২০১২ সালের টেট বৈধ ছিল

২০১২ সালের টেট বৈধ ছিল

ভোটের মুখে হাইকোর্টের রায়ে স্বস্তিতে রাজ্য। ২০১২-র প্রথমিকে টেট পরীক্ষা বৈধ। রায় হাইকোর্টের। স্বস্তিতে চাকরিরত ১৮ হাজার সফল পরীক্ষার্থীও। তবে রায়ে ক্ষুব্ধ মামলাকারীরা। ডিভিশন বেঞ্চে যাচ্ছেন তাঁরা।

শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষার জটিলতা কাটাতে এবার বিকল্প পথে শিক্ষা দফতর শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষার জটিলতা কাটাতে এবার বিকল্প পথে শিক্ষা দফতর

নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেনী পর্যন্ত শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষার জটিলতা কাটাতে এবার বিকল্প পথে হাঁটার কথা ভাবছে শিক্ষা দফতর। সেক্ষেত্রে ট্রেনিং প্রাপ্তদের নিয়েই এই পরীক্ষা করার ভাবনা শিক্ষা দফতরের।কারণ, অপ্রশিক্ষিতদের  নিয়োগ করা যাবে না বলে ইতিমধ্যেই রাজ্য সরকারকে জানিয়ে দিয়েছে এনসিটিই। নবম থেকে দ্বাদশ শ্রেনীর শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষায় প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত ও প্রসিক্ষণহীন- উভয়ই বসতে পারবে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছিল স্কুল শিক্ষা দফতর। কিন্তু সেই সিদ্ধান্তে বাধ সাধে এনসিটিই।

এবার নিয়োগ সংক্রান্তে এন সি টি ই-র কাছে সুর নরম রাজ্য সরকারের এবার নিয়োগ সংক্রান্তে এন সি টি ই-র কাছে সুর নরম রাজ্য সরকারের

এন সি টি ই কে চ্যালেঞ্জ করার পর এবার সেই এন সি টি ই-র কাছেই সুর নরম করে আবেদন করল রাজ্য। নবম থেকে  দ্বাদশ শ্রেনী পর্যন্ত শিক্ষক নিয়োগের ক্ষেত্রে প্রশিক্ষনে ছাড় চেয়ে  এন সি টি ই কে চিঠি পাঠাল শিক্ষা দফতর। প্রশিক্ষিত প্রার্থীর অভাবের জন্য এই প্রশিক্ষণহীনদেরও নিয়োগের আবেদন জানিয়েছে রাজ্য।

দূরশিক্ষার মাধ্যমে বি এড সমস্যা মেটাতে উদ্যোগী রাজ্য সরকার

বি এড ট্রেনিং নেই, এমন শিক্ষকদের সমস্যা মেটাতে এবার দূরশিক্ষার মাধ্যমে বিএড ট্রেনিং ব্যবস্থা চালু করার সিদ্ধান্ত

নিল রাজ্য সরকার। এবিষয়ে নির্দিষ্ট অনুমতির জন্য রাজ্যের তরফে ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর টিচার্স এডুকেশন কাছে

আবেদন করতে চলেছে সরকার। রাজ্যে এই মুহুর্তে প্রায় ২৯ হাজার কর্মরত শিক্ষক শিক্ষিকা আছেন, যাদের বি এড

ট্রেনিং নেই। তার ওপর এবছর যারা স্কুল সার্ভিসের মাধ্যমে নিয়োগপত্র পাবেন তাঁদেরও একটা বড় অংশের বি এড

ট্রেনিং থাকবে না।

খুলতে চলেছে বন্ধ হয়ে যাওয়া পিটিটিআই

ফের খুলতে চলেছে রাজ্যের প্রায় ১৫ টি সরকারি পিটিটিআই। ২ বছরের চেষ্টায় এই শিক্ষাবর্য থেকেই ক্লাস শুরু হবে এইসব পিটিটিআই-এ। নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে বিভিন্ন শর্তপূরণের আশ্বাস পাওয়ার পরেই ন্যাশনাল কাউন্সিল ফর টিচার্স এডুকেশন এই পিটিটিআইগুলিকে স্বীকৃতি দিচ্ছে।