শিক্ষা দফতরের কমিটিকে 'না' যাদবপুরের পড়ুয়াদের, প্রশ্ন উঠছে কমিটির নিরপেক্ষতা নিয়ে শিক্ষা দফতরের কমিটিকে 'না' যাদবপুরের পড়ুয়াদের, প্রশ্ন উঠছে কমিটির নিরপেক্ষতা নিয়ে

কাজ শুরুর আগেই বিতর্কে জড়াল যাদবপুর কাণ্ডে শিক্ষা দফতরের কমিটি। ছাত্রীর যৌন নিগ্রহের তদন্তে আজই পাঁচ সদস্যের কমিটি গড়েছে শিক্ষা দফতর। কমিটির নিরপেক্ষতা নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন ছাত্রছাত্রীরা। আঙুল তুলেছেন, কমিটির সদস্যদের তৃণমূল ঘনিষ্ঠতার দিকে। রাজ্যের দ্বারস্থ হয়েছেন খোদ নির্যাতিতা। তাই যৌন নিগ্রহের নিরপেক্ষ তদন্তের সিদ্ধান্ত নিয়েছে শিক্ষা দফতর। পাঁচ সদস্যের কমিটি তৈরির কারণ হিসেবে সোমবার এই যুক্তিই দিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী। বাহাত্তর ঘণ্টার মধ্যে কমিটিকে রিপোর্ট পেশ করতে অনুরোধ করেছেন তিনি।  

মহামিছিলে গর্জে উঠল শহর কলকাতা, উপাচার্যের পদত্যাগ না করা পর্যন্ত চলবে 'হোক কলোরব' মহামিছিলে গর্জে উঠল শহর কলকাতা, উপাচার্যের পদত্যাগ না করা পর্যন্ত চলবে 'হোক কলোরব'

রাজ্যপালের অনুরোধে সোমবার দুপুর পর্যন্ত আন্দোলন স্থগিত রাখলেন যাদবপুরের ছাত্রছাত্রীরা। তবে, উপাচার্যকে সরানো না হলে আন্দোলন যে আরও বৃহত্তর আকার নেবে তাও রাজ্যপালকে জানিয়ে এলেন আট সদস্যের প্রতিনিধিদল। ছাত্রদের দাবি, রাজ্যপাল কথা দিয়েছেন তাঁদের সমস্ত বক্তব্য বিবেচনা করবেন। তবে, আন্দোলন স্থগিত থাকলেও ক্লাস, বয়কটের সিদ্ধান্তে কিন্তু এখনও অনড় ছাত্রছাত্রীরা।নন্দন থেকে রাজভবন। ঝমঝম বৃষ্টি যেন জনসুনামি হয়ে আছড়ে পড়ল রাজপথে। স্লোগান আর  গানে এ যেন এক অন্য মহানগর। বৃষ্টির সঙ্গে তাল মিলিয়ে বেড়েছে মিছিল। চেনা-অচেনার গণ্ডি ছেড়ে রাজপথের ঠিকানা যেন তখন কেয়ার অফ মেয়ো রোড।

যাদবপুরে লাঠি চলেনি, দাবি পুলিস কমিশনারের, পুলিস কমিশনারের বিরুদ্ধে মিথ্যে বলার অভিযোগ পড়ুয়াদের যাদবপুরে লাঠি চলেনি, দাবি পুলিস কমিশনারের, পুলিস কমিশনারের বিরুদ্ধে মিথ্যে বলার অভিযোগ পড়ুয়াদের

যাদবপুরে পুলিস লাঠি চালায়নি। দাবি করলেন কলকতা পুলিস কমিশনার। মিথ্যে বলছেন সুরজিৎ করপুরকায়স্থ। উল্টো অভিযোগ আনলেন ক্ষুব্ধ ছাত্র-ছাত্রীরা। যাদবপুর-কাণ্ডে ছাত্রছাত্রীদের বিরুদ্ধে পাল্টা অভিযোগ করল কলকাতা পুলিস। ফেসবুকে কলকাতা পুলিসের তরফে বলা হয়েছে, উপাচার্য ও অধ্যাপিকাদের উদ্ধারে পুলিসকর্মীরা গেলে ছাত্রছাত্রীরা তাঁদের ঢুকতে বাধা দেন। পুলিস ন্যূনতম শক্তি প্রয়োগ করলে ছাত্রছাত্রীরা আক্রমণ করেন। হাতাহাতিতে দু-পক্ষের কয়েকজন আহত হন বলে ফেসবুক পোস্টে জানিয়েছে কলকাতা পুলিস।