আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন পেলেন রূপা গাঙ্গুলি

আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন পেলেন রূপা গাঙ্গুলি

আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন পেলেন রূপা গাঙ্গুলি। পঞ্চম দফার ভোটের দিন এক মহিলার সঙ্গে ধাক্কাধাক্কির ঘটনায় রূপার বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য ধারায় মামলা দায়ের করে পুলিস। আজ হাওড়া আদালতে আত্মসমর্পণ করেন রূপা গাঙ্গুলি। এরপর আদালতে জামিনের আবেদন করেন তিনি। ব্যক্তিগত ৫০০ টাকার বন্ডে আদালত রূপার জামিন মঞ্জুর করেছে।

কেরলের মন্দিরের ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে আত্মসমর্পন ৫ মন্দির কর্মকর্তার কেরলের মন্দিরের ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ডে আত্মসমর্পন ৫ মন্দির কর্মকর্তার

কেরলের মন্দিরে মর্মান্তিক দুর্ঘটনার ঘটনা। আত্মসমর্পণ করলেন মন্দিরের ৫ কর্মকর্তা। তাঁদের মধ্যে রয়েছেন পুত্তিঙ্গল মন্দির কমিটির সভাপতি ও কোষাধ্যক্ষও।

জেলেই গেলেন নূপুর তলোয়ার

অবশেষে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মেনে আত্মসমর্পণ করলেন নূপুর তলোয়ার। আর বিশেষ সিবিআই আদালত পত্রপাঠ জামিনের অবেদন নাকচ করে জেল হেফাজতে পাঠাল তাঁকে। এদিনই ১৪ বছরের আরুষি তলোয়ার হত্যা মামলার প্রধান অভিযুক্ত তাঁর মা নূপুরকে গাজিয়াবাদের দাসনা জেলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

আত্মসমর্পণ করেই জামিন আরাবুলের

আত্মসমর্পণ করলেন ভাঙড় কলেজে অধ্যাপিকা নিগ্রহ কাণ্ডে অভিযুক্ত আরাবুল ইসলাম। যদিও কিছুক্ষণের মধ্যেই হাজার টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে আদালত তাঁকে জামিন দেয়। সোমবার দুপুরে বারুইপুর আদালতে আত্মসমর্পণ করেন আরাবুল।

আজ আত্মসমর্পণ করতে পারেন নূপুর তলোয়ার

আদালতে আত্মসমর্পণ করতে পারেন নূপুর তলোয়ার। সোমবার তিনি গাজিয়াবাদের বিশেষ সিবিআই আদালতে আত্মসমর্পণ করতে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে। আরুষি-হেমরাজ হত্যা মামলায় আগেই তাঁর বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেছিল গাজিয়াবাদ আদালত।

চেয়েও আত্মসমর্পণ করতে পারছেন না জঙ্গলমহলের মাওবাদীরা

মহাকরণে এসে মুখ্যমন্ত্রীর সামনে আত্মসমর্পণ করেছেন সুচিত্রা মাহাত, জাগরী বাস্কের মতো মাওবাদী নেত্রীরা। সরকারের তরফে ফলাও করে তার প্রচারও হয়েছে। অথচ জঙ্গলমহলের বেশ কয়েকজন মাওবাদী দীর্ঘ কয়েক মাস ধরে সমাজের মূল স্রোতে ফিরতে চাইলেও, ফিরতে পারছেন না। তাদের অভিযোগ, পুলিস এবং সিআরপিএফকে চিঠি দিয়ে আত্মসমর্পণের ইচ্ছাপ্রকাশ করেও কোনও সদুত্তর মেলেনি।

আত্মসমর্পণেও কাটল না ধোঁয়াশা

জাগরী বাস্কের পর সুচিত্রা মাহাত। শশধর মাহাত থেকে কিষেণজি। বিতর্কের পর ফের বিতর্ক। তার মাঝেই রাজ্য সরকারের এই সাফল্য। মাওবাদীদের বিরুদ্ধে এই লড়াইয়ের পিছনে কাজ করছে রাজনীতিও।

আত্মসমর্পণের পর নার্সিংহোমে সুচিত্রা

বহু জল্পনার অবসান ঘটিয়ে শুক্রবার মহাকরণে আত্মসমর্পণ করলেন রাজ্যে মাওবাদীদের অন্যতম শীর্ষনেত্রী সুচিত্রা মাহাত। গত বছরের ২৪ নভেম্বর কিষেনজির মৃত্যুর পর থেকে সুচিত্রা মাহাতর শারীরিক অবস্থা ও অবস্থান সম্পর্কে ধোঁয়াশা তৈরি হয়েছিল। পুলিস জানিয়েছিল বুড়িশোলের জঙ্গলে এনকাউন্টারে গুলি লাগলেও পালাতে পেরেছিলেন সুচিত্রা। তার পর থেকেই তাঁর খোঁজ চালাচ্ছিল পুলিস।