২৬ বছরেই চেনা এক ক্রিকেটারকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে সরতে হচ্ছে হৃদযন্ত্রের সমস্যার কারণে!

২৬ বছরেই চেনা এক ক্রিকেটারকে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে সরতে হচ্ছে হৃদযন্ত্রের সমস্যার কারণে!

দেশের হয়ে দিব্যি শুরু করেছিলেন ক্রিকেট কেরিয়ার। কিন্তু মাত্র ২৬ বছর বয়সেই তাঁকে ক্রিকেটকে বিদায় জানাতে হল! আর সেটাও তাঁর হৃত্‍পিণ্ডের সমস্যার জন্য। এরকম হলে সেই ক্রিকেটার, তাঁর দেশ এবং ক্রিকেটের জন্যও খুব খারাপ থবর।

 যে চাকরি ছিল পাখির চোখ, সেটাই ছাড়তে চান দেশের ৬১ শতাংশ মানুষ! যে চাকরি ছিল পাখির চোখ, সেটাই ছাড়তে চান দেশের ৬১ শতাংশ মানুষ!

একটা চাকরি পাওয়ার জন্য দেশের যুবক-যুবতীরা নিজেদের নিংড়ে দেন। একটা চাকরিই তাঁদের ভবিষ্যত্‍ সুনিশ্চিত করতে পারে। কিন্তু জানেন কি, চাকরি ছাড়ার জন্যও মরিয়া হয়ে ওঠে মানুষ! এই ভারতেই। যে চাকরিটা ছিল দুর্মূল্য, সেই চাকরিটাই কেন ছাড়ার জন্য মানুষ এত উতলা হয়ে ওঠে! চাপ। কর্মজীবনের চাপটাই আর নিতে ভালো লাগে না, চাকুরিজীবীদের। এমনটাই বলছেন, সমাজতাত্ত্বিকরা।

সচিনের অবসরের সিদ্ধান্তের পিছনে বোর্ডের হাত!

তিনি সচিন তেন্ডুলকর তো কি!অবসরের সিদ্ধান্ত থাকবে আর ভারতীয় বোর্ডের হাত থাকবে না তাই কি হয়! ভারতীয় ক্রিকেটমহলে কান পাতলে এমন কথাই শোনা যাচ্ছে। কদিন আগেই এক সর্বভারতীয় প্রচারমাধ্যমে এক রিপোর্টে বলা হয়েছিল জাতীয় নির্বাচকমন্ডলীর প্রধান সন্দীপ পাতিল একান্ত বৈঠকে সচিনকে বলেন, ২০০ টেস্ট খেলার পরে অবসর নিতে।

অবসর ঘোষণা করে সচিনের পাশে মহেশ

অবসর নিচ্ছেন ভারতীয় টেনিস তারকা মহেশ ভূপতি। ২০১৩ সালের পরই টেনিসকে বিদায় জানাতে চলেছেন চ্যাম্পিয়ন এই টেনিস তারকা। নিজের কেরিয়ারে ইতিমধ্যেই ১২টি গ্র্যান্ডস্লাম জেতা হয়ে গেছে তাঁর। বর্ণময় টেনিস কেরিয়ারকে বিদায় জানাতে চলেছেন ভারতীয় টেনিস তারকা মহেশ ভূপতি। কলকাতায় এসে মহেশ জানান, ২০১৩ সালের পর তিনি অবসর নেবেন। তবে টেনিসকে বিদায় জানানোর আগে আরও একটা গ্র্যান্ডস্লাম জেতার ইচ্ছে রয়েছে ১২টি গ্র্যান্ডস্লামের মালিক ভূপতির।  

সচিনের হয়ে ব্যাট ধরলেন দ্রাবিড়

বেশ কিছুদিন ধরেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে সচিন তেন্ডুলকরের অবসর নিয়ে নানা জন নানা মত দিয়ে আসছিলেন। এবার মুখ খুললেন রাহুল দ্রাবিড়। তবে ব্যাট ধরলেন সচিনের হয়ে। তিনি পরিষ্কার জানিয়ে দিলেন সচিন বেশ ছন্দেই আছেন। অনায়াসে আরও কিছুদিন খেলা চালাতে পারবেন। দ্রাবিড় মনে করেন সচিন যতদিন  জাতীয় দলে থাকবেন ততদিন ভারতীয় ক্রিকেট উপকৃত হবে। কারন তরুণ ক্রিকেটাররা সচিনের কাছ থেকে অনেক কিছু শিখতে পারবে।

এখনই অবসর নয়, জানিয়ে দিলেন সচিন নিজেই

এখনই অবসর নেওয়ার কোন পরিকল্পনা নেই। জানিয়ে দিলেন সচিন তেন্ডুলকর। শনিবার দুপুরে রটে, সচিন শততম শতরান পেয়ে গেলেই একদিনের ক্রিকেট থেকে সরে দাঁড়াবেন। কিন্তু সচিন এসএমএস মারফত জানিয়ে দেন খবরটা ভিত্তিহীন।

দ্রাবিড় যুগের অবসান

টেস্ট থেকে অবসর নিলেন ভারতীয় ক্রিকেটের উপেক্ষিত চরিত্র রাহুল দ্রাবিড়। কিন্তু নতুন প্রজন্মের কাছে রেখে গেলেন চাপের মুখে দাঁতে দাত চেপে লড়াইয়ের মন্ত্র।

অবসরের অবকাশ নেই

দীর্ঘদিন থেকেই খারাপ ফর্মে আছেন। তাই দেশজুড়েই তাঁর উপর অবসরের চাপ বাড়ছে। তবে জল্পনা উড়িয়ে দিলেন প্রাক্তন অসি অধিনায়ক রিকি পন্টিং।