আর পি সিং-এর বক্তব্য নিয়ে যুযুধান কংগ্রেস-বিজেপি

টুজি কাণ্ডে বিজেপিকে কোণঠাসা করার সুযোগ হারাতে রাজি নয় কংগ্রেস। সিএজি-র প্রাক্তন আধিকারিক আর পি সিংএর বক্তব্যকে হাতিয়ার করে আজ মুরলী মনোহর যোশীকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়েছেন কংগ্রেস নেতা মনীশ তেওয়ারি। টুজি স্পেকট্রাম বণ্টন নিয়ে সংসদে আলোচনার দাবি তুলতে পারে ডিএমকে। উল্টোদিকে, এই ইস্যুতে কংগ্রেসকে এক ইঞ্চি জমিও যে ছাড়াতে নারাজ বিজেপি, তা আজ স্পষ্ট করে দিয়েছেন দলের মুখপাত্র নির্মলা সীতারামন।

টুজি ইস্যুতে কংগ্রেসের নিশানায় বিজেপি

টুজির স্পেকট্রাম বণ্টনের প্যানেল রিপোর্ট নিয়ে সিএজির প্রক্তন আধিকারিকের তোলা অভিযোগ বিজেপির কাছে বুমেরাং হয়ে উঠেছে বলে মনে করছেন কংগ্রেস সভানেত্রী সোনিয়া গান্ধী। বরিষ্ঠ বিজেপি নেতা মুরলী মনোহর যোশীর বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ নিয়ে আজ সংসদ চত্তরে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলে, সোনিয়া গান্ধী একথা জানান। যোশীর সমালোচনায় মুখ খুলেছেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী মনিষ তিওয়ারিও। "সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ, ২০১০-এর মে মাসে আর পি সিং যখন রিপোর্ট প্রস্তুত করেন, তখন ক্ষতির পরিমান ছিল ২০ হাজার ৬৪৫  কোটি টাকা। আর সেই বছর নভেম্বর মাসে সংসদে রিপোর্ট পেশ করার সময় তা দেখানো হয় ১ লক্ষ ৭৬ হাজার কোটি টাকা", তিওয়ারি বলেন।

টুজি কান্ডে নয়া মোড়, প্রাক্তন ডিজির মন্তব্যে বিতর্কের ঝড়

টুজি কাণ্ডে সিএজি রিপোর্টকে ঘিরে ফের নতুন করে বিতর্ক তৈরি হল। স্পেকট্রাম নিয়ে সিএজি রিপোর্টে তাঁকে সই করতে বাধ্য করা হয়েছিল বলে অভিযোগ করলেন

সিএজির পোস্ট অ্যান্ড টেলিকমিউনিকেশনের প্রাক্তন ডিজি আর পি সিং। তাঁর অভিযোগ, রিপোর্টের তথ্য নিয়ে একমত না হলেও সিএজি সদর দফতরের ওই বিতর্কিত

রিপোর্টে তিনি সই করতে বাধ্য হন।