মতভেদ দূরে সরিয়ে, সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে এক মঞ্চে বামদলগুলি মতভেদ দূরে সরিয়ে, সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে এক মঞ্চে বামদলগুলি

এ রাজ্যে কি ধর্মের ভিত্তিতে ভোটের মেরুকরণ হচ্ছে?  ইতিমধ্যেই এই আশঙ্কা দেখা দিয়েছে রাজ্য-রাজনীতিতে। পরিস্থিতি মোকাবিলায় বামদলগুলি এক মঞ্চে আসার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। বহু ইস্যুতে মতবিরোধ থাকলেও, সাম্প্রদায়িকতার প্রশ্নে এক মঞ্চ গড়তে একমত তারা। নভেম্বর মাস থেকেই সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে লাগাতার প্রচার কর্মসূচি নিচ্ছে বামমঞ্চ। বসিরহাটের উপনির্বাচনে বিজেপির জয় এবং ওই কেন্দ্রের ভোটবিন্যাস বেশকয়েটি প্রশ্ন তুলে দিয়েছে। রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের একাংশ বলছেন ধর্মের ভিত্তিতে ভোটের মেরুকরণ শুরু হয়েছে এ রাজ্যেও।   আর সেকারণেই ধর্মনিরপেক্ষতার স্লোগানকে সামনে রেখে রাজ্যের সমস্ত বামশক্তিকে এককাট্টা করার কাজ শুরু হয়েছে।

আজ থেকে শুরু জাঠা, গ্রামের ভোট ব্যাঙ্ক পুনরুদ্ধারে উদ্যোগী সিপিআইএম আজ থেকে শুরু জাঠা, গ্রামের ভোট ব্যাঙ্ক পুনরুদ্ধারে উদ্যোগী সিপিআইএম

গ্রামের ভোট ব্যাঙ্ক পুনরুদ্ধারে উদ্যোগী সিপিআইএম। আর সেই লক্ষ্যে কৃষকদের নিয়ে আজ থেকে টানা পাঁচ দিন জাঠা করবেন তাঁরা। সিপিআইএমের গণসংগঠন কৃষক সভার উদ্যোগে তিরিশ হাজার গ্রামে এই জাঠা হবে। উল্লেখযোগ্য পাঁচ দিন ধরে জাঠা চলাকালীন নেতারা বিভিন্ন গ্রামে কৃষকদের বাড়িতেই থাকবেন। সেই তালিকায় রয়েছেন বিরোধী দলনেতা সূর্যকান্ত মিশ্রও। আজ বীরভূমের এক কৃষকের বাড়িতে থাকবেন তিনি। সেখান থেকে যাবেন পূর্ব ও পশ্চিম মেদিনীপুরে। পাঁচ দিনের এই জাঠায় কৃষক সভা সরব হবে একশো দিনের কাজের খারাপ অবস্থা, কৃষক আত্মহত্যা ও ধানের দাম না পাওয়ার ইস্যুতে। প্রায় সাড়ে তিন দশক পরে কৃষক সভা রাজ্য জুড়ে এত বড় কর্মসূচী নিল।