এনসেফ্যালাইটিস আতঙ্কের মাঝেই রাজ্যে ম্যালিগন্যান্ট ম্যালেরিয়ার ভ্রূকুটি এনসেফ্যালাইটিস আতঙ্কের মাঝেই রাজ্যে ম্যালিগন্যান্ট ম্যালেরিয়ার ভ্রূকুটি

এনসেফ্যালাইটিসের প্রকোপের মাঝেই রাজ্যের জঙ্গলমহলে থাবা বসাল ম্যালিগন্যান্ট ম্যালেরিয়া। শুধুমাত্র জুলাই মাসেই আমলাশোলের একশো সাত জনের রক্তে ম্যালিগন্যান্ট ম্যালেরিয়ার উপস্থিতি ধরা পড়েছে। সাধারণ ম্যালেরিয়ার চেয়ে কয়েকগুণ বেশি সংখ্যায় ম্যালিগন্যান্ট ম্যালেরিয়া ধরা পড়ায় আতঙ্কে রয়েছেন ওই এলাকার মানুষ।আমলাশোল। জঙ্গলমহলের পিছিয়ে পড়া এই এলাকা বরাবরই ম্যালেরিয়া প্রবণ। ফলে এই এলাকার বাসিন্দাদের রক্তে প্রায়শই সাধারণ ম্যালেরিয়ার পরজীবী প্লাসমোডিয়াম ভাইভ্যাক্সের উপস্থিতি পাওয়া যায়। কিন্তু গত কয়েকমাসে এই আমলাশোলেরই ঘুম কেড়েছে ম্যালিগন্যান্ট ম্যালেরিয়া।

সম্মুখও সমরের প্রস্তুতেই জয়রামের সভা জঙ্গলমহলে

জঙ্গলমহলের মাটি থেকেই রাজ্যসরকারের বিরুদ্ধে জেহাদ ঘোষণা করতে চলেছে কংগ্রেস। একই মঞ্চে চার কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর উপস্থিতিতেই আগামী দিনের আন্দোলনের রূপরেখাও ঘোষণা করবে প্রদেশ নেতৃত্ব। কিন্তু কেন বেছে নেওয়া হয় জঙ্গলমহলকেই? রাজনৈতিকমহলে এখন এই নিয়ে চর্চা তুঙ্গে। অনেক ঝড়ঝাপটার পর শেষপর্যন্ত এফডিআই বিতর্কে জয়ী হয়েছে ইউপিএ। কখনও মায়াবতীর হাত, কখনও মুলায়েমের সঙ্গে গোপন শলাপরামর্শ, সব পথ খোলা রেখেই এগোতে হয়েছে তাদের। তৃণমূল কংগ্রেস আগেই জোট ছেড়ে বেরিয়ে গেলেও শেষমুহূর্ত পর্যন্ত কংগ্রেসের নেতৃত্বের একাংশের ধারনা ছিল হয়তো বা ঘুরপথে সমর্থন পাবেন তারা। তাও হয়নি। ফলে সরকার বাঁচানোর পরের দিন থেকেই তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে জোরদার আন্দোলনে রাজপথে কংগ্রেস।