প্রশিক্ষণ ছাড়া মিলবে না শিক্ষকের চাকরি, কেন্দ্রের সিদ্ধান্তে রাজ্যে অনিশ্চিত কয়েক লক্ষ পরীক্ষার্থীর ভবিষ্যত

প্রাইমারি ও সেকেন্ডারি পরীক্ষায় শিক্ষক নিয়োগে ছাড় পাবেন না প্রশিক্ষণহীনরা। কেন্দ্রীয় এই সিদ্ধান্তের জেরে অনিশ্চিত কয়েকলক্ষ পরীক্ষার্থীর ভবিষ্যত। যদিও এই পরিস্থিতির জন্য রাজ্যকেই কাঠগড়ায় তুলছেন বিরোধীরা। তাদের দাবি ভোটারদের মন পেতেই চাকরির পরীক্ষাকে হাতিয়ার করেছে শাসকদল। প্রাইমারি ও সেকেন্ডারিতে শিক্ষক নিয়োগে প্রশিক্ষনহীনদের ছাড় দেওয়া হবে না। শুক্রবার কলকাতায় এসে মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে এ কথা জানিয়ে দিয়েছেন কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়নমন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। মানব সম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রীর এই বার্তায় অনিশ্চিত হয়ে পড়ল কয়েকলক্ষ পরীক্ষার্থীর ভবিষ্যত। যদিও এই পরিস্থিতির জন্য রাজ্যকেই কাঠগড়ায় তুলছেন বিরোধীরা। তাদের দাবি, সরকার জেনে বুঝেই এই পরীক্ষাকে বিলম্বিত করেছে। একতিরিশে মার্চ, দুহাজার চোদ্দর পর প্রশিক্ষণহীনদের নিয়োগ করা যাবে না সরকার তা ভালোভাবেই জানত। তারপরেও কেন মার্চ মাসে পরীক্ষা নেওয়া হল?

লোকসভা নির্বাচনের মুখে ফের প্রশ্নের মুখে প্রাইমারিতে নিয়োগ পদ্ধতি

লোকসভা নির্বাচনের মুখে ফের একবার প্রাইমারিতে নিয়োগ নিয়ে নিজেদের স্বচ্ছতা প্রমাণ করতে উঠে পড়ে লাগল প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ। মোট জমা পড়া আবেদনের মধ্যে মাত্র দুটি খাতা দেখিয়ে পর্ষদ সভাপতির দাবি তাদের বিরুদ্ধে ওঠা সব অভিযোগ মিথ্যে।অন্যদিকে শুক্রবার থেকেই নতুন পরীক্ষার্থীদের জন্য ইউবিআই ব্যাঙ্কের মাধ্যেমে আবেদন জমা নেওয়া শুরু হল। টেট কেলেঙ্কারি নিয়ে নাস্তানাবুদ প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ ফের একবার নামল ইমেজ উদ্ধারে। লোকসভা ভোটের মুখে জনসাধারণের মধ্যে টেট নিয়ে অসন্তোষ মেটাতে পর্ষদ কর্তার দাবি সঠিকভাবেই খাতা দেখা হয়েছে। খাতা দেখতে চেয়ে ইতিমধ্যেই পর্ষদের কাছে প্রায় ২৬০০ আবেদন জমা পড়েছে। প্রথম পর্যায়ে ১৩০ টি খাতা দিয়ে দেওয়া হয়েছে আবেদনকারীদের। শুক্রবার সাংবাদিক সম্মেলনে পর্যদ সভাপতি এর মধ্যে দুটি খাতা দেখিয়ে দাবি করেন ১৩০টি খাতাই সঠিকভাবে মূল্যালয়ন হয়েছে। নিয়োগে কোনও অস্বচ্ছতা নেই।

Live Streaming of Lalbaugcha Raja