এরই মধ্যে বাঁধ থেকে জল ছাড়ায় কোনও কোনও এলাকায় বন্যার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। শুরু হয়েছে উদ্ধারকাজ।