আক্রমণাত্মক ব্যাগি গ্রিন কালচারটাই ছিল না ক্লার্কের: জন বুকানন আক্রমণাত্মক ব্যাগি গ্রিন কালচারটাই ছিল না ক্লার্কের: জন বুকানন

অবসর ঘোষণা করেও অব্যাহতি নেই মাইকেল ক্লার্কের। ব্যাগি গ্রিন ড্রেসিংরুমের কালচারকে পাত্তা না দিয়ে কাঠগড়ায় অস্ট্রেলিয়ার এই অধিনায়ক। প্রশ্ন উঠেছে মাঠের মধ্যে অসিদের অভব্যতামিকে প্রশয় দেননি বলেই কী ক্লার্কের এত সমালোচনা হচ্ছে? সরাসরি উত্তর না পাওয়া গেলেও নিন্দুকদের বক্তব্য সেটাকেই সায় দিচ্ছে। অন্তত ম্যাথু হেডেন,জাস্টিন ল্যাঙ্গাররা যেভাবে ক্লার্কের নেতৃত্বের সমালোচনা করেছেন তাতে পরিস্কার ব্যাগি গ্রিনের স্বভাবসিদ্ধ কালচারই ছিল না তার সময়ে। তাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন কোচ জন বুকানন। তিনি তো আবার সরাসরি বলে বসেছেন ক্লার্কের সময়ে না কি স্টিভ ওয়া, অ্যাডাম গিলক্রিস্ট,রিকি পন্টিংয়ের সময়কার আক্রমণাত্মক ব্যাগি গ্রিন কালচারটাই উধাও হয়ে গিয়েছিল । বুকানন বলেন তিনি কোচ থাকাকালিন দেখতেন হেডেন আর ল্যাঙ্গার ড্রেসিংরুমের কোনে বসে ক্লার্ককে বোঝাতে চাইতেন তারা কি করতে চাইছেন। কিন্তু তার প্রতিফলন মাঠে পাওয়া যেত না। বুকাননের অভিযোগ হয় ক্লার্ক বিষয়টি বুঝতেন না অথবা বুঝতে চাইতেন না।

আরও আগ্রাসী ক্রিকেট উপহার দেওয়ার 'বিরাট' প্রতিশ্রুতি স্মিথের আরও আগ্রাসী ক্রিকেট উপহার দেওয়ার 'বিরাট' প্রতিশ্রুতি স্মিথের

আগ্রাসন। আগ্রাসন এবং আগ্রাসন। দলের ব্যাটন তুলে নিয়েই আগ্রাসনের মন্ত্র জপতে শুরু করলেন ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়ার বর্তমান টেস্ট অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ। অ্যাসেস হারের আগে থেকেই বিশ্ব ক্রিকেটে জল্পনা চলছিলই, স্টিভ স্মিথই হবেন রিকি পন্টিং, মাইক্লে ক্লার্কদের উত্তরসূরি। এবং হলও তাই। ২৬ বছর বয়সী স্টিভ স্মিথের ওপরই আস্থা রাখল অস্ট্রেলিয়ার ক্রিকেট বোর্ড।

অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে  কিউইরা অস্ট্রেলিয়াকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে কিউইরা

অস্ট্রেলিয়ায় ১৫১/১০। নিউজল্যান্ড ১৫২/৯।

ক্লার্কের কামব্যাক ক্লার্কের কামব্যাক

বাংলাদেশের বিরুদ্ধে অস্ট্রেলিয়ার দলে ফিরছেন ক্যাপ্টেন মাইকেল ক্লার্ক।

আজ ক্লার্করা জিতলে শেষ চারে শিখর বনাম ওয়াটসন দ্বৈরথ

চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতে কোন তিনটে দল সেমিফাইনালে খেলবে সেটা ঠিক হয়ে গিয়েছে। বাকি আছে শুধু একটা স্থান। সেটা ঠিক হয়ে যাবে আজ কিংস্টন ওভালে অস্ট্রেলিয়া বনাম শ্রীলঙ্কা ম্যাচের পর। এই ম্যাচ যারাই জিতবে তারাই সেমিফাইনালে উঠে যাবে।

ধাওয়ানের নতুন শিখরে ভারত মোহালির রাজা

অভিষেক টেস্টেই শতরান করলেন শিখর ধাওয়ান। মাত্র ৮৫ বলে ঝোড়ো শতরান করেন তিনি। সেওয়াগ বাদ পড়ার পর দিল্লির ওপেনিং ব্যাটসম্যানের কাঁধে পড়েছিল এই দায়িত্ব। সঠিকভাবেই সেই দায়িত্ব পালন করলেন ধাওয়ান। তার সঙ্গেই কায়েম করলেন নতুন রেকর্ড। এর আগে অভিষেক টেস্টে এত কম বলে কেউই শতরানের চৌকাঠ ছুঁতে পারেননি।

ভরাডুবি বাঁচালেন সচিন

একদিকে চিপকের টার্ন আর বাউন্সের সঙ্গে অশ্বিনের স্বপ্নের স্পেল। অন্যদিকে, ক্যাপ্টেন ক্লার্কের অসাধারণ শতরান। দুইয়ে মিলে জমজমাট বর্ডার-গাভস্কর ট্রফির প্রথম টেস্টের দ্বিতীয়দিনও। চিপকে লাঞ্চের ঠিক আগে অসিদের প্রথম ইনিংসে দাঁড়ি পড়ল ৩৮০ রানে। যথার্থ অধিনায়কচিত ইনিংস উপহার দিলেন অসি সাম্রাজ্যের বর্তমান অধিপতি মাইকেল ক্লার্ক। তাঁর ১৩০ রানের ইনিংসটি সাজানো রইল ১২টি বাউন্ডারি সঙ্গে একটি ওভারবাউন্ডারি দিয়ে। রবীন্দ্র জাদেজার বলে আউট হয়ে ক্লার্ক যখন প্যাভিলিয়নমুখী দলের স্কোরবোর্ড তখন মোটামুটি ভদ্রস্থ রানের সীমারেখা ছুঁয়ে ফেলেছে।

অশ্বিনের ছয় কা দম তবু ক্রিজে দাপট ক্লার্কের

হায়দরাবাদের জোড়া বিস্ফোরণের জেড়ে দ্বিতীয় টেস্ট নিয়ে অনিশ্চিয়তার মধ্যেই চেন্নাইয়ে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে সিরিজের প্রথম টেস্টটি খেলতে নামল ভারত। আজ সকালে টসে জিতে চিপকে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন অসি অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক। চিপকের স্পিনিং ট্র্যাকে অস্ট্রেলিয়দের বিপাকে ফেলতে খুব দ্রুত হরভজন-অশ্বিন জুটিকে আক্রমণে নিয়ে আসেন ক্যাপ্টেন ধোনি। যদিও অসিদের বিরুদ্ধে চিরকাল ভয়ঙ্কর ভাজ্জির পরিচিত ভঙ্গীর এখনও পর্যন্ত আভাস পায়নি চিপকের স্টেডিয়াম, কিন্তু অন্যদিকে অশ্বিনের বলে বেশ কিছুটা অস্বস্তিতে পড়েন ক্যাঙ্গারুর দেশের ওপেনাররা। তাঁর বলেই পরাজিত হয়ে দলীয় ৬৬ রানের মাথায় প্যাভেলিয়নে ফিরে যান ওপেনার কোয়ান (২৯)। ওয়ানডাউনে নামা হিউগসও ব্যক্তিগত ১৫ রানের মাথায় অশ্বিনের বলেই বোল্ড হন। স্কোরবোর্ডে তখন ক্লার্কদের সংগ্রহ ৭২। তবে এই ধাক্কাটা সামলিয়ে ক্রিজে এখন মোটামুটি শক্ত ঘাঁটি গড়বার লক্ষ্যে এগোচ্ছেন আর এক ওপেনার ওয়ার্নার। সেরে ফেলেছেন নিজের অর্ধশতরান। লাঞ্চ অবধি ৫৮ রানে অপরাজিত তিনি। তাঁর সঙ্গেই ক্রিজে আছেন শেন ওয়াটসন। এখনও পর্যন্ত তাঁর সংগ্রহ ২৮। লাঞ্চ অবধি ব্যাগি গ্রিনদের ঝুলিতে ২ উইকেটের বিনিময়ে ১২৬ রান।

বছরে টেস্টে চারটে ডবল সেঞ্চুরি করে বিশ্বরেকর্ড ক্লার্কের

বছরে চার চারটে ডাবল সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে বিশ্বরেকর্ড গড়লেন মাইকেল ক্লার্ক। অ্যাডিলেড ওভালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে অপরাজিত ২২৪ রানের ইনিংস খেলে বিশ্ব ক্রিকেটে এক অনন্য রেকর্ড গড়ে ফেললেন অসি অধিনায়ক। ডন ব্র্যাডম্যানকে টপকে গিয়ে এই নজির গড়ে ক্লার্ক প্রমাণ করলেন বিশ্ব ক্রিকেটে আর অস্ট্রেলিয়ার রাজ নেই ঠিকই কিন্তু একজন অস্ট্রেলিয়ানের রাজ আছে। বিশ্বের এক নম্বর টেস্ট দলের বিরুদ্ধে পরপর দুটো টেস্টে ডাবল সেঞ্চুরি করে ফেললেন ক্লার্ক। সিরিজের প্রথম টেস্টে করেছিলেন অপরাজিত ২৫৯ রান।

ক্লার্ক-কোয়ানের ব্যাটিং তাণ্ডবে অসিরা ফ্রন্টফুটে

অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্কের দুর্দান্ত দ্বিশত রান আর কোয়েনের ক্লাসিক শতরানের ভর করে অস্ট্রেলিয়া প্রথম ইনিংসে ৩৭ রানের `লিড` নিল। এখনও হাতে ছয় উইকেট বাকি। ম্যাচের চতুর্থ দিনের শেষে স্কোরবোর্ড এখন অস্ট্রেলিয়াকে স্বস্তিতে শ্বাস নিতে দিচ্ছে। কোয়ানের আন্তর্জাতিক টেস্ট ক্রিকেট জীবনের এটা প্রথম শতরান। কিন্তু টেস্ট কেরিয়ারে তাঁর এই প্রথম শতরান খুব সহজে এল না। যখন ওয়ার্নার ৪, কিউনি ৯ ও প্রাক্তন অধিনায়ক পন্টিং ০ রানে প্যাভিলিয়নে ফিরে গেছেন, তখন অস্ট্রেলিয়া দাঁড়িয়ে মাত্র ৪০ রানে।

প্রথম দিনই জোড়া সেঞ্চুরি অস্ট্রেলিয়ার

অ্যাডিলেড টেস্টে প্রাথমিকভাবে ভারতীয় বোলারদের দাপট সামলে দাপট দেখাচ্ছেন রিকি পন্টিং ও অধিনায়ক ক্লার্ক। মঙ্গলবার টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন অসি অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক।

ভারতের হোয়াইট ওয়াশে ক্লার্ক

সিরিজ জয়ের পর এবার অস্ট্রেলিয়ার লক্ষ্য ভারতকে হোয়াইট ওয়াশ করা। পারথে দাঁড়িয়ে এমনই জানিয়ে দিলেন অসি অধিনায়ক মাইকেল ক্লার্ক।