যাদবপুরের উপাচার্যের পাশেই শিক্ষামন্ত্রী, দুষলেন পড়ুয়াদের যাদবপুরের উপাচার্যের পাশেই শিক্ষামন্ত্রী, দুষলেন পড়ুয়াদের

যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের  উপাচার্যের পাশে দাঁড়ালেন শিক্ষামন্ত্রী। কাঠগড়ায় তুললেন বিক্ষোভকারী ছাত্রছাত্রীদেরই। তাঁর অভিযোগ, ছাত্রছাত্রীরা আলাপ-আলোচনা চান না। বরং তাঁরা টিভিতে মুখ দেখাতেই বেশি আগ্রহী। একটি নির্দিষ্ট রাজনৈতিক দলের শিক্ষক সংগঠন ওয়েবকুপার অনুষ্ঠানে কেন যোগ দেবেন উপাচার্য? প্রশ্ন তুলেছিলেন ছাত্রছাত্রীরা।  প্রতিবাদে শুক্রবার  থেকেই শুরু হয়েছিল বিক্ষোভ। শনিবার সকালে  বিক্ষোভের মধ্যেই ওয়েবকুপার অনুষ্ঠানে যোগ দিতে যাদবপুরে আসেন শিক্ষামন্ত্রী।  বিশ্ববিদ্যালয়ে আসেন উপাচার্য অভিজিত্‍ চক্রবর্তীও।

ছাত্র বিক্ষোভের মুখে পড়ে পুলিসে প্রহরায় বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়লেন যাদবপুরের উপাচার্য ছাত্র বিক্ষোভের মুখে পড়ে পুলিসে প্রহরায় বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়লেন যাদবপুরের উপাচার্য

নজিরবিহীনভাবে ছাত্র বিক্ষোভের মুখে পড়ে বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়তে পারলেন না যাদবপুরের উপাচার্য অভিজিত্ চক্রবর্তী। কেন তিনি পদত্যাগ করছেন না সরাসরি এই প্রশ্নের মুখে পড়তে হল তাঁকে।পরে অবশ্য পুলিসের সাহায্যে বিশ্ববিদ্যালয় ছাড়লেন উপাচার্য।  দুপুরেই অচলাবস্থা কাটার ইঙ্গিত এসেছিল ছাত্রদের থেকে। বয়কট ছেড়ে ক্লাসে যোগ দিয়েছিলেন ছাত্ররা। বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিস্থিতিও ছিল অনেকটাই শান্ত। বিক্ষোভও হয়নি। সওয়া পাঁচটা নাগাদ উপাচার্য বেরোচ্ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। সেসময়ই হঠাত্ কয়েকজন ছাত্রছাত্রী গেটের বাইরে বিক্ষোভ দেখায়। উপাচার্যের দিকে ছুঁড়ে দেয় একের পর এক প্রশ্ন

যাদবপুর কাণ্ড: বয়কট ছেড়ে ক্লাসে ফিরলেও পড়ুয়ারা সাড়া দেবেন না রোল কলে যাদবপুর কাণ্ড: বয়কট ছেড়ে ক্লাসে ফিরলেও পড়ুয়ারা সাড়া দেবেন না রোল কলে

আর বয়কট নয়। এবার  ক্লাসে ফিরছেন যাদবপুরের ছাত্রছাত্রীরা। তবে, ক্লাস করলেও রোল কলে সাড়া দেবেন না তাঁরা। ছাত্রছাত্রীদের এই সিদ্ধান্তে বিশ্ববিদ্যালয়ে অচলাবস্থা কিছুটা হলেও কাটবে বলে মনে করছে শিক্ষামহল। ছাত্রছাত্রীরা কিছুটা নরম হলেও, পুরনো অবস্থানে অনড় অধ্যাপক সংগঠন জুটা। উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে আজ নজিরবিহীনভাবে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করলেন যাদবপুরের অধিকাংশ অধ্যাপক।  আর্টসের ছাত্রছাত্রীরা ক্লাস করছিলেন গাছতলায়। সায়েন্সের পড়ুয়ারা ক্লাসে থাকলেও সাড়া দিচ্ছিলেন না রোল কলে। এবার সেই পথেই যাদবপুরের বাকি ছাত্রছাত্রীরাও। ক্লাস বকটের সিদ্ধান্ত থেকে শেষ পর্যন্ত সরে এলেন আন্দোলনকারীরা। তবে, ক্লাসে ফিরলেও  হাজিরা দেবেন না তাঁরা। অথার্ত সাড়া দেবেন না রোল কলে।  তবে  উপাচার্যের পদত্যাগের দাবিতে তাঁরা অনড় বলেই জানিয়েছেন ছাত্রছাত্রীরা।

ফাঁকা ক্যাম্পাসে যাদবপুরে কড়া নিরাপত্তা বেষ্টনীতে এলেন উপাচার্য ফাঁকা ক্যাম্পাসে যাদবপুরে কড়া নিরাপত্তা বেষ্টনীতে এলেন উপাচার্য

ফাঁকা ক্যাম্পাস। কড়া নিরাপত্তা বেষ্টনী। এমনকী প্রশাসনিক ভবনের দরজায় লাগানো লোহার শিকল। যাদবপুর বিশ্ববিদ্যায়লের স্থায়ী উপাচার্য হিসেবে অভিজিত্‍ চক্রবর্তীর দ্বিতীয় দিনে এই ছবিটাই দেখা গেল ক্যাম্পাসে। শুক্রবারের মতো শনিবারও নিরাপত্তা কর্মীদের ঘেরাটোপে ক্যাম্পাসে ঢোকেন অভিজিত্‍ চক্রবর্তী। খানিকক্ষণ পরই অবশ্য ক্যাম্পাস ছাড়েন তিনি। যাদবপুরের স্থায়ী উপাচার্য হিসেবে প্রথমবার অভিজিত্‍ চক্রবর্তী ক্যাম্পাসে এসেছিলেন শুক্রবার। নিরাপত্তা কর্মী বেষ্টিত উপাচার্যের এক নজিরবিহীন প্রবেশ ও প্রস্থানের সাক্ষী হয়েছিল যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়।