স্বার্থের সংঘাত ইস্যুতে সৌরভ গাঙ্গুলির ভূমিকায় প্রশ্ন উঠল স্বার্থের সংঘাত ইস্যুতে সৌরভ গাঙ্গুলির ভূমিকায় প্রশ্ন উঠল

স্বার্থের সংঘাত ইস্যুতে সৌরভ গাঙ্গুলির ভূমিকায় প্রশ্ন উঠল। ভারতের প্রাক্তন ক্রিকেট অধিনায়ক সৌরভ গাঙ্গুলিকেও এখন রাখা হচ্ছে আতসকাঁচের নিচে। একইসঙ্গে তিনি বেশ কয়েকটি পদে রয়েছেন। এই নিয়ে প্রশ্ন বা জল্পনা শুরু হয়েছে বেশ কয়েকটি মহলে। আর তাতেই লেগেছে স্বার্থের সংঘাত। ভারতের একটি জনপ্রিয় দৈনিকের রিপোর্ট অনুযায়ী বিসিসিআই নিয়োগ করেছে প্রাক্তন বিচারক এপি শাহকে। কিছু বিশেষ জিনিস খতিয়ে দেখার জন্যই এমন দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে তাঁকে। সেই দেখতে গিয়েই ন্যায়পালের অফিস থেকে মেল করা হয়েছে যে, তাঁদের অফিসে নীরজ গুণ্ডে কিছু অভিযোগ এনেছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে। তিনি একই সঙ্গে যেমন ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন অফ বেঙ্গলের সভাপতি, তেমনভাবেই তিনি আইপিএল গভর্নিং কাউন্সিলের সদস্যও। বিসিসিআইয়ের কাছেও সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের চুক্তি সম্পর্কে তথ্য জানতে চাওয়া হয়েছে। যাতে তাঁরাও এই বিষয়ে খতিয়ে দেখতে পারেন।

বোর্ডের গ্রেডে রায়না-জাদেজার অবনমন, উঠলেন রাহানে বোর্ডের গ্রেডে রায়না-জাদেজার অবনমন, উঠলেন রাহানে

মহেন্দ্র সিং ধোনির দুই প্রিয় ক্রিকেটারকে গ্রেডেশন সিস্টেমে নামিয়ে দিল বিসিসিআই। বোর্ডের গ্রেডেশনে সুরেশ রায়নার অবনমন হল। সঙ্গে মোহালি টেস্টের নায়ক রবীন্দ্র জাদেজার গ্রেডে অবনতি হল। সেভাবে ফর্মে না থাকায় রায়নাকে কুলীন এ গ্রেড থেকে রায়না নামিয়ে দেওয়া হল বি গ্রেড। আর বি গ্রেড থেকে সি গ্রেডে নেমে গেলেন জাদেজা। রায়না-জাদেজার মতই গ্রেডে অবনতি হল ভুবনেশ্বর কুমারের। রনজিতে ভাল পারফরম্যান্স করলেও সেন্ট্রাল কনট্রাক্টে রাখা হল না যুবরাজ সিংকে। তবে 'সেন্ট্রাল কনট্রাক্ট' বা গ্রেডেশনের মধ্যে ফিরে এলেন হরভজন সিং। বোর্ডের সেন্ট্রাল কনট্রাক্ট বাঙলা থেকে আছেন মাত্র দু জন। বি গ্রেডে আছেন সামি, আর সি গ্রেডে ঋদ্ধিমান সাহা।