সাবধান না হলে দাভোলকরের দশা হবে! ফের হুমকি চিঠি পেলেন আন্না

সাবধান না হলে দাভোলকরের দশা হবে! ফের হুমকি চিঠি পেলেন আন্না

হুমকি চিঠি পেলেন আন্না হাজারে। এই চিঠির ভিত্তিতে পুলিসে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। হাজারে ঘনিষ্ঠ দত্তা আওয়ারি সংবাদ সংস্থা পিটিআইকে জানিয়েছে চিঠিটি ওসমানাবাদ থেকে পোস্ট করা হয়েছে। নাম রয়েছে লাটুর জেলার মহাদেও পাঞ্চালের।

জমি বিল নিয়ে জট কাটাতে বিরোধীদের সঙ্গে আন্না হাজারেকেও আলোচনায় ডাকলেন গড়করি জমি বিল নিয়ে জট কাটাতে বিরোধীদের সঙ্গে আন্না হাজারেকেও আলোচনায় ডাকলেন গড়করি

জমি বিল জটে কেন্দ্র। কীভাবে মসৃণ হবে বিলের পথ? মরিয়া বিজেপি এবার জট কাটাতে বিরোধীদের সঙ্গে আলোচনাতেও তৈরি। এমনকি আহ্বান জানানো হয়েছে আন্না হাজারেকেও।

আজ লোকসভায় পেশ হবে সংশোধিত জমি অধিগ্রহণ বিল, বিরোধীতায় এককাট্টা বিরোধীরা আজ লোকসভায় পেশ হবে সংশোধিত জমি অধিগ্রহণ বিল, বিরোধীতায় এককাট্টা বিরোধীরা

আজ লোকসভায় নয়া জমি অধিগ্রহণ সংশোধনী বিল। বিরোধীরা একজোটে ইতিমধ্যেই এই বিলের বিরোধীতা করতে প্রস্তুত। ফলে আজ আরও একবার সংসদ উত্তাল হওয়ার সম্ভাবনা প্রবল।

মোদী বিরোধীতাই ফের মিলিয়ে দিল একদা গুরু-শিষ্যকে, জমি অর্ডিন্যান্সের বিরোধীতায় আন্নার পাশে দাঁড়ালেন কেজরি মোদী বিরোধীতাই ফের মিলিয়ে দিল একদা গুরু-শিষ্যকে, জমি অর্ডিন্যান্সের বিরোধীতায় আন্নার পাশে দাঁড়ালেন কেজরি

২০১১ সালের পর আবার। একদা ভাবগুরু আন্না হাজারের সঙ্গে আবার এক সঙ্গে প্রতিবাদে সামিল হলেন দিল্লির মুখ্যমন্ত্রী অরবিন্দ কেজরিওয়াল। গত ৪ বছরে আরও কমেছে যমুনার জল। তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে বদলেছে দেশের রাজনৈতিক পরিস্থিতির মানচিত্র। আন্নার ফ্ল্যাগশিপ আন্দোলন 'ইন্ডিয়া আগেনস্ট কোরাপশন'-এর মঞ্চ থেকে তাঁর সমস্ত আপত্তি অগ্রাহ্য করে রাজনৈতিক দল গড়েছিলেন অরবিন্দ কেজরিওয়াল। তৈরি করেছেন আম আদমি পার্টি। প্রথমবারই নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনে সবাইকে চমকে ২৮ আসন দখল করেছিল আপ। পাকেচক্রে রাজধানীর মুখ্যমন্ত্রী পদে বসে ছিলেন কেজরিওয়াল। তবে সে দফার ৪৯ দিনের সরকার এখন অতীত। সে সময় রাজনীতির ময়দানে অপটু কেজরিওয়াল কিছুটা হঠকারি সিদ্ধান্তের জেরেই ছেড়ে ছিলেন মুখ্যমন্ত্রীত্ব। দু'বছরেরই সংসদীয় রাজনীতির সিড়িভাঙা অঙ্কে বেশ পটু হয়ে উঠেছেন প্রাক্তন এই আমলা। লোকসভা নির্বাচনের পর বিভিন্ন রাজ্যেও বিধানসভা নির্বাচনে যে মোদী ম্যাজিকের ঝলক দেখেছিল এ দেশ, এবারের দিল্লি বিধানসভা নির্বাচনে কেজরিওয়ালের আপ-এর দাপটে তা এক কথায় হারিয়ে ফেলেছে তার জাদু দণ্ড। মোদী ঝড় মিথ্যে প্রমাণ করে ৭০টির মধ্যে ৬৭টি আসনই গেছে আম আদমির ঝুলিতে। তিনটি আসনে কোনও রকমে মান রক্ষা করেছে বিজেপি। আজ, দিল্লির জন্তর মন্তরে সেই মোদী বিরোধীতার সুরই মিলিয়ে দিল একদা গুরু-শিষ্যকে। এক সঙ্গে কেন্দ্র সরকারের জমি অধিগ্রহণ অর্ডিন্যান্সের বিরোধীতায় সামিল হলেন আন্না-কেজরি।

জমি অধিগ্রহণ বিল নিয়ে কৃষকদের পরামর্শ জানতে কমিটি গঠন করল বিজেপি জমি অধিগ্রহণ বিল নিয়ে কৃষকদের পরামর্শ জানতে কমিটি গঠন করল বিজেপি

সব স্তর থেকে তীব্র ক্ষোভের সম্মুখীন হয়ে মঙ্গলবার শেষ পর্যন্ত বিতর্কিত অর্ডিন্যান্স হঠিয়ে লোকসভায় নয়া জমি অধি গ্রহণ বিল পেশ করতে বাধ্য হল মোদী সরকার। যদিও, বিল পেশ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই জোট বদ্ধ হয়ে এই নিয়ে বিতর্কের দাবি তুলেছেন বিরোধীরা।

 লোকসভায় পেশ জমি অধিগ্রহণ বিল, ওয়াক আউট করলেন বিরোধীরা লোকসভায় পেশ জমি অধিগ্রহণ বিল, ওয়াক আউট করলেন বিরোধীরা

> সংসদে নিম্নকক্ষে সরকার জমি অধিগ্রহণ বিল পেশ করার পরেই ওয়াক আউট করলেন বিরোধীরা।

আর্থিক সংস্কারে মরিয়া সরকার, রাষ্ট্রপতি থেকে প্রধানমন্ত্রী, বিরোধীদের সহযোগিতার প্রার্থনায় সবাই আর্থিক সংস্কারে মরিয়া সরকার, রাষ্ট্রপতি থেকে প্রধানমন্ত্রী, বিরোধীদের সহযোগিতার প্রার্থনায় সবাই

আর্থিক সংস্কারে মরিয়া কেন্দ্রীয় সরকার। সংসদের বাজেট অধিবেশনের প্রথম দিনেই স্পষ্ট হল সেই মরিয়া ভাব। রাষ্ট্রপতির ভাষণ থেকে প্রধানমন্ত্রীর বক্তব্য। সর্বত্রই সহযোগিতার জন্য আহ্বান জানাল হল বিরোধীদের উদ্দেশে।  রবিবারই সর্বদল বৈঠকে বিরোধীদের সহযোগিতা চেয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। সোনিয়া গান্ধীর কাছে তাঁর দূত হয়ে গিয়েছিলেন সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী। তাতে চিঁড়ে ভেজেনি। সোমবার অধিবেশন শুরুর আগেও সেই অনুরোধের সুর প্রধানমন্ত্রীর কথায়।

 জমি অধিগ্রহণ অর্ডিন্যান্স প্রত্যাহার না করলে ফের রাম লীলা ময়দানে বৃহত্তর আন্দোলনের হুমকি আন্না হাজারের জমি অধিগ্রহণ অর্ডিন্যান্স প্রত্যাহার না করলে ফের রাম লীলা ময়দানে বৃহত্তর আন্দোলনের হুমকি আন্না হাজারের

জমি অধিগ্রহণ বিলের অর্ডিন্যান্সের বিরোধীতা করে দিল্লির জন্তর মন্তরে ধর্না শুরু করে দিলেন বর্ষীয়ান সমাজকর্মী আন্না হাজারে। এই অর্ডিন্যান্সের তীব্র সমালোচনা করেছেন আন্না। তাঁর ভাষায় এই অর্ডিন্যান্স এক কথায় 'কৃষক বিরোধী।' তিনি সরকারের কাছে এই অর্ডিন্যান্স প্রত্যাহারের দাবি জানিয়েছেন। এর সঙ্গেই জানিয়েছেন এই অর্ডিন্যান্স সম্পূর্ণ প্রত্যাহার না করলে রাম লীলা ময়দানে বৃহত্তর প্রতিবাদ আন্দোলন গড়ে তুলবেন তিনি।

দিল্লির রায় মোদীর হার, কেজরিকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বললেন আন্না দিল্লির রায় মোদীর হার, কেজরিকে শুভেচ্ছা জানিয়ে বললেন আন্না

দিল্লি বিধানসভা ভোটে বিজেপির হারকে নরেন্দ্র মোদীর বলে উল্লেখ্য করলেন আন্না হাজারে। তবে মুখ্যমন্ত্রী পদপ্রার্থী কিরণ বেদিকে আড়ল করলেন আন্না। সেইসঙ্গে ঐতিহাসিক জয়ের পর শিষ্য অরবিন্দ কেজরিওয়ালকে অভিনন্দনও জানালেন আন্না। সেইসঙ্গে মহারাষ্ট্রে নিজের গ্রামে বসে আন্না সতর্ক করে দিয়ে কেজরিওয়ালকে বললেন, মুখ্যমন্ত্রী হয়ে আন্দোলন, সংগ্রামকে ভুলে যেও না। সঙ্গে যোগ করেছেন দুর্নীতি বিরোধী আন্দোলনে যোগ দিয়েই কেজরিওয়াল মানুষের আস্থা অর্জন করেছেন।

মমতাকে সমর্থন করি, তাঁর দলকে নয়: আন্না হাজারে

মমতাকে কথা দিয়েও কথা রাখেননি আন্না হাজারে। দিল্লির রামলীলা ময়দানে আন্না-মমতার বহু চর্চিত সভাতে শেষ পর্যন্ত হাজিরা দেননি হাজারে। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী অবশ্য সরাসরি এই নিয়ে মুখে কিছু না বললেও একলা চলার নীতির কথা ঘোষণা করে নিজের ক্ষোভ জানান দিয়েছেন। রামলীলার ফ্লপ শোয়ের দু`দিন বাদে নিজের অনুপস্থিতির সাফাই দিলেন সমাজকর্মী আন্না হাজারে। শুক্রবার আন্না সাফ জানালেন মমতা বন্দোপাধ্যায়কে সমর্থন করলেও তাঁর দলকে তিনি মোটেও সমর্থন করেন না।

রামলীলায় মমতা-আন্নার সভা ছিল তৃণমূলের ডাকে, প্রমাণ পুরসভার রসিদের প্রতিলিপিতে-EXCLUSIVE

রামলীলা ময়দানে জনসভার আয়োজন কারা করেছিল, তা নিয়ে কাল দিনভর টানাপোড়েন চলেছে। কিন্তু আজ আমাদের হাতে এসে পৌছেছে দিল্লি পুরসভার একটি রসিদের প্রতিলিপি। তা থেকে স্পষ্ট, কাল রামলীলা ময়দানে জনসভার জন্য অনুমতি নিয়েছিল তৃণমূল কংগ্রেসই। তৃণমূল নেত্রীর দাবি একেবারেই ঠিক নয়।

রামলীলায় ফ্লপ শো-এর পরেও আন্নার গরহাজিরা নিয়ে ফেসবুকে নীরব মমতা, একলা চল নীতি নিয়ে ফের আক্রমণের নিশানা কংগ্রেস-বিজেপি

রামলীলায় আন্নার গরহাজিরা নিয়ে কার্যত নীরবই থাকলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নীরবতা বজায় থাকল ফেসবুকেও। বুধবার রাজধানীতে সভা করার পরও অভ্যাসমতো ফেসবুকে পাওয়া গেল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। কিন্তু সেখানে তৃণমূল নেত্রীর মন্তব্যে আন্না হাজারের কোনও উল্লেখ নেই।

আন্না কখনও বলেননি রাজনৈতিক সভায় যোগ দেবেন: বিমান

মমতা-আন্না সম্পর্কে চিড় ধরায় তৃণমূলনেত্রীকেই কটাক্ষ করলেন বিমান বসু। তিনি বলেন, "আন্না হাজারে রাজনৈতিক সভায় যোগ দেবেন, এমন কথা কখনও বলেননি।" অথচ তৃণমূলের তরফে দাবি করা হচ্ছে রামলীলা ময়দানের সমাবেশ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নয়, আন্না হাজারের।

ফ্লপ মমতার রামলীলা, এলেন না আন্না

দিল্লির রামলীলা ময়দানে জনতন্ত্র র‍্যালিতে এলেনই না আন্না হাজারে। যদিও তাঁর মুখপাত্র জানিয়েছেন, আন্না অসুস্থ থাকায় এ দিনের সভায় যেতে পারেননি। কিন্তু তাঁর অনুপস্থিতি নিয়ে রাজনৈতিক মহলের প্রশ্ন, শুধুই কি শরীর খারাপ থাকার জন্য এ দিন অনুপস্থিত রইলেন তিনি? শোনা যাচ্ছে, আন্নার অনুগামীরাই চাননি, কোনও রাজনৈতিক দলের সঙ্গে আন্নার নাম জড়িয়ে পড়ুক। তাতে তাঁর ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন তাঁরা। তা ছাড়া, এ দিনের সভায় নামমাত্র লোকের মাঝখানে গিয়ে উপস্থিত হলে আন্না-ম্যাজিক নিয়ে প্রশ্ন তোলার সুবিধা পেয়ে যেত বিরোধী শিবির। পর্যবেক্ষকদের ধারণা, আজ অনুপস্থিত থেকে সেই অস্বস্তি এড়ানোর চেষ্টা করলেন আন্না।

আন্নার কাছ থেকে খালি হাতে ফিরে হতাশ মুকুল

রামলীলায় একেবারে সেজেগুজে তৈরি। মঞ্চে বসে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তৃণমূলের প্রথম সারির নেতা থেকে বিশ্বজিত্‍ চ্যাটার্জি সবাই উপস্থিত। কিন্তু এ কী আন্না হাজারে কোথায়! যখন জানা গেল আন্না আসবেন না, তৃণমূল নেতাদের তখন মাথায় হাত। মুখ বাঁচাতে তখন স্বয়ং তৃণমূল সর্বভারতীয় সম্পাদক মুকুল রায় ছুটে গেল আন্না হাজারের কাছে। মহারাষ্ট্র ভবনে ছুটে গেলেন মুকুল। দিদির মুখ বাঁচাতে আন্নাকে অন্তত একবার রামলীলা ময়দানে যেতে আবেদন করলেন মুকুল। কিন্তু কোনও লাভ হল না। মুকুলকে খালি হাতে ফেরালেন আন্না।

সুর কাটল মমতার রামলীলার, সমাবেশে এলেন না আন্না হাজারে, মমতা বললেন, 'এটা আমার সভা নয়'

তৈরি রামলীলা ময়দান। দিল্লিতে আজ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের জনসভা। দেখুন LIVE UPDATE