ধোনিদের হেলায় হারিয়ে হিসাব গুলিয়ে দিল দিল্লি, ধোনিদের হারে সুবিধা নাইটদের

ধোনিদের হেলায় হারিয়ে হিসাব গুলিয়ে দিল দিল্লি, ধোনিদের হারে সুবিধা নাইটদের

চেন্নাই-১১৯/৬।। দিল্লি-১২০/৪ (১৬.৪ ওভার)
দিল্লি ৬ উইকেটে জয়ী (২০ বল বাকি থাকতে)

---------------

২০১১ বিশ্বকাপের সেই জুটি, যুবি-গ্যারি এবার দিল্লিতে ২০১১ বিশ্বকাপের সেই জুটি, যুবি-গ্যারি এবার দিল্লিতে

২০১৫ বিশ্বকাপে ভারতীয় দলে ব্রাত্য ছিলেন যুবরাজ সিং। ক্যান্সারে আক্রান্ত যুবি এবছরের আইপিএলের সবথেকে দামী খেলোয়াড়। যুবরাজের ফিটনেস নিয়ে সবুজ সঙ্কেত দিয়েছেন দিল্লি ডেয়ার ডেভিলসের কোচ গ্যারি কার্স্টেন।  

আইপিএলে লাস্ট বয় সেওয়াগরা

শুরুর আগে যে দলটা ধারেভারে অন্যতম শক্তিশালী তারাই আইপিএল সিক্সে সবার শেষে থাকল। রবিবার পুণে ওয়ারিয়র্সের কাছে ৩৮ রানে হেরে আইপিএল সিক্সে সবার শেষে থাকল দিল্লি ডেয়ারডেভিলস। যে দলে ডেভিড ওয়ার্নার, দিলশান, বীরেন্দ্র সেওয়াগের মত ওপেনার আছে, তিনে নামেন জয়বর্ধনে, ইউসুফ পাঠানের মত অলরাউন্ডার আর মর্নি মর্কেল-উমেশ যাদবের মত বোলার দলে।

শ্রম দিবসে টিকে থাকার চূড়ান্ত লড়াইয়ে গম্ভীররা

নয় ম্যাচের মধ্যে ছটিতে হার ঘরে-বাইরে চাপের মুখে ফেলে দিয়েছে নাইট রাইডার্সকে। এই চাপ মাথায় নিয়েই বুধবার রায়পুরের বীর নারায়ন সিং আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে ডেয়ারডেভিলসের মুখোমুখি হচ্ছে কেকেআর। ম্যাচের আগে দল বাছাই নিয়ে দুই মেরুতে নাইট অধিনায়ক গৌতম গম্ভীর ও কোচ ট্রেভর বেইলিস। ইউসুফ পাঠানকে খেলানো নিয়ে দ্বন্দ্ব চরমে পৌঁছেছে।

দ্রাবিড়িয় কায়দায় দিল্লি বধ শিল্পা শেঠিদের

রাজস্থান রয়্যালস-- ১৬৫/৭, দিল্লি-- ১৬০/৬ দ্রাবিড়িয় কায়দা বলে কিছু কথা আছে কি না জানতে আর অভিধান ঘাটলাম না। আজ ফিরোজ শাহ কোটলায় রাজস্থান রয়্যালসের অসাধারণ জয়টাকে নাম দেওয়া ঠিক হবে দ্রাবিড়িয় কায়দা বলে। ভারতীয় ক্রিকেটে দ্রাবিড়িয় কায়দা মানে পরিশ্রম, লড়াই আর সাধনা। ঠিক তেমনই হল আজ রাহুল দ্রাবিড়ের দলের জয়ের মন্ত্র। প্রায় তারকাশূন্য দল নিয়ে দিল্লি ডেয়ারডেভিলসকে হারিয়ে আইপিএল সিক্স অভিযান শুরু করল শিল্পা শেঠির দল। দুটো অসাধরণ ফিল্ডিং ম্যাচের ভাগ্য গড়ে দিল। ওয়ার্নার যখন একাই ম্যাচ বের করে দিচ্ছেন, সেই মোক্ষম সময়ে ব্র্যাড হজের দুরন্ত ফিল্ডিংয়ে সুবাদে রান আউটাই ম্যাচের টার্নিং পয়েন্ট হয়ে থাকল। সঙ্গে যোগ হল কুপারের অসাধরণ শেষ ওভার, তরুণ দ্রাবিড়ের দুরন্ত ব্যাটিং, আর বিনি পুত্রের বিন্দাস। আর অবশ্যই বলতে হবে আজিঙ্কা রাহানের অবিশ্বাস্য ক্যাচটার কথা। পয়েন্টে দাঁড়িয়ে রাহানে জয়বর্ধনের যে ক্যাচটা লুফলেন তাতে গোটা দলের শরীরীভাষাটা বদলে গেল।