ভরাডুবি বাঁচালেন সচিন

একদিকে চিপকের টার্ন আর বাউন্সের সঙ্গে অশ্বিনের স্বপ্নের স্পেল। অন্যদিকে, ক্যাপ্টেন ক্লার্কের অসাধারণ শতরান। দুইয়ে মিলে জমজমাট বর্ডার-গাভস্কর ট্রফির প্রথম টেস্টের দ্বিতীয়দিনও। চিপকে লাঞ্চের ঠিক আগে অসিদের প্রথম ইনিংসে দাঁড়ি পড়ল ৩৮০ রানে। যথার্থ অধিনায়কচিত ইনিংস উপহার দিলেন অসি সাম্রাজ্যের বর্তমান অধিপতি মাইকেল ক্লার্ক। তাঁর ১৩০ রানের ইনিংসটি সাজানো রইল ১২টি বাউন্ডারি সঙ্গে একটি ওভারবাউন্ডারি দিয়ে। রবীন্দ্র জাদেজার বলে আউট হয়ে ক্লার্ক যখন প্যাভিলিয়নমুখী দলের স্কোরবোর্ড তখন মোটামুটি ভদ্রস্থ রানের সীমারেখা ছুঁয়ে ফেলেছে।

অশ্বিনের ছয় কা দম তবু ক্রিজে দাপট ক্লার্কের

হায়দরাবাদের জোড়া বিস্ফোরণের জেড়ে দ্বিতীয় টেস্ট নিয়ে অনিশ্চিয়তার মধ্যেই চেন্নাইয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সিরিজের প্রথম টেস্টটি খেলতে নামল ভারত। আজ সকালে টসে জিতে চিপকে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন অসি অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক। চিপকের স্পিনিং ট্র্যাকে অস্ট্রেলিয়দের বিপাকে ফেলতে খুব দ্রুত হরভজন-অশ্বিন জুটিকে আক্রমণে নিয়ে আসেন ক্যাপ্টেন ধোনি। যদিও অসিদের বিরুদ্ধে চিরকাল ভয়ঙ্কর ভাজ্জির পরিচিত ভঙ্গীর এখনও পর্যন্ত আভাস পায়নি চিপকের স্টেডিয়াম, কিন্তু অন্যদিকে অশ্বিনের বলে বেশ কিছুটা অস্বস্তিতে পড়েন ক্যাঙ্গারুর দেশের ওপেনাররা। তাঁর বলেই পরাজিত হয়ে দলীয় ৬৬ রানের মাথায় প্যাভেলিয়নে ফিরে যান ওপেনার কোয়ান (২৯)। ওয়ানডাউনে নামা হিউগসও ব্যক্তিগত ১৫ রানের মাথায় অশ্বিনের বলেই বোল্ড হন। স্কোরবোর্ডে তখন ক্লার্কদের সংগ্রহ ৭২। তবে এই ধাক্কাটা সামলিয়ে ক্রিজে এখন মোটামুটি শক্ত ঘাঁটি গড়বার লক্ষ্যে এগোচ্ছেন আর এক ওপেনার ওয়ার্নার। সেরে ফেলেছেন নিজের অর্ধশতরান। লাঞ্চ অবধি ৫৮ রানে অপরাজিত তিনি। তাঁর সঙ্গেই ক্রিজে আছেন শেন ওয়াটসন। এখনও পর্যন্ত তাঁর সংগ্রহ ২৮। লাঞ্চ অবধি ব্যাগি গ্রিনদের ঝুলিতে ২ উইকেটের বিনিময়ে ১২৬ রান।