মালেগাঁও বিস্ফোরণ কাণ্ডে সাধ্বী প্রজ্ঞাকে ক্লিন চিট এনআইএর

মালেগাঁও বিস্ফোরণ কাণ্ডে সাধ্বী প্রজ্ঞাকে ক্লিন চিট এনআইএর

মালেগাঁও বিস্ফোরণকাণ্ড এবার নতুন মোড় নিল। সাধ্বী প্রজ্ঞা সিং ঠাকুর সহ ৪ অভিযুক্তের উপর থেকে অভিযোগ তুলে নিল এনআইএ। ফলে সাধ্বী প্রজ্ঞা সহ এই ঘটনায় মুল অভিযুক্ত ৪ জন মুক্তি পেতে চলেছেন বলে মনে করা হচ্ছে। তবে কর্নেল পুরোহিতের উপর এখনও সন্ত্রাসবাদ বিরোধী আইন ও ভারতীয় দণ্ডবিধির অন্যান্য ধারায় অভিযোগ তোলা হয়নি। সাধ্বী প্রজ্ঞা ও কর্নেল শ্রীকান্ত পুরোহিত ছাড়া যে অভিযুক্তরা ছাড়া পেতে পারেন বলে মনে করা হচ্ছে, তাঁরা হলেন শ্যাম ভাবারলাল সাহু, শিবনারায়ণ কালসাংরা ও প্রবীণ তাক্কালকি।

উত্তরপ্রদেশের বিজনৌরে দুষ্কৃতীদের গুলিতে নিহত কেন্দ্রীয় তদন্তকারি সংস্থার এক অফিসার উত্তরপ্রদেশের বিজনৌরে দুষ্কৃতীদের গুলিতে নিহত কেন্দ্রীয় তদন্তকারি সংস্থার এক অফিসার

উত্তরপ্রদেশের বিজনৌরে দুষ্কৃতীদের গুলিতে প্রাণ হারালেন কেন্দ্রীয় তদন্তকারি সংস্থার এক অফিসার।

গ্রেফতার আইসিস সদস্য আশিক আহমেদ গ্রেফতার আইসিস সদস্য আশিক আহমেদ

অবশেষে গ্রেফতার করা হল বর্ধমানের কাঁকসার বেসরকারি পলিটেকনিক ছাত্র আশিক আহমেদকে। আইসিস সদস্য আশিককে জেরা করে মিলেছে একাধিক চাঞ্চল্যকর তথ্য। রাজ্যে জঙ্গি প্রশিক্ষণ শিবির তৈরির পরিকল্পনা ছিল আইসিসের।

JNU কাণ্ডে NIA তদন্তের আর্জি খারিজ দিল্লি হাইকোর্টে JNU কাণ্ডে NIA তদন্তের আর্জি খারিজ দিল্লি হাইকোর্টে

JNU কাণ্ডে NIA তদন্তের আর্জি খারিজ করে দিল দিল্লি হাইকোর্ট। দেশদ্রোহিতার অভিযোগে  কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার হস্তক্ষেপ চেয়ে মামলা হয়েছিল দিল্লি হাইকোর্টে। কিন্তু মামলাটি গ্রহণ করার জায়গায় নেই মনে করে, তা খারিজ করে দিয়েছেন বিচারক। জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান অবস্থার প্রতিকার চেয়ে আজ প্রশাসনিক ভবন পর্যন্ত মিছিল করবেন অধ্যাপকরা। তারপর তাঁরা উপাচার্যের সঙ্গে দেখা করবেন। JNU কাণ্ডে গতকাল পাতিয়ালা হাউস কোর্টে দুটি পৃথক মামলা দায়ের হয়েছে।

 খাগড়াগড় বিস্ফোরণ কাণ্ডে ছয় অভিযুক্তের খোঁজে তল্লাসি চালাচ্ছে এনআইএ খাগড়াগড় বিস্ফোরণ কাণ্ডে ছয় অভিযুক্তের খোঁজে তল্লাসি চালাচ্ছে এনআইএ

খাগড়াগড় বিস্ফোরণ কাণ্ডে ছয় অভিযুক্তের খোঁজে তল্লাসি চালাচ্ছে এনআইএ। ছয়জনের মধ্যে রয়েছে, কাদর গাজি, ইউসুফ শেখ, বোরহান শেখ, জহিরুল ইসলাম ও তুহিন। গোয়েন্দাদের সূত্রের খবর,  বেশকিছু অনুষ্ঠানে পরিবারের সঙ্গে লুকিয়ে দেখাও করেছে তারা। কখনও-সখনও ছদ্মবেশে গ্রামের বাড়িতে নিয়মিত যাতায়াত করছে এদের কেউ কেউ। বিভিন্ন সূত্র থেকে এমনই তথ্য এসেছে বলে দাবি তদন্তকারি সংস্থা এনআইয়ের। যেসব অভিযুক্তরা এখনও অধরা তাদের মধ্যে তিনজন বর্ধমান এবং তিনজন বীরভূম জেলার বাসিন্দা। তাই দুটি জেলার ওপরেই বিশেষ নজর দেওয়া হচ্ছে। অভিযুক্তদের সনাক্ত করতে যেসব জায়গায় তারা গা ঢাকা দিতে পারে সেই সব এলাকায় ছয় অভিযুক্তের ছবিও পোস্টারে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে এনআইএ।

পাঠানকোট হামলার তথ্যপ্রমাণ যাচাইয়ের জন্য পাঞ্জাবের ৩ জেলায় এনআইএর ক্যাম্প পাঠানকোট হামলার তথ্যপ্রমাণ যাচাইয়ের জন্য পাঞ্জাবের ৩ জেলায় এনআইএর ক্যাম্প

পাঠানকোট কাণ্ডে দ্রুত তদন্তের জাল গোটাচ্ছে এনআইএ। ইতিমধ্যেই নিহত জঙ্গিদের ময়নাতদন্ত হয়েছে পাঠানকোট সিভিল হাসপাতালে। ডিএনএ নমুনার জন্য তাদের শরীরের কোষ সংরক্ষণ করা হয়েছে। জঙ্গিদের ব্যবহৃত দুটি গাড়ি থেকেও ডিএনএ নমুনা সংগ্রহ করে ফরেনসিক পরীক্ষার জন্য পাঠানো হয়েছে। বামিহাল গ্রাম থেকে জঙ্গিদের সম্ভাব্য পায়ের ছাপ সংগ্রহ করে ফরেনসিক ল্যাবরেটরিতে পাঠিয়েছে এনআইএ। তদন্তের স্বার্থে জঙ্গিদের ব্যবহৃত সমস্ত অস্ত্রশস্ত্র সংগ্রহ করা হয়েছে। এছাড়াও নানা খাদ্যদ্রব্য এবং জঙ্গিদের ব্যবহৃত ওষুধও সংগ্রহ করেছেন গোয়েন্দারা। জিজ্ঞাসাবাদের জন্য এসপি সলবিন্দর সিংকে আগামী সোমবার এনআইএর সদর দফতরে ডেকে পাঠানো হয়েছে। সমস্ত তথ্যপ্রমাণ যাচাইয়ের জন্য পাঞ্জাবের তিনটি জেলায় ক্যাম্প করেছে এনআইএ।

 আইএসআই-এর চরচক্র ফাঁসের তদন্তভার নিতে পারে এনআইএ আইএসআই-এর চরচক্র ফাঁসের তদন্তভার নিতে পারে এনআইএ

ISI-র চরচক্র ফাঁসের তদন্তভার নিতে পারে NIA। তদন্তে সহযোগিতা করবে প্রধানমন্ত্রীর দফতরও। গার্ডেনরিচ শিপ ইয়ার্ডে কাজ করতে করতেই ভারতীয় নৌসেনার বহু তথ্য ইতিমধ্যে পাকিস্তানে পাচার করে ইরশাদ। তদন্তের পর এমনই খবর পেয়েছেন গোয়েন্দারা।

 ১৪ দিনের জন্য এনআইএ হেফাজতে নাভেদ ১৪ দিনের জন্য এনআইএ হেফাজতে নাভেদ

১৪ দিনের জন্য এনআইএ হেফাজত হল উধমপুর থেকে ধৃত পাক জঙ্গি নাভেদ ইয়াকুবের। 

 শ্রীনগরের পেট্রল পাম্পে ঘাঁটি গড়ার চেষ্টায় লস্কর, জেরায় কবুল নাভেদের  শ্রীনগরের পেট্রল পাম্পে ঘাঁটি গড়ার চেষ্টায় লস্কর, জেরায় কবুল নাভেদের

পাক জঙ্গি নাভেদকে জেরা করে উঠে এল চাঞ্চল্যকর তথ্য। যে জঙ্গি ক্যাম্প থেকে ২০০৮ সালের মুম্বই হামলার মাস্টারমাইন্ড জাকি-উর-রহমান লখভিকে গ্রেফতার করা হয়েছিল সেখানেই  ট্রেনিং দেওয়া হয়েছিল মহম্মদ নাভেদকে।

জামাত-উদ-দাওয়া প্রধান হাফিজ সইদের পরিবারের ওপরেই নিষেধাজ্ঞা চায় ভারত জামাত-উদ-দাওয়া প্রধান হাফিজ সইদের পরিবারের ওপরেই নিষেধাজ্ঞা চায় ভারত

বাবা মূর্তিমান আতঙ্ক। ছেলেও কম যায় না। জামাত-উদ-দাওয়া প্রধান হাফিজ সইদের পুরো পরিবারের ওপরেই নিষেধাজ্ঞা চায় ভারত। তার জন্য রাষ্ট্রসংঘে আবেদনের ভাবনাচিন্তা চলছে দিল্লিতে। এবিষয়ে নথি তৈরির কাজও শুরু করে দিয়েছে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রক।

মণিপুর হামলা: মূল চক্রীকে গ্রেফতার করল এনআইএ মণিপুর হামলা: মূল চক্রীকে গ্রেফতার করল এনআইএ

চলতি মাসের ৪ তারিখ মণিপুরে সেনা কনভয়ের উপর হামলার মূল চক্রী ন্যাশনল সোশ্যালিস্ট কাউন্সিল অফ ন্যাগাল্যান্ড-খাপলংয়ের কমান্ডরকে গ্রেফতার করল এনআইএ।

হাসিনা সরকারকে উত্‍খাত করে বৃহত্তর বাংলাদেশ গঠন চেয়েছিল জামাত, খাগড়াগড় বিস্ফোরণে চার্জশিটে বিস্ফোরক তথ্য হাসিনা সরকারকে উত্‍খাত করে বৃহত্তর বাংলাদেশ গঠন চেয়েছিল জামাত, খাগড়াগড় বিস্ফোরণে চার্জশিটে বিস্ফোরক তথ্য

হাসিনা সরকারকে উত্খাত করে এরাজ্যের সীমান্তবর্তী এলাকা নিয়ে বৃহত্তর বাংলাদেশ গঠন করতে চাইছিল জামাত-উল-মুজাহিদিন।

ভারতের মাটিতে শেখ হাসিনাকে খুনের ছক, বাংলাদেশের দাবি মানতে নারাজ এনআইএ ভারতের মাটিতে শেখ হাসিনাকে খুনের ছক, বাংলাদেশের দাবি মানতে নারাজ এনআইএ

ভারতের মাটি ব্যবহার করে শেখ হাসিনাকে খুনের ছক কষছিল জেএমবি। বাংলাদেশের গোয়েন্দাদের এই দাবি মানতে নারাজ এনআইএ। ৩১ মার্চ খাগড়াগড়কাণ্ডে প্রথম চার্জশিট জমা দিচ্ছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। চার্জশিট

খাগরাগড় বিস্ফোরণ কাণ্ডে রাজ্যের তিন জেলা থেকে গ্রেফতার আরও ৪ খাগরাগড় বিস্ফোরণ কাণ্ডে রাজ্যের তিন জেলা থেকে গ্রেফতার আরও ৪

বর্ধমান বিস্ফোরণ কাণ্ডে গ্রেফতার আরও চার। রাজ্যের তিন জেলা থেকে গতকালই মোট চার জঙ্গিকে গ্রেফতার করল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা NIA. ধৃতরা হলেন ডালিম শেখ, মতিউর রহমান, হাবিবুর রহমান, গিয়াসুদ্দিন মুন্সী।  মঙ্গলবার মুর্শিদাবাদ থেকে গ্রেফতার করা হয় হাবিবুর রহমানকে। ডালিম শেখকে ধরা হয় বীরভূম থেকে। মতিউর রহমান ও জিয়াকুদ্দিনকে নদিয়া জেলা থেকে গ্রেফতার করা হয়  ।

বর্ধমানকাণ্ডে অন্যতম অভিযুক্ত রেজাউল করিমকে গ্রেফতার করল NIA বর্ধমানকাণ্ডে অন্যতম অভিযুক্ত রেজাউল করিমকে গ্রেফতার করল NIA

খাগড়াগড় বিস্ফোরণকাণ্ডে অন্যতম মূল অভিযুক্ত রেজাউল করিমকে গ্রেফতার করল এনআইএ। ঝাড়খণ্ডের সাহেবগঞ্জ থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। রেজাউলের খবর দিতে পারলে তিন লক্ষা টাকা পুরস্কার দেওয়া হবে, এই মর্মে আগেই ঘোষণা করেছিলেন এনআইএ কর্তারা।