উন্নয়ন নিয়ে রাজনীতি বরদাস্ত করা হবে না, দার্জিলিঙে কড়া বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর উন্নয়ন নিয়ে রাজনীতি বরদাস্ত করা হবে না, দার্জিলিঙে কড়া বার্তা মুখ্যমন্ত্রীর

জিটিএর পাশাপাশি পাহাড়ে উন্নয়নের কাজ করবে রাজ্য সরকারও। আজ দার্জিলিঙে  ম্যালের সভায় মোর্চাকে কড়া বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। একইসঙ্গে তাঁর বার্তা, উন্নয়ন নিয়ে রাজনীতি বরদাস্ত করা হবে না। এদিন মুখ্যমন্ত্রীর সভায় হাজির ছিলেন না মোর্চার কোনও নেতা। পাহাড়ের  উন্নয়ন নিয়ে আগামিকালই এক বৈঠক ডেকেছেন মুখ্যমন্ত্রী। সেই সভায় ডাকা হয়েছে জিটিএকেও।লোকসভা ভোটে দলীয় প্রর্থীর পরাজয়ের পরেও পাহাড়ে মোর্চাকে জমি ছাড়তে নারাজ মুখ্যমন্ত্রী। এদিন ম্যালের সভায় সেই বার্তাই দিলেন তিনি।  তাঁর ঘোষণা, শুধু জিটিএ নয়, পাহাড়ে উন্নয়নের কাজ করবে রাজ্য সরকারও।  

গোর্খাল্যান্ডের দাবি ছেড়ে পাহাড়ের বাসিন্দাদের উন্নয়নের বার্তা দিলেন বিমল গুরুং

উন্নয়নই এখন তাঁর একমাত্র লক্ষ্য। পাহাড়ের বাসিন্দাদের কাছে টানতে বার্তা দিলেন গোর্খা জনমুক্তি মোর্চা প্রধান বিমল গুরুং। জিটিএ-র চিফ এক্সিকিউটিভ পদে ফের শপথ নিয়ে গতকালই দার্জিলিং ফিরেছেন তিনি। গুরুংকে স্বাগত জানাতে বাগডোকরা বিমানবন্দরে হাজির ছিলেন মোর্চার কর্মী-সমর্থকরা। কয়েক মাস আগেও পৃথক গোর্খাল্যান্ডের প্রশ্নে যে দূরত্বটা রাজ্য সরকারের সঙ্গে তৈরি হয়েছিল মোর্চার, সে দূরত্বটা এখন অতীত। জিটিএ-র পদে ফের শপথ নিয়েছেন বিমল গুরুং। দার্জিলিং ফেরার পর তাই মোর্চা সভাপতি এখন মন দিতে চান পাহাড়ের উন্নয়নে। বাগডোগরা বিমানবন্দরে নেমে গুরুংয়ের প্রতিশ্রুতি, পাহাড়ের উন্নয়নে জোর গতিতে কাজ করবে জিটিএ।