আগামী পূর্ণিমাতেই পৃথিবীর বুকে ঘটতে পারে ধ্বংসলীলা!

আগামী পূর্ণিমাতেই পৃথিবীর বুকে ঘটতে পারে ধ্বংসলীলা!

গত মঙ্গলবার তীব্র ভূমিকম্পে কেঁপে ওঠে জাপানের ফুকুশিমা, টোকিও সহ বিস্তীর্ণ অঞ্চল। জারি করা হয় সুনামি সতর্কতা। প্রথমটায় কিছুটা বড় মাপের ঢেউ উঠলেও, পরে অবশ্য অল্পেতেই বিপদ কেটে যায়। ঘটেনি কোনও

পৃথিবীর মতো দেখতে গ্রহ আবিস্কার!

পৃথিবীর মতো দেখতে গ্রহ আবিস্কার!

গ্রহ, নক্ষত্র, মহাকাশ নিয়ে গবেষণা চলছেই। রোজ নতুন নতুন তথ্য আবিস্কার করছেন বিজ্ঞানীরা। সম্প্রতি পৃথিবীর মতো দেখতে একটি গ্রহের সন্ধান পেলেন বিজ্ঞানীরা। পৃথিবীর মতো দেখতে এই গ্রহটি খুব উজ্জ্বল একটি

পৃথিবীর অভ্যন্তর থেকে মিলছে অদ্ভুত শব্দ সংকেত!

পৃথিবীর অভ্যন্তর থেকে মিলছে অদ্ভুত শব্দ সংকেত!

কানাডার তিরবর্তী অঞ্চলে আর্টিক সাগরের গভীরে গত কয়েক মাস ধরে শোনা যাচ্ছে একটি অদ্ভুদ শব্দ। জাহাজ, নৌকা বা যে কোনও ধরনের সামুদ্রিক যান নিয়ে ওই অঞ্চলের উপর দিয়ে গেলেই শোনা যাচ্ছে ওই শব্দ। কখনও তা শুনতে

ব্রহ্মাণ্ডের অন্য রূপ চেনাবে এই দুটি ভিডিও

ব্রহ্মাণ্ডের অন্য রূপ চেনাবে এই দুটি ভিডিও

ব্রহ্মাণ্ড সত্যিই অদ্ভুত। আর আরও অদ্ভুত তার কার্য প্রণালী। খুব ভাল করে লক্ষ্য করলে মনে হয় এই গোটা বিষয়টার মধ্যে কোথাও একটা 'মিরাকেল' রয়েছে।

পূরাণ মতে যে যে লক্ষণ দেখে বুঝবেন মৃত্যু কাছে এসে গিয়েছে!

পূরাণ মতে যে যে লক্ষণ দেখে বুঝবেন মৃত্যু কাছে এসে গিয়েছে!

জন্মালে মরতেও হবে। এটাই কঠিন সত্য এবং এটাই পৃথিবীর নিয়ম। তবুও মৃত্যু সবসময়ই বেদনাদায়ক। আমরা কেউই আমাদের প্রিয়জনদের মৃত্যুর মুখে চলে যেতে দিতে চাই না। মৃত্যু এমন একটা জিনিস, যা কখন আসবে, তা আমাদের

পৃথিবীর নাম কেন কে রেখেছিল 'Earth'? ভেবে দেখেছেন

পৃথিবীর নাম কেন কে রেখেছিল 'Earth'? ভেবে দেখেছেন

আচ্ছা বলুন তো, পৃথিবীকে ইংরেজিতে কেন 'Earth' বলা হয়ে থাকে? কেন অন্য কোনও নাম নেই পৃথিবীর? কে রেখেছিল এই নাম? জানেন পৃথিবীর নাম 'Earth' হওয়ার পিছনে যুক্তিটা কী?

'২০১৬ সালেই পৃথিবী ধ্বংস হবে!' ৫০০ বছর আগে ভবিষ্যদ্বাণী ফরাসী জ্যোতির্বিদের

'২০১৬ সালেই পৃথিবী ধ্বংস হবে!' ৫০০ বছর আগে ভবিষ্যদ্বাণী ফরাসী জ্যোতির্বিদের

বিশ্ব উষ্ণায়নের চাপেই নাকি পৃথিবী ধ্বংস হবে বলে মনে করছেন বৈজ্ঞানিকরা। কিন্তু জানেন কী আজ থেকে ৫০০ বছর আগেই ফরাসি জ্যোতির্বিদ মাইকেল দি নোতরদাম, ওরফে নস্ত্রাদামস, ইতিহাসে বিখ্যাত হয়ে রয়েছেন‌ তাঁর

যদি পৃথিবী থেকে হারিয়ে যায় মানুষ? (দেখুন ভিডিওতে)

যদি পৃথিবী থেকে হারিয়ে যায় মানুষ? (দেখুন ভিডিওতে)

ভাবুন তো পৃথিবীতে যদি মনুষ্যকুল না থাকে তাহলে কী হবে? কোন জায়গায় গিয়ে দাঁড়াবে পৃথিবীর পরিস্থিতি। ভাবছেন তো বিশ্বজুড়ে বিজ্ঞানের এই অগ্রগতির মাঝে এ আবার কী সব কথা। দিব্যি খেয়ে, পড়ে বেঁচে আছেন, তার

১১ বছর পর পৃথিবীর কাছাকাছি আসছে মঙ্গল

১১ বছর পর পৃথিবীর কাছাকাছি আসছে মঙ্গল

এটা সত্যি যে ইতিহাস নিজে থেকেই বদলায়। প্রতি ১০ বছর অন্তর নতুন নতুন ইতিহাস তৈরি হতে থাকে। এমনই এক ইতিহাসের সম্মুখীন হতে চলেছেন সমগ্র পৃথিবীর মানুষ। আগামিকাল অর্থাত্‌ ৩০ মে পৃথিবীর সবচেয়ে কাছে আসতে

মঙ্গল পৃথিবীর সবথেকে কাছে আসতে চলেছে এই সপ্তাহে!

মঙ্গল পৃথিবীর সবথেকে কাছে আসতে চলেছে এই সপ্তাহে!

আগামী ৩০ মে পৃথিবীর সবচেয়ে কাছে আসবে লাল গ্রহ মঙ্গল। এরপর গ্রহটি পৃথিবী থেকে ৪ কোটি ৬৭ লাখ মাইল দূরে থাকবে কয়েক সপ্তাহ ধরে। টেলিস্কোপ তো বটেই রাতের আকাশে খালি চোখেও দেখা যাবে এই ঘটনা। গত ১৩ বছরে

বিশ্ব ব্রহ্মান্ডে আছে আরও ৯টা 'পৃথিবী'!

বিশ্ব ব্রহ্মান্ডে আছে আরও ৯টা 'পৃথিবী'!

গোটা সৌরজগতে এমন একটি গ্রহের কথাই আমরা জানি যেখানে প্রাণ রয়েছে। পৃথিবী। বাকি ৯টা গ্রহে প্রাণ আছে কি নেই, সেখানে বাস করা সম্ভব কিনা এসব এখনও প্রমাণ সাপেক্ষ। মহাকাশচারীরা তা নিয়ে চালিয়ে যাচ্ছেন গবেষণা

খুব শিগগিরই জন্ম নিতে চলেছে আরেকটা 'পৃথিবী'

খুব শিগগিরই জন্ম নিতে চলেছে আরেকটা 'পৃথিবী'

যে হারে পৃথিবীর জনসংখ্যা বাড়ছে, তাতে আর কয়েকবছর পরই মানুষ কোথায় গিয়ে থাকবে, মনের কোণে হালফিল উঁকি মারে সেই চিন্তা। তবে আর বোধহয় সে দুশ্চিন্তার কারণ নেই। কারণ আরেকটা 'পৃথিবী' জন্মাচ্ছে যে!

পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে এক সবুজ ধূমকেতু! কবে?

পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে এক সবুজ ধূমকেতু! কবে?

ধেয়ে আসছে ধূমকেতু। যেমন তেমন ধূমকেতু নয়, সবুজ রঙের এক ধূমকেতু। যা দেখতে পাবেন পৃথিবীর উত্তর গোলার্ধের মানুষরা। সবুজ সে ধূমকেতুর নাম কমেট লিনিয়ার। আর ৩ দিন পর সূর্যোদয়ের আগে খালি চোখে আকাশের দিকে

রবিবার পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে অতিকায় এক গ্রহাণু! ধাক্কায় কী হবে?

রবিবার পৃথিবীর দিকে ধেয়ে আসছে অতিকায় এক গ্রহাণু! ধাক্কায় কী হবে?

রবিবার অর্থাত্‍ আগামীকাল পৃথিবীর সামনে তার অস্তিত্ব রক্ষার বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। কারণ, প্রায় ১০০ ফুটের থেকেও বেশি লম্বা এক বিরাট গ্রহাণু ধেয়ে আসছে পৃথিববীর দিকে। এই কথা জানিয়েছে নাসা। এই