১০ দিনে ১৮ বার অস্ত্রবিরতি লঙ্ঘন, কারগিলের পর মেন্ধার, হামিরপুর সীমান্তে গুলি চালাল পাক সেনা

ভারত-পাক সীমান্তে উত্তেজনা আরও বাড়িয়ে দিল কারগিল-দ্রাস সেক্টরে পাক সেনার গুলি।ভা গত চোদ্দো বছরে এই প্রথম কারগিল অঞ্চলে অস্ত্রসংবরণ চুক্তি লঙ্ঘন করল পাকিস্তান। কারগিলে গুলি চালানোর কয়েক ঘণ্টা পর মেন্ধার ও হামিরপুরে সীমান্ত বরাবর গুলি চালাল পাক সেনা। সীমান্ত এলাকায় গত ১০ দিনে এ নিয়ে ১৮বার চুক্তি লঙ্ঘিত হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে ইসলামাবাদের সঙ্গে আলোচনায় যাওয়ার সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছে কেন্দ্র।  

আজ পুঞ্চে ফ্ল্যাগ মিটে ভারত-পাকিস্তান

চাপের মুখে আজ ভারতের সঙ্গে ফ্ল্যাগ মিটিংয়ে বসছে পাকিস্তান। বেলা একটায় পুঞ্চ সেক্টরে দু দেশের ব্রিগেডিয়ার পর্যায়ের ওই ফ্ল্যাগ মিটিং আয়োজন হবে। ফ্ল্যাগমিটিংয়ে সম্মত হলেও গতকাল ফের ভারতীয় সেনা ছাউনি লক্ষ্য করে গুলি চালায় পাক সেনা।

অবশেষে ফ্ল্যাগমিটে পাকিস্তানের সম্মতি

অবশেষে প্রথম ব্রিগেডিয়র স্তরে ফ্ল্যাগমিটে সম্মত হল পাকিস্তান। সীমান্ত ঘিরে গত কয়েকদিনের বেড়ে চলা উত্তেজনার পর গতকাল ভারতীয় বায়ুসেনার প্রধান এনএকে ব্রাউন জানিয়েছিলেন, পাকিস্তানের তরফে অস্ত্রবিরতির চুক্তিভঙ্গ লাগাতার চলতে থাকলে ভারত কড়া পদক্ষেপ নেবে। এরপর আজ পাকিস্তানের তরফে জানানো হয়েছে তারা সোমবার ফ্ল্যাগ মিটের জন্য প্রস্তুত। আগামিকাল একটায় পুঞ্চে আলোচনায় বসবেন ভারত-পাকিস্তানের কমান্ডাররা।

অনশন শুরু হেমরাজের পরিবারের

পাক সেনার হাতে দুই ভারতীয় জওয়ানের মৃত্যুর ঘটনায় নয়া মোড়। নিহত জওয়ান ল্যান্স নায়েক হেমরাজের কাটা মাথা সঙ্গে নিয়ে গিয়েছে পাকসেনারা।  হেমরাজের মাথা ফেরতের দাবিতে আজ থেকে অনশন আন্দোলন শুরু করলেন হেমরাজের পরিবার ও গ্রামের বাসিন্দারা।

সীমারেখা বরাবর গুলির লড়াই অব্যাহত

মেন্ধার সেক্টরে দুই ভারতীয় সেনা জওয়ানের মৃত্যুর পর নিয়ন্ত্রণরেখার পরিস্থিতি বৃহস্পতিবার ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠল। বৃহস্পতিবার নতুন করে পুঞ্চ সেক্টরে  গুলি চালিয়েছে পাক সেনা। পাক অধিকৃত কাশ্মীরে ঢোকার মুখে  সমস্ত ভারতীয় ট্রাক আটকে দিয়েছে পাক বাহিনী। গতকালও দুই ভারতীয় সেনার হত্যার দায় স্বীকার করেনি পাকিস্তান। 

সেনা হত্যার পিছনে সন্দেহের তির হাফিজ সইদের দিকে

পুঞ্চের মেন্ধর সেক্টরে দুই ভারতীয় সেনার হত্যার ঘটনায় আসল মাথা কি হাফিজ মহম্মদ সইদ? গোয়েন্দা

রিপোর্টে এই আশঙ্কা জোরদার হচ্ছে। ঘটনার কয়েকদিন আগেই পাক অধিকৃত কাশ্মীরে উপস্থিত

হয়েছিলেন জামাত-উদ-দাওয়া প্রধান হাফিজ সইদ।