দুর্গাপুরে কাজের লোভ দেখিয়ে ধর্ষণের শিকার সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বা

কাজের লোভ দেখিয়ে অন্যত্র নিয়ে গিয়ে সাত মাসের অন্তঃসত্ত্বাকে ধর্ষণের অভিযোগ উঠল দুর্গাপুরের কাছে রাজবাঁধে। মারধর করা হয় ওই মহিলার স্বামীকে। দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে নির্যাতিতাকে। ঘটনার পর থেকে উধাও অভিযুক্ত তিন যুবক। অন্যদিকে ছাত্রীদের যৌন হেনস্থা করার অভিযোগে আসানসোলের স্কুলে এক শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ দেখান অভিভাবকেরা। অভিযুক্তের গলায় জুতোর মালা পরিয়ে দেওয়া হয়।পারিবারিক অশান্তির জেরে বাড়ি ছেড়েছিলেন পুরুলিয়ার জয়চণ্ডীপুরের এই দম্পতি। তাঁদের অভিযোগ, জয়চণ্ডীপুর স্টেশনেই তাঁদের কাজ যোগাড়ের আশ্বাস দেয় তিন যুবক। শুক্রবার সন্ধেয় তাঁদের অন্ডাল স্টেশন থেকে রাঁচি হাতিয়া এক্সপ্রেসে তোলে ওই তিন যুবক। মহিলার অভিযোগ, রাজবাঁধ স্টেশনে নামিয়ে তাদের অটোতে করে নিয়ে নির্জন জায়গায় নামানো হয়। এরপর স্বামীকে মারধর করে তাঁকে ধর্ষণ করে ওই তিন যুবক। পরে পুলিস এসে তাঁদের উদ্ধার করে।

এখনও অধরা মূল অভিযুক্ত, পরিকল্পনা করেই আমতার গ্রামে চালানো হয়েছে গণধর্ষণ, অভিযোগ স্থানীয় বাসিন্দাদের

রীতিমতো পরিকল্পনা করেই আমতার গ্রামে চালানো হয়েছে গণধর্ষণ। অভিযোগ সিপিআইএম এবং স্থানীয় বাসিন্দাদের। তাঁরা বলছেন, তাঁদের বক্তব্য, বেশ কিছুদিন ধরে গ্রামের সিপিআইএম সমর্থকদের তৃণমূলে যোগ দেওয়ার জন্য হুমকি দেওয়া হচ্ছিল। এরপর সড়ক নির্মাণকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের সংঘর্ষও হয়। সিপিআইএমের অভিযোগ, এরপর পুলিস কেবল তাদের সমর্থকদেরই ধরপাক়ড করে। আতঙ্কে বামপন্থী পরিবারগুলির পুরুষরা ছিলেন গ্রামছাড়া। অভিযোগ, সেই সুযোগেই মঙ্গলবার রাতে একটি বাড়িতে ঢুকে দুই মহিলাকে ধর্ষণ করা হয়।

রাতের কলকাতায় গণধর্ষণ: গুরুতর অসুস্থ নিগৃহীতা, ধৃত ১, ধৃত নিগৃহীতার পূর্বপরিচিত বলে দাবি পুলিসের

রাতের কলকাতা শহরে ফের গণধর্ষণের অভিযোগ। দুষ্কৃতীরা জোর করে গাড়িতে তুলে নিয়ে গণধর্ষণ করে বলে অভিযোগ এক তরুণীর। গুরুতর অসুস্থ ওই তরুণীর সঙ্গে পুলিস এখনও বিস্তারিত কথা বলতে পারেনি। পুলিসের জালে মূল অভিযুক্ত হামিদ। তারপরই ঘটনা সম্পর্কে কয়েকটি অসঙ্গতি ধরা পড়েছে বলে দাবি পুলিসের।প্রাথমিকভাবে ওই তরুণী এবং পরিবারের বক্তব্য অনুসারে পুলিস জানতে পারে, রবিবার রাত সাড়ে নটা নাগাদ দক্ষিণ কলকাতার এক শপিং মল থেকে বের হয়েছিলেন তিনি। সেখান থেকে ট্যাক্সি করে যান পার্ক সার্কাস। দুই সহকর্মীকে নামিয়ে ট্যাক্সি চালককে হাওড়া যেতে বলেন। চালক রাজি না হওয়ায় খিদিরপুর পর্যন্ত যান। সেখানে থেকেই তাঁকে জোর করে গাড়িতে তোলা হয় এবং গণধর্ষণের ঘটনা ঘটে। ভোর রাতে তাঁকে দুষ্কৃতীরা আউটরামঘাটের কাছে ফেলে যায়। সেখান থেকে কোনও মতে হাওড়া স্টেশন পৌছে পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করেন।

Live Streaming of Lalbaugcha Raja