এখনই হাঁসফাস করা গরম থেকে মুক্তি নেই

এখনই হাঁসফাস করা গরম থেকে মুক্তি নেই

না, এখনই হাঁসফাস করা গরম থেকে মুক্তি নেই। এই মুহূর্তে কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গে কোনও বৃষ্টির পূর্বাভাস দিচ্ছেন না আবহাওয়াবিদরা। আরও দুদিন চলবে এই রকম অস্বস্তি। অস্বস্তিসূচক স্বাভাবিকের থেকে প্রায় ছয় ডিগ্রি বেশি।

আজ টি বোর্ডের সামনে দিনভর অবস্থান বিক্ষোভ দেখাবে বাম নেতৃত্ব আজ টি বোর্ডের সামনে দিনভর অবস্থান বিক্ষোভ দেখাবে বাম নেতৃত্ব

চা বাগানে লাগাতার শ্রমিক মৃত্যুকে এবার নির্বাচনী হাতিয়ার করতে চলেছে বামেরা। আজ টি বোর্ডের সামনে দিনভর অবস্থান বিক্ষোভ দেখাবে বাম নেতৃত্ব। বেলা বারোটা থেকে সন্ধে ছটা পর্যন্ত চলবে বিক্ষোভ। বিক্ষোভের যৌথ আয়োজনে কলকাতা জেলা বামফ্রন্ট, এগারোটি ট্রেড ইউনিয়ন, বারোই জুলাই কমিটি। টি প্ল্যানটেশন আইনের পরিবর্তন থেকে অধিগৃহীত চা বাগানের দুরবস্থা-সব নিয়েই সরব হবেন বিক্ষোভকারীরা। চা শ্রমিকদের আর্থিক সাহায্যেরও পরিকল্পনা রয়েছে বামেদের। পাশপাশি, উত্তরবঙ্গের এই ভয়ঙ্কর চেহারা দক্ষিণবঙ্গের মানুষদের কাছে তুলে ধরাও বামেদের উদ্দেশ্য। সেইজন্য সতেরোই জানুয়ারি সারা রাজ্য থেকে অর্থ জোগাড় করা হবে। 

কলকাতাকে এড়িয়ে চটজলদি উত্তরবঙ্গ থেকে দক্ষিণবঙ্গ পৌছতে তৈরি হচ্ছে বিকল্প রাস্তা কলকাতাকে এড়িয়ে চটজলদি উত্তরবঙ্গ থেকে দক্ষিণবঙ্গ পৌছতে তৈরি হচ্ছে বিকল্প রাস্তা

কলকাতাকে এড়িয়ে চটজলদি উত্তরবঙ্গ থেকে দক্ষিণবঙ্গ পৌছতে তৈরি হচ্ছে বিকল্প রাস্তা। তারই অংশ হিসাবে ইশ্বরগুপ্ত সেতুর বাঁদিকে তৈরি হবে আন্তর্জাতিক মানের সিক্স লেন ব্রিজ। ব্রিজ তৈরির জন্য ইতিমধ্যে ডাকা হয়েছে গ্লোবাল টেন্ডার।  

কলকাতা এড়িয়ে জলদি উত্তর থেকে দক্ষিণে যেতে তৈরি হচ্ছে সিক্স লেন ব্রিজ কলকাতা এড়িয়ে জলদি উত্তর থেকে দক্ষিণে যেতে তৈরি হচ্ছে সিক্স লেন ব্রিজ

কলকাতাকে এড়িয়ে চটজলদি উত্তরবঙ্গ থেকে দক্ষিণবঙ্গ পৌছতে তৈরি হচ্ছে বিকল্প রাস্তা। তারই অংশ হিসাবে ইশ্বরগুপ্ত সেতুর বাঁদিকে তৈরি হবে আন্তর্জাতিক মানের সিক্স লেন ব্রিজ।  ব্রিজ তৈরির জন্য ইতিমধ্যে ডাকা

ভয়াবহ বন্যার কবলে রাজ্য, নবান্নে রাত কাটিয়ে আজ মুখ্যমন্ত্রী যাচ্ছেন হাবরায়, মন্ত্রীরা জেলায় জেলায় ভয়াবহ বন্যার কবলে রাজ্য, নবান্নে রাত কাটিয়ে আজ মুখ্যমন্ত্রী যাচ্ছেন হাবরায়, মন্ত্রীরা জেলায় জেলায়

দক্ষিণবঙ্গে বন্যা পরিস্থিতি ঘোরালো। তাই  রাতে নবান্নেই থেকে গেলেন মুখ্যমন্ত্রী। নবান্নে বসেই ঘণ্টায় ঘণ্টায় নিলেন বন্যার আপডেট। আজ চার মন্ত্রীকে পাঠাচ্ছেন বন্যা কবলিত চার জেলায়। আর  

গরমে নাজেহাল দক্ষিণবঙ্গ, আরও অস্বস্তির দিন আসছে গরমে নাজেহাল দক্ষিণবঙ্গ, আরও অস্বস্তির দিন আসছে

ভোটের গরম হাওয়া ঠান্ডা হতে না হতেই দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে গ্রীষ্মের দাপট।  লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে অস্বস্তি সূচক। হাঁসফাঁস গরমে নাজেহাল শহরবাসী। তবে কোনও স্বস্তির বাণী শোনাতে পারেনি আবহওয়া দফতর।

'গরমেতে ছটফট, ক্যালকাটা ভেরি হট...'  'গরমেতে ছটফট, ক্যালকাটা ভেরি হট...'

আবহাওয়ার মেজাজ মর্জি বোঝা দায়। হঠাৎ করেই অসহ্য গরমে হাঁসফাস করছে  কলকাতা সহ গোটা দক্ষিণবঙ্গ। মঙ্গলবারের কালবৈশাখি খানিক স্বস্তি দিলেও তারপর থেকেই দক্ষিণবঙ্গজুড়ে তাপমাত্রা বাড়ার ইঙ্গিত দিয়েছিল আলিপুর আবহাওয়া দফতর। সেই পূর্বাভাস অনুযায়ী একদিকে যেমন হুহু করে রোদের তেজ বাড়ছে, তার সঙ্গেই পাল্লা দিয়ে বাড়ছে বাতাসে জলীয়বাষ্পের পরিমাণও।

বন্যপ্রাণ সংরক্ষণের জোর রাজ্যের, নিরাপত্তায় যুক্ত হল সেনাও বন্যপ্রাণ সংরক্ষণের জোর রাজ্যের, নিরাপত্তায় যুক্ত হল সেনাও

বন্যপ্রাণী সংরক্ষনে উদাসীনতা কাটিয়ে সক্রিয় হবার পক্রিয়া শুরু করল পশ্চিমবঙ্গ সরকার। প্রায় তিন বছর পর স্টেট ওয়াইল্ড লাইফ বোর্ডের সঙ্গে বৈঠক করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মঙ্গলবার নবান্নে ওই বৈঠকে আলোচনা হয়েছে একগুচ্ছ নতুন প্রকল্প নিয়ে ।  মূলত জঙ্গলে চোরাশিকার ও চোরাপাচার রুখতে  এবার প্রশাসন ও সেনাকে কাজে লাগানোর পরিকল্পনা নিয়েছে রাজ্য সরকার।

দক্ষিণ দাক্ষিণ্য না পেলেও উত্তরে জবাব দিচ্ছে শীত দক্ষিণ দাক্ষিণ্য না পেলেও উত্তরে জবাব দিচ্ছে শীত

দক্ষিণবঙ্গে তেমনভাবে শীত পড়েনি। কিন্তু উত্তরবঙ্গে জাঁকিয়ে পড়েছে শীত। বিশেষ করে দার্জিলিং জেলায়। পাহাড় থেকে সমতল, তাপমাত্রা এক ধাপে অনেকটাই নেমে গিয়েছে।

শহরে ফিরল বর্ষার মেজাজ, শুক্র, শনি ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা শহরে ফিরল বর্ষার মেজাজ, শুক্র, শনি ভারী বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা

ঘণ্টাখানেকের প্রবল বৃষ্টির জেরে কলকাতায় ফিরল বর্ষার মেজাজ। বৃষ্টির জেরে জল না জমলেও  শহরের বিভিন্ন অঞ্চলে কিছুটা ব্যাহত হয় যান চলাচল। আবহাওয়া দফতর সূত্রে খবর, দেশের পূর্বাঞ্চল জুড়ে সক্রিয় মৌসুমী বায়ু। এর জেরে আজ ও আগামিকাল গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের বেশ কিছু এলাকায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। ষোলো তারিখ ভারী বর্ষণের সম্ভাবনা উত্তরবঙ্গের দার্জিলিং, জলপাইগুড়ি, কোচবিহার ও দুই দিনাজপুরে।

উত্তরবঙ্গ ছাড়িয়ে এনসেফ্যালাইটিসের কোপ দক্ষিণবঙ্গে, মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে চলছে শুয়োর ধরার অভিযান উত্তরবঙ্গ ছাড়িয়ে এনসেফ্যালাইটিসের কোপ দক্ষিণবঙ্গে, মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে চলছে শুয়োর ধরার অভিযান

উত্তরবঙ্গ ছাড়িয়ে এবার দক্ষিণবঙ্গে এনসেফ্যালাইটিস প্রকোপ। বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজে পাঁচজনের দেহে মিলেছে এনসেফ্যালাইটিসের জীবানু। উত্তর চব্বিশ পরগনার বসিরহাট ও হাড়োয়ায় অজানা জ্বরে আক্রান্ত

ছড়াচ্ছে এনসেফ্যালাইটিস, বদলায়নি ছবি ছড়াচ্ছে এনসেফ্যালাইটিস, বদলায়নি ছবি

উত্তরবঙ্গ ছাড়িয়ে এনসেফ্যালাইটিস হানা দিয়েছে দক্ষিণবঙ্গেও। দেরিতে হলেও নড়েচড়ে বসছে রাজ্য সরকার।  কিন্তু এখনও প্রত্যন্ত গ্রামের মানুষের অসহায় অবস্থার চিত্রটা বদলায়নি। সরকার সাহায্যের  আশ্বাস দিচ্ছে কিন্তু  পরিষেবা মিলছে না। ডুয়ার্সের চাবাগান বস্তি, বনবস্তির মানুষের দিনলিপিতে  এখন শুধুই আতঙ্ক। লাটাগুড়ি ঘুরে চব্বিশ ঘণ্টার এক্সক্লুসিভ রিপোর্ট।

এনসেফ্যালাইটিসে উত্তরবঙ্গে মৃতের সংখ্যা ১২৪ এনসেফ্যালাইটিসে উত্তরবঙ্গে মৃতের সংখ্যা ১২৪

এনসেফ্যালাইটিসে লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে মৃতের সংখ্যা। উত্তরবঙ্গের সঙ্গে এবার এনসেফ্যালাইটিস ছড়াল দক্ষিণবঙ্গেও। মুর্শিদাবাদ জেলা হাসপাতালে মৃত্যু হয়েছে ১জনের। গোটা উত্তরবঙ্গে এখনও পর্যন্ত মৃতের সংখ্যা ১২৪। গত ২৪ ঘণ্টায় উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজে মৃত্যু হয়েছে আরও ২জনের। সেখানে মৃতের সংখ্যা ৮৫।

সকাল থেকে বৃষ্টি-তুফানে রাজ্যে বলি ৭

ঘুর্ণাবর্তের প্রবাভে বৃষ্টির পূর্বাভাস আগেই ছিল কিন্তু সকাল থেকেই দক্ষিণবঙ্গ জুড়ে শুরু হয়েছে দুর্যোগ। ঝোড়ো হাওয়ার পাশাপাশি চলছে বজ্র-বিদ্যুত সহ বৃষ্টি। বজ্রাঘাতে এপর্যন্ত ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে।

দক্ষিণবঙ্গের বিস্তীর্ণ এলাকা জুড়ে নেমে এল স্বস্তির বৃষ্টি

রবিবারের পর সোমবারেও দক্ষিণবঙ্গের বিস্তীর্ণ এলাকা ঝড়বৃষ্টির কবলে। ঝড়ের সময় বজ্রপাতে ও খুঁটি উপড়ে বর্ধমানে মৃত্যু হয়েছে দুজনের। হুগলি ও বর্ধমানের বিভিন্ন এলাকায় শিলাবৃষ্টিতে ক্ষতি হয়েছে ফসলের। ঝোড়ো হাওয়ার সঙ্গে বৃষ্টি নামে কলকাতা ও আশপাশের জেলাগুলিতেওবঙ্গোপসাগরে ঘূর্ণাবর্তের কারণে কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলায় কালবৈশাখীর আগাম সতর্কতা আগেই দিয়েছিল আবহাওযা দফতর। এদিন বিকেলের দিকে ঘন মেঘে ঢেকে যায় কলকাতার আকাশ। সন্ধের মুখে ঝোড়ো হাওয়ার সঙ্গে নামে হাল্কা বৃষ্টি। অল্প বৃষ্টিতেই নেমে যায় শহরের তাপমাত্রার পারদ।

ঝড়ের পূর্বাভাস কলকাতায়

বৃহস্পতিবার ঝড়বৃষ্টির পর সাময়িক স্বস্তি মিললেও শনিবার ফের বেড়েছে তাপমাত্রা। শনিবার কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। আবহওয়া দফতর সূত্রে খবর, গোটা রাজ্যজুড়েই ঝড়বৃষ্টির পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। শনিবার দুই মেদিনীপুর, হাওড়া, বীরভূম ও বাঁকুড়ায় ঝড়বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর।