শান্তি বজায় রাখুন: আবার আর্জি প্রধানমন্ত্রীর

চব্বিশ ঘণ্টার মধ্যে দ্বিতীয়বার আন্দোলনকারীদের কাছে শান্তি রক্ষার আর্জি
জানালেন প্রধানমন্ত্রী। দিল্লি তরুণী ধর্ষণকাণ্ডে সাধারণ মানুষের বিক্ষোভের
তীব্রতা যে জায়গায় পৌঁছেছে, তার ধাক্কা সামলাতে পরপর দু'দিন মুখ খুলতে হল
প্রধানমন্ত্রীকে। গতকাল তিনি লিখিত বিবৃতি দিয়েছিলেন। তাতে বিক্ষোভ না কমায়
আজ তাঁকে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দিতে হল। ভাষণে প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের
কাছে এই ঘটনা অত্যন্ত লজ্জার। এর বিরুদ্ধে মানুষের ক্ষোভও স্বাভাবিক। তবে
আন্দোলনের মধ্যে হিংসার প্রবেশ সমর্থন যোগ্য নয়।

দিল্লি ধর্ষণকাণ্ড: বিহার থেকে ধৃত ষষ্ঠ অভিযুক্ত

দিল্লি ধর্ষণকাণ্ডে অভিযুক্ত ৬ জনই ধরা পড়ল। বৃস্পতিবার বিহারের একটি গ্রাম থেকে ষষ্ঠ অভিযুক্ত অক্ষয় ঠাকুরকে গ্রেফতার করল পুলিস। এই দিনই পঞ্চম  অভিযুক্ত রাজুকে উত্তর প্রদেশের পশ্চিমাঞ্চলের বাদাউন থেকে আটক করে পুলিস। অন্যদিকে, দিল্লি ধর্ষণকাণ্ডে একজনকে সনাক্ত করলেন ধর্ষিতার সঙ্গী। টি আই প্যারেডে ১১ জনের মধ্যে এক মিনিটের মধ্যে বাসের চালক রাম সিং-এর ভাই মুকেশকে সনাক্ত করেন তিনি।

স্থিতিশীল কিন্তু আশঙ্কামুক্ত নন দিল্লির ধর্ষিতা

চার দিন কেটে গেলেও এখনও আশঙ্কামুক্ত নন দিল্লির বাসে ধর্ষিতা ২৩ বছরের তরুণী। তবে অদম্য জীবনীশক্তির জেরে দীর্ঘ লড়াইয়ের পর তাঁর অবস্থা সামান্য স্থিতিশীল বলে জানাচ্ছে সফদরজং হাসপাতালের মেডিক্যাল বোর্ড। আজ সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে চিকিৎসারত ডাক্তাররা বলেন তরুণী সজাগ এবং অপেক্ষাকৃত স্থিতিশীল। তবে আগামী বেশ কয়েকদিন তাঁকে আইসিইউ-তেই রাখা হবে। নিজে থেকে শ্বাস নিতে পারলেও এখনও তাঁকে ভেন্টিলেশনে রাখা হয়েছে। তাঁর হৃদপিণ্ড, মস্তিষ্ক এবং যকৃৎ কাজ করছে। সামান্য উন্নতি ঘটেছে লিভারেও।