রামজন্মভূমি সেমিনার ঘিরে উত্তাল দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস

রামজন্মভূমি সেমিনার ঘিরে উত্তাল দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস

রামজন্মভূমি সেমিনার ঘিরে বিক্ষোভে উত্তাল দিল্লি বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস। আজ সেমিনার শুরু দিনই বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ দেখায় কংগ্রেসের ছাত্র সংগঠন এনএসইউআই। অরুন্ধতী বশিষ্ঠ অনুসন্ধান পীঠের আয়োজিত ওই সেমিনারের প্রধান বক্তা সুব্রহ্মণ্যম স্বামী।  অশোক সিংঘাল প্রতিষ্ঠিত ওই সংগঠনের সেমিনার ঘিরে গত কদিন থেকেই উত্তপ্ত রাজধানীর শিক্ষামহল। শিক্ষাক্ষেত্রে গৈরিকিকরণের অভিযোগে শুক্রবারও বিক্ষোভ দেখায় আএসা, এসএফআই সহ বেশ কয়েকটি ছাত্র সংগঠন। বিক্ষোভে যোগ দেয় আম আদমি পার্টির ছাত্র-যুব সংঘর্ষ মঞ্চও।

অযোধ্যা যাত্রা রোখা যাবে না, হুঁশিয়ারি অশোক সিঙ্ঘলের

বিশ্ব হিন্দু পরিষদের কর্মসূচির জেরে থমথমে পরিস্থিতি অযোধ্যা ও ফৈজাবাদে। পরিষদের (ভিএইচপি) দুই শীর্ষনেতা অশোক সিঙ্ঘল ও প্রবীণ তোগাড়িয়াকে আজ গ্রেফতার করে পুলিস। অযোধ্যায় গ্রেফতার করা হয় প্রবীণ তোগাড়িয়াকে। লখনউ বিমানবন্দরে গ্রেফতার হন অশোক সিঙ্ঘল। বিজেপি নেতা সহ ভিএইচপি-র প্রায় পাঁচশো কর্মীকে গ্রেফতার করেছে উত্তরপ্রদেশ সরকার। 

বাবরি মসজিদ প্রসঙ্গে সিবিআই-এর সমালোচনায় শীর্ষ আদালত

বাবরি মসজিদ ধ্বংসের ঘটনাকে জাতীয় অপরাধ বলায় সিবিআইকে একহাত নিয়েছে দেশের সর্বোচ্চ আদালত। বৃহস্পতিবার বিচারপতি এইচ এল দত্ত ও বিচারপতি রঞ্জন গগৈয়ের ডিভিন বেঞ্চ জানিয়েছে, যেহেতু বিষয়টি বিচারাধীন এবং স্পর্শকাতর, তাই এখনই বাবরি মসজিদ ধ্বংসের ঘটনায় লালকৃষ্ণ আডবানী সহ বিজেপির অন্যান্য শীর্ষ নেতাদের ভূমিকাকে জাতীয় অপরাধের সঙ্গে যেন তুলনা না করা হয়। এই মর্মে সিবিআইয়ের আইনজীবী পিপি রাওকে নির্দেশ দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি এইচ এল দত্ত।

রক্তস্নানের বছর কুড়ি পর অযোধ্যার পথে

উনিশশো বিরানব্বইয়ের ৬ ডিসেম্বর। আজ থেকে ঠিক ২০বছর আগে ধুলোয় মিশেছিল গণতান্ত্রিক ভারতের ধর্ম

নিরপেক্ষতার অহংকার। ধর্মের জিগির তুলে অযোধ্যায় বহু শতাব্দী প্রাচীন এক ধর্মীয় স্থাপত্যকে ধুলোয় মিশিয়ে

দিয়েছিল কিছু উন্মাদ। ধর্মীয় আবেগকে কেন্দ্র করে জ্বলে ওঠা সেই আগুনে পুড়েছিল গোটা দেশ। তারপর কেটে

গিয়েছে দুটি দশক। পায়ে পায়ে হাজির আরেকটা ছই ডিসেম্বর। রক্তস্নানের ২০ বছর পর কেমন আছে অযোধ্যা?

অন্তর্দ্বন্দ্ব এড়াতে ফের রামমন্দিরে ফিরল বিজেপি

ভোট বড় বালাই! আর তাই জোট রাজনীতির দুর্বহ বাধ্যবাধকতা অতিক্রম করেই ফের হিন্দুত্বের লাইনে ফিরতে চলেছে বিজেপি! উত্তরপ্রদেশের বিধানসভা ভোটের জন্য দলের তরফে শুক্রবার যে নির্বাচনী ইস্তেহার প্রকাশ করা হয়েছে, তাতে সরাসরি অযোধ্যোয় রামমন্দির নির্মাণের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন গডকড়িরা।