২৪ ঘণ্টার হোলি স্পেশাল প্লে লিস্ট

হোলি মানে রঙের সঙ্গে ভাঙ্গ, দুষ্টুমি আর গান। এবারে হোলিতে কোন কোন গান মাতাল পার্টি? রইল ২৪ ঘণ্টার হোলি স্পেশাল প্লে লিস্ট-

হোলি হ্যায়- কাশ্মীর থেকে কন্যাকুমারী মাতোয়ারা রঙের দিওয়ালিতে

হোলি হ্যায়... আজ এমন শব্দই আকাশে বাতাসে। সঙ্গে রঙীন হয়ে ওঠা। রঙের উত্‍সব হোলিতে মাতছে দেশবাসী। আজ সকাল থেকেই বারাণসী, বৃন্দাবন, উজ্জইন, আহমেদাবাদ, পাটনা, মুম্বইসহ দেশের সর্বত্রই হোলিতে সামিল হন সব বয়সের মানুষ। হোলি উপলক্ষে দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি এবং প্রধানমন্ত্রী। হোলি খেলায় মেতে ওঠেন বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতারাও।

দোলের রঙ মিশল ভোটের রঙে-রঙীন হয়ে জোর প্রচারে প্রার্থীরা

একে রবিবার, তার ওপর আবার দোল। এমন সুযোগ কী ছাড়া যায়। তাই দোলের রঙ মেখেই জোর প্রচার সারলেন রাজ্যের প্রার্থীরা। এক নজরে দেখে নেব রঙ মাখা রাজনীতির ছবি--

দোলে জীবনের ফিকে হয়ে যাওয়া রঙ ফিরল ওঁদের জীবনে

২০১৪ সালের দোল উত্‍সব ওঁরা মনে রাখবেন চিরদিন। কারণ বহু বছর পর এবারের দোল তাঁদের জীবনের ফিকে হয়ে যাওয়া রঙকে আবার ফিরিয়ে দিয়েছে। নতুন আঙ্গিকে। পুরনো প্রথার জাল ছিঁড়ে এবছর হোলির রঙে মাতলেন বৃন্দাবনের বিধবারা।

রঙ যখন ভয় দেখায়!!!

হোলি হল রঙের উত্‍সব... তা রঙিন জামা, সিনেমার মত রঙিন জীবনও তো সবার পছন্দ.. কিন্তু কারও কারও কাছে রঙ জিনিসটা বড্ড স্পর্শকাতরও বটে... কারও কারও কোনও কোনও রঙে বড় ভয় থাকে ... তাই হোলির আগে বিধিবদ্ধ সতর্কীকরণের ঢঙে শুনিয়ে রাখছি কিছু মানুষের রঙ বিভীষিকার কথা... হোলি খেলার সময় সব সময় খেয়াল রাখবেন এই সতর্কীকরণের কথা...

আজ দোল, রঙ মেখে রাজ্য রঙীন

আজ দোল। বাতাসে লেগেছে রঙের ছোঁয়া। রঙের উত্সবে মেতেছে গোটা রাজ্য। দোল উতসবে বসন্তের রঙে সেজেছে গোটা রাজ্য।

ঠান্ডাই

হোলি আর ঠান্ডাই প্রায় সমার্থক শব্দ। ঠান্ডাই খেলেই মনে পড়ে হোলির কথা, আর হোলি এলেই মন কাঁদে ঠান্ডাইয়ের জন্য...

পোশাকে রং

আর মাত্র দুটো দিন। তারপরই বসন্ত উত্সব। উন্মত্ত রঙ খেলা। কিন্তু প্রতিবারই খেলতে যাওয়ার আগে চিন্তা থাকে কোন পোশাকে খেলবেন হোলি। টিভি, সিনেমা দেখে অনেকেরই মনে সাধ জাগে সাদা পোশাকে দোল খেলতে। কিন্তু অনেক সময়ই সেটা হয়ে ওঠে না। আবার অনেক সময় ভাল পোশাকে রং লেগে গিয়ে হোলির পর হয় দেদার মন খারাপ। এরপরতো আবার রয়েছেই হোলির পার্টির সাজগোজ। তবে যেই পোশাকেই দোল খেলুন না কেন কিছু জিনিস মাথায় রাখা খুব জরুরি। আর প্রিয় পোশাকে রঙ লেগে গেলে রয়েছে সমস্যা সমাধানের উপায়ও।

দোল খেলতে অন্য কোথাও...

রং মেখে ভুত সেজে দোল তো প্রতিবছরই খেলেন। একটু অন্যরকম দোল কাটাতে, উত্তর ভারতের হোলির আবেগে মিশে যেতে এবারে দোলে না হয় একটু ঘুরেই আসুন। ভারতের বিভিন্ন অঞ্চলে আপনার জন্য অপেক্ষা করে রয়েছে গোলের হরেক রং...

হোলি@কেয়ার

হোলির মজা যেরকম প্রচুর সেরকমই এদিন দুর্ঘটনা ঘটার সম্ভাবনাও থাকে প্রচুর। রঙের প্রভাবে ত্বক, চুলের সমস্যা হওয়া ছাড়াও মজার ঘোরে ঘটে যেতে পারে বড়সড় রকমের অঘটনও। একটা রঙিন দিনের জন্য আগামী কয়েকটা দিন যাতে বেরঙ না হয়ে যায় সেই জন্য রইল বিশেষজ্ঞ চিকিতসকদের দশটি টিপস।

রং, ন্যাচারাল মানে হার্বাল

বাজার চলতি রঙে প্রচুর ভারী ধাতু, অ্যাসিড, ক্ষারজাতীয় পদার্থ, কাঁচের গুঁড়ো মেশানো থাকে যার ফলে ত্বকের ক্ষতি তো হয়ই, শরীরের অন্যান্য অঙ্গেও এর প্রভাব পড়তে পারে। এমনকী এইসব রং তৈরি করতেও প্রচুর ক্ষতিকারক রাসায়নিক পদার্থ ব্যবহার করা হয়। অনেক গুঁড়ো রঙে চকের গুঁড়ো বা সিলিকাও মেশানো হয়। মেলানো থাকে অ্যাসবেসটসও। যার সামান্য পরিমান শরীরে গেলেও ক্যান্সার পর্যন্তও হতে পারে। অনেক তরল রঙে মেশানো থাকে ক্ষতিকারক ইঞ্জিন অয়েল বা নিম্নমানের তেল যার ফলে অ্যালার্জির সম্ভাবনা থাকে। এমনকী সাময়িক ভাবে অন্ধও হয়ে যেতে পারে মানুষ।

দোল পূরাণ

দোলের সঙ্গেই জুড়ে রয়েছে বিভিন্ন সময়ের বিভিন্ন পৌরাণিক কাহিনি। সেইসব কাহিনি, আঞ্চলিক সংস্কৃতি ও উত্সবরে মেজাজের মোড়কে বর্তমান চেহারা পেয়েছে দোল। পৌরাণিক ইতিহাসকে স্মরণে রেখে আজও ভারতের বিভিন্ন প্রদেশে রীতি মেনেই পালন করা হয় হোলি। তারই কিছু টুকরো গল্প-

দোল, দোল দুলুনি...

রায়া দেবনাথ

বাঙালিদের ঝুলিতে উৎসবের সংখ্যা চিরকালই ক্রমবর্ধমান। রসে বসে থাকুক বা না থাকুক ফেস্টিভ্যাল পালনে বাঙালিদের কোনও কার্পণ্য নেই। উৎসবের মামলায় বঙ্গ জনতা, মহাই বিলকুল সাম্যবাদী। তবে মধ্যবিত্ত ভীরু ট্যাগ নিয়ে জন্মানো বাঙালি জাতির জীবনে অ্যাডালটারেশনের অভাব না থাকলেও অ্যাডাল্ট উৎসব বলতে সেই সবে ধন নীলমণি দোল।

বাঙালির জীবনে পুং ঠাকুর দুজনই। এক কেষ্ট ঠাকুর (অবশ্যই এখানে চণ্ডীদাস আর জয়দেবের কৃষ্ণের বঙ্গীয়করণ আলোচ্য বিষয়। ব্যাসদেবের ভোজপুরি রাজা কৃষ্ণ ব্রাত্যজন) আর এক জন রবি ঠাকুর। তা এই দুই প্রেমিক প্রবর ঠাকুর মশাই রঙের উৎসবকে বঙ্গ জীবনের অঙ্গ যখন বানিয়েই গেছেন তখন তার থেকে মুখ ঘুরিয়ে থাকে কোন বেরসিক! কৃষ্ণ-রবির নাম যে উৎসবের সঙ্গে জড়িয়ে সেখানে প্রাপ্তবয়স্ক খুনসুটি থাকবে না? ধুর, তাও কি কখনও হয় নাকি!

দোল বা হোলি হলো অনেকটা রাবণের মত। যার জীবনে শিশু দশা প্রায় নেই বললেই চলে। বরং শিশুরা দোলের ছোঁয়ায় টুকুস করে বড় হয়ে ওঠে। তবে রঙ নিয়ে রঙবাজি করার আগে টুকটাক বিধিসম্মত সতর্কীকরণ সঙ্গে টুকটাক জ্ঞান বিতরণ-