টেটের প্রশ্নপত্র উধাওয়ের দায় ডাক বিভাগের ওপর চাপালেন পার্থ, শিক্ষামন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি অধীরের

টেটের প্রশ্নপত্র উধাওয়ের দায় ডাক বিভাগের ওপর চাপালেন পার্থ, শিক্ষামন্ত্রীর পদত্যাগ দাবি অধীরের

উধাও প্রাথমিকের টেট পরীক্ষার এক বস্তা প্রশ্নপত্র।  ফলে টেটের প্রশ্ন ফাঁসের আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। গতকালই এই ঘটনা প্রকাশ্যে আসে । প্রশ্নপত্র বিলির সময়েই এই ঘটনা বলে মনে করা হচ্ছে।

জয়েন্টের প্রশ্নে নাকাল পরীক্ষার্থীরা

বাংলায় পরীক্ষা দেওয়ার জন্য ফর্ম ফিলাপ করেছিল। কিন্তু প্রশ্নপত্র এল ইংরাজিতে। শেষপর্যন্ত বহু প্রশ্নের উত্তর না দিয়েই পরীক্ষার হল ছাড়তে বাধ্য হলেন পরীক্ষার্থীরা। এবছরের মেডিক্যালের অভিন্ন প্রবেশিকা পরীক্ষায় এমনই সমস্যার মুখে পড়তে হল এরাজ্যের বহু পরীক্ষার্থীকে। দমদমের কেন্দ্রীয় বিদ্যালয়ে এবছরের জয়েন্টের মেডিক্যালের অভিন্ন প্রবেশিকা পরীক্ষার সিট পড়েছিল রবিবার। সকাল দশটায় শুরু হয় পরীক্ষা। কিন্তু পরীক্ষা শুরু হতেই ছাত্রছাত্রীদের একটা বড় অংশ দেখেন তাদের ইংরাজি মাধ্যমের প্রশ্ন পত্র তুলে দেওয়া হয়েছে। ছাত্রছাত্রীদের দাবি, বাংলা মাধ্যমের প্রশ্নপত্রে পরীক্ষা দেওয়ার জন্যই তাঁরা ফর্ম পূরণ করেছিলেন।

রক্ষা পেল না মাধ্যমিকের অঙ্ক পরীক্ষাও

ভুল প্রশ্নের জেরে বিভ্রান্তির হাত থেকে রক্ষা পেল না মাধ্যমিকের অঙ্ক পরীক্ষাও। ৯`র-এ ও ১৪`র-এ দুটি প্রশ্ন ঘিরেই রীতিমত সমস্যায় পড়তে হয় পরীক্ষার্থীদের। একই প্রশ্ন বাংলা ও ইংরাজীতে দু রকম থাকায় বিভ্রান্তি ছড়ায়। যদিও পর্ষদ সভাপতির দাবি দুটি ভাষায় কেউ একই প্রশ্ন দেখে তারপর তার উত্তর করে না । 

ফের মাধ্যমিকের প্রশ্নপত্রে বিভ্রান্তি

বুধবার মাধ্যমিকের ইতিহাস পরীক্ষায় কম্পার্টমেন্টাল পরীক্ষার্থীদের প্রশ্নপত্রে দু`টি প্রশ্ন ঘিরে ছাত্রছাত্রীদের মধ্যে বিভ্রান্তি ছড়ায়। প্রথম প্রশ্নটি ছিল ১৭ নম্বর পাতায়। সেখানে ষোড়শ মহাজনপদের অন্তর্গত একটি গণ-রাজ্যের নাম জানতে চাওয়া হয়। অথচ ষোড়শ মহাজনপদে গণ-রাজ্যের অস্তিত্ব ছিল কিনা, তা নিয়ে শুরু হয়েছে বিতর্ক।

বাংলা প্রশ্নপত্রে সায় নেই এমসিআই-এর

মেডিক্যালে বাংলায় প্রশ্নপত্র হওয়ার সম্ভাবনা কম। পরিস্কার জানিয়ে দিল মেডিক্যাল কাউন্সিল অব ইন্ডিয়া। এমসিআই-এর পরিচালন কমিটির অন্যতম সদস্য অশোক গুপ্তা জানিয়েছেন, সিবিএসই বোর্ড বাঙলায় প্রশ্ন তৈরির বিষয়ে তাদের অনীহা জানিয়েছে।