জয় দিয়ে আইলিগ অভিযান শুরু করল ইস্টবেঙ্গল

জয় দিয়ে আইলিগ অভিযান শুরু করল ইস্টবেঙ্গল

জয় দিয়ে আইলিগ অভিযান শুরু করল ইস্টবেঙ্গল। অ্যাওয়ে ম্যাচে স্পোর্টিং ক্লুব দ্য গোয়াকে তিন-এক গোলে হারিয়ে দিল বিশ্বজিত্ ভট্টাচার্যের গোল। জোড়া গোল করে ম্যাচের নায়ক র‍্যান্টি মার্টিন্স। একটি গোল করেন বিকাশ জাইরু। স্পোর্টিংয়ের হয়ে গোল করেন ওডাফা। অন্যদিকে, সোনির কলকাতায় আসা আরও পিছল। ফলে সালগাঁওকর ম্যাচেও অনিশ্চিত সোনি নর্দি।  হাইতিয়ান তারকার কলকাতায় পৌছতে বুধবার অথবা বৃহস্পতিবার হয়ে যেতে পারে।  আই লিগের নিয়মানুয়ায়ী ম্যাচের আটচল্লিশ ঘণ্টা আগে রেজিস্ট্রেশন করাতে হয়। অনুশীলনে না দেখে মোহনবাগান কোচ কারও নামে রেজিস্ট্রশন করাতে নারাজ। ফলে বড়ম্যাচেই হয়ত মোহনবাগান জার্সিতে প্রথমবার খেলতে দেখা যাতে পারে সোনিকে।

স্পোর্টিং ম্যাচ দিয়ে আইলিগ অভিযান শুরু করছে ইস্টবেঙ্গল স্পোর্টিং ম্যাচ দিয়ে আইলিগ অভিযান শুরু করছে ইস্টবেঙ্গল

স্পোর্টিং ম্যাচ দিয়ে আইলিগ অভিযান শুরু করছে ইস্টবেঙ্গল। আরব সাগর তিরে প্রথম ম্যাচে ওকোলি ওডাফাকে সামলানোর চ্যালেঞ্জ লালহলুদের সামনে। ইস্টবেঙ্গল-স্পোর্টিং লড়াইয়ে সবার নজর ওডাফা-র‍্যান্টির দ্বৈরথের দিকে। সুপার সান্ডেতে গোয়ায় স্পোর্টিং ক্লুবের বিরুদ্ধে ম্যাচ দিয়ে আই লিগের অভিযান শুরু করছে ইস্টবেঙ্গল। আরব সাগর তিরে প্রথম ম্যাচে ওকোলি ওডাফাকে সামলানোর চ্যালেঞ্জ লালহলুদের সামনে। আই লিগে স্পোর্টিং মশাল বাহিনীর সামনে বরাবরই শক্ত গাঁট। সাম্প্রতিক অতীতে স্পোর্টিংয়ের থেকে পয়েন্ট কাড়তে বারবার বেগ পেতে হয়েছে ইস্টবেঙ্গলকে। অতীতের ট্র্যাক থেকে শিক্ষা নিয়ে সাবধানে পা ফেলতে চান বিশ্বজিত ভট্টাচার্য। গোয়ার মাটিতে স্পোর্টিং গাঁট ছাড়াতে মরিয়া লালহলুদ ব্রিগেড।

বাগান ছেড়ে ওডাফা সই করলেন পুরনো ক্লাব চার্চিলে

কথা আগেই চূড়ান্ত হয়ে গেছিল। রবিবার চার্চিলের চুক্তিপত্রে সই করে ফেললেন ওকেলি ওডাফা। নাইজেরীয় গোলমেশিনের সঙ্গে তিন বছরের চুক্তি হয়েছে গোয়ার এই ক্লাবটির। তবে মোহনবাগানের থেকে অনেক কম টাকায় চার্চিলে খেলতে হচ্ছে ওকেলি ওডাফাকে। এমনকি শোনা যাচ্ছে প্রথম বছরে এক কোটি টাকার কম টাকার কমে খেলবেন তিনি। চার্চিল ছেড়েই মোহনবাগানে যোগ দিয়েছিলেন ওডাফা।

ওডাফা-রন্টি সমান সমান, করিম এখনও ছন্দের খোঁজে

ঘরোয়া লিগে ইউনাইটেড স্পোর্টসের কাছে আটকে গেল মোহনবাগান। ওডাফা আর র‍্যান্টির দ্বৈরথ শেষ হল গোলশূন্যভাবে। মরসুমের প্রথম ডার্বির মহড়া হিসাবেই ইউনাইটেড ম্যাচকে দেখেছিলেন মোহনবাগান কোচ করিম। তাই ওডাফাকে শুরু থেকেই খেলান তিনি।

অবশেষে অগ্রিম পেয়ে ওডাফা ফিরছেন বাড়িতে

মোহনবাগানের থেকে অগ্রিম না পাওয়ায় প্রায় একমাস কলকাতায় বসে থাকতে হল ওডাফা ওকেলিকে। অবশেষে বুধবার বাড়ি ফিরতে চলেছেন মোহনবাগানের তারকা গোলমেশিন। তেইশে মে ইস্টবেঙ্গলের  বিরুদ্ধে গত মরসুমের শেষ ম্যাচ খেলেছিলেন নাইজেরীয় গোলমেশিন। তার সতীর্থ তো বটেই অন্যান্য দলের বিদেশিরা সবাই দেশে ফিরে গেছেন। কিন্তু আর্থিক সমস্যা থাকায় ওডাফার চাহিদামত টাকা মেটাতে পারছিলেন না মোহনবাগান কর্তারা।

মরগ্যানের বিদায়ী ম্যাচে ডার্বি জয় উপহার দিতে মরিয়া লাল-হলুদ শিবির

আজ ডার্বি ম্যাচ দিয়ে শেষ হচ্ছে ফুটবল মরসুম। তার সঙ্গে আজই ইস্টবেঙ্গলে শেষ হচ্ছে ট্রেভর জেমস মরগ্যান জমানা। ডার্বি ম্যাচই ইস্টবেঙ্গল কোচ হিসাবে মরগ্যানের শেষ ম্যাচ। শেষ ম্যাচে মোহনবাগানকে হারিয়ে ঘরোয়া লিগ জয়ের হ্যাটট্রিকের সুযোগ মরগ্যানের দলের সামনে। লিগ খেতাব থেকে মাত্র এক পয়েন্ট দূরে লাল-হলুদ শিবির।

ওডাফার হ্যাটট্রিকে লক্ষ্মীবারের ডার্বি এখন মরণবাঁচন

মরসুমের শেষপর্বেও ওডাফা ম্যাজিক অব্যাহত। মোহনবাগান অধিনায়কের হ্যাটট্রিকের সৌজন্যে লিগের খেতাবি দৌড় জমিয়ে দিল করিম বেঞ্চিরিফার দল। রিপ্লে ম্যাচে কল্যাণীতে প্রয়াগ ইউনাইটেডকে ৩-০ গোলে হারাল সবুজ-মেরুন শিবির। এই জয়ের ফলে মোহনবাগানের পয়েন্ট হল সাত ম্যাচে ১৯। ফলে বৃহস্পতিবার যুবভারতীতে ডার্বি ম্যাচই হতে চলেছে লিগের ফাইনাল।

মোহনবাগানে ওডাফা থাকছেন, আদিল আসছেন

বাজেট সমস্যায় দল গড়তে নেমে বিপাকে মোহনবাগান কর্তারা। কয়েকদিন আগে ক্লাব সচিবের বাড়িতে কর্মসমিতির গুরুত্বপূর্ণ বৈঠক হয়েছিল। সেখানে অধিকাংশ কর্তাই জানিয়ে দেন যে ব্যক্তিগতভাবে দলগঠনের জন্য টাকা দেওয়া সম্ভব নয়। যদিও সভাপতি টুটু বসু দলগঠনের জন্য সাহায্য করার আশ্বাস দেন। সীমিত বাজেটের মধ্যে কোচ করিমের সঙ্গে কথা বলে কর্তারা একটা দল মোটামোটি তৈরি করেছেন।

ওডাফা-টোলগের ইগো সামলেই বাজিমাত করিমের

মরসুমের প্রথম টুর্নামেন্টের প্রথম ম্যাচের পরই শুরু হয় দুই নায়কের ইগোর লড়াই। টোলগে-ওডাফার মন কষাকষি নিয়ে সরগরম ছিল গোটা ময়দান। আর এই লড়াই ধামাচাপ দিতে ব্যর্থ হওয়ায় চাকরি যায় কোচ সন্তোষ কাশ্যপের। বাগানের সংসারে করিম আসার পর এই দুই তারকাকে নিপুন হাতে সামলানোই ছিল মরক্কোন কোচের একমাত্র চ্যালেঞ্জ। কখনও চোট,কখনও কার্ড, কখনও অসুস্থ হওয়ার জন্য টোলগে-ওডাফাকে একসঙ্গে পাচ্ছিলেন না কোচ করিম।

ওডাফা, টোলগেদের গোল খিদেয় কাঙাল স্পোর্টিং

গোয়ায় আছড়ে পড়ল মোহনবাগান সুনামি। সেই সুনামিতে ভেসে গেল স্পোর্টিং ক্লাব দ্য গোয়া। আই লিগে অবনমন বাঁচানোর চ্যালেঞ্জে নেমে জ্বলে উঠল করিম বেঞ্চারিফার দল। মাপুসার দুলের স্টেডিয়ামে ওডাফার দুরন্ত হ্যাটট্রিকে ভর করে মোহনবাগান জিতল ৫-১ গোলে। ওডাফার হ্যাটট্রিকের পাশাপাশি জোড়া গোল করলেন টোলগে।

হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেন ওডাফা

বৃহস্পতিবার  হাসপাতাল থেকে ছাড়া পেলেন ওডাফা। শিল্ড সেমিফাইনালের পরের দিন ভাইরাল ফিভারে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন ওডাফা। মোহনবাগানের আই লিগে পরের ম্যাচ রবিবার।

মোহনবাগানকে হারিয়ে শিল্ড ফাইনালে ইস্টবেঙ্গল

নমস্কার যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গন থেকে আপনাকে স্বাগত। আইএফএ শিল্ডের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে মুখোমুখি মোহনাবাগান-ইস্টবেঙ্গল। সেই ম্যাচের লাইভ আপডেট--

দলকে জেতানোর শপথ নেওয়ালেন করিম

ডার্বি ম্যাচের চব্বিশ ঘণ্টা আগেই ইস্টবেঙ্গলের কাটাছেঁড়া সেরে ফেললেন মোহনবাগান কোচ। মরগ্যানের দলের ভূয়সী প্রশংসা করেও মরোক্কান কোচ জানিয়ে দিলেন, পরিকল্পনা করে খেললে আটকে দেওয়া যায় চিডি-বোরিসিচদের।

নির্বাসন পরবর্তী প্রথম জয়ে স্বস্তিতে মোহনবাগান

স্বস্তি ফিরল সবুজ-মেরুন শিবিরে। নির্বাসন উঠে যাওয়ার পর আই লিগে প্রথম জয় পেল মোহনবাগান। কল্যাণীতে সন্তোষ কাশ্যপের ওএনজিসিকে তিন-এক গোলে হারিয়ে দিলেন ওকেলি ওডাফারা। এই জয়ের পর মোহনবাগানের পয়েন্ট হল চার ম্যাচে পাঁচ। আই লিগে মোহনবাগানের পরের ম্যাচ চিরপ্রতিন্দন্দ্বী ইস্টবেঙ্গলের বিরুদ্ধে।

শাস্তি বেড়ে তিন ম্যাচ নির্বাসিত ওডাফা

ডার্বি কাণ্ডের জের। বাড়তি এক ম্যাচ নির্বাসিত হলেন ওকেলি ওডাফা। বাড়তি এক ম্যাচ নির্বাসিত করার পাশাপাশি দেড় লক্ষ টাকা জরিমানাও করা হয়েছে তাঁকে। নয়ই ডিসেম্বর বিতর্কিত ডার্বি ম্যাচে ওডাফা লালকার্ড দেখার পর মাঠে গণ্ডগোল ছড়িয়ে পড়ে। দর্শকদের ছোঁড়া ইঁটের আঘাতে আহত হয়েছিলেন রহিম নবি। রেফারি আর ম্যাচ কমিশনারের রিপোর্টে অভিযুক্ত হয়েছিলেন মোহনবাগান অধিনায়ক। এমনকি বিচারপতি অশোক কুমার গাঙ্গুলিও তার রিপোর্টে ওডাফার আচরণ সঠিক ছিল না বলে জানিয়েছিলেন।

কাল ভাগ্যপরীক্ষা ওডাফার, কিছুটা বাড়তে পারে শাস্তি

সোমবার ফেডারেশনের শৃঙ্খলারক্ষা কমিটির সামনে বসতে চলেছেন মোহনবাগানের নাইজেরীয় গোলমেশিন ওকেলি ওডাফা।নয়ই ডিসেম্বরের বিতর্কিত ডার্বিতে অধিনায়ক ওডাফার লালকার্ড দেখার পর থেকেই যাবতীয় গন্ডগোল শুরু হয়েছিল। বিচারপতি অশোক কুমার গাঙ্গুলির রিপোর্টেও ছিল যে মাঠে ওডাফার আচরণ সঠিক ছিল না। সেইমতই ফেডারেশন সচিব শোকজ করেন ওডাফাকে। তার পরবর্তীধাপে শৃঙ্খলারক্ষা কমিটির সামনে বসতে চলেছেন মোহনবাগানের সেরা তারকা।