সজ্জন কুমারের শাস্তির দাবিতে সংসদের সামনে বিক্ষোভ

১৯৮৪-এর শিখ বিরোধী দাঙ্গায় একটি মামলায় কংগ্রেস নেতা সজ্জন কুমারকে বেকসুর খালাস করার প্রতিবাদে আজও উত্তাল দিল্লি। আজ সংসদ ভবনের কাছে করা নিরাপত্তা বেষ্টনীতে ঘেরা বিজয় চক ঢোকার রাস্তা অবরোধ করেন প্রায় দু`শো জন শিখ ধর্মাবলম্বি মানুষ। তাঁরা সাংসদদের গাড়ি আটকে দেওয়ার চেষ্টা করেন। কিছুক্ষণের মধ্যেই পুলিস এসে প্রতিবাদকারীদের ঘিরে ধরে। পরে প্রতিবাদকারীদের আটক করে পার্লামেন্ট স্ট্রিট পুলিস স্টেশনে নিয়ে যাওয়া হয়।

বেকসুর খালাস সজ্জন কুমার, বিচারককে ছোঁড়া হল জুতো

১৯৮৪-এর শিখ বিরোধী দাঙ্গা মামলায় বেকসুর খালাস পেলেন দিল্লির প্রাক্তন কংগ্রেস সাংসদ সজ্জন কুমার। সজ্জন কুমারের বিরুদ্ধে দায়ের হওয়া তিনটি মামলার মধ্যে একটির রায় ঘোষণা ছিল আজ। কারকাডুমার বিশেষ সিবিআই আদালত তাঁকে ১৯৮৪-র দাঙ্গা সংক্রান্ত সেই মামলা থেকে মুক্তি দিল। এই রায় ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে আদালত চত্বরে ভিড় করে থাকা বিভিন্ন শিখ সংগঠন গুলির মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। তাঁরা তীব্র প্রতিবাদ জানান এই বিচারের। বিচারক এজলাসের বাইরে বেরিয়ে এলে জনতা আরও উত্তেজত হয়ে পড়েন। এই সময় বিচারকের দিকে জুতো ছুঁড়ে মারেন এক ব্যক্তি।

চুরাশির দাঙ্গায় পুলিসি মদত মানল সিবিআই

অভিযোগটা উঠেছে বারেবারেই। এবার খোদ সিবিআই-এর তরফে তার স্বীকৃতি মিলল। ১৯৮৪ সালে ইন্দিরা গান্ধী হত্যা পরবর্তী শিখ-বিরোধী দাঙ্গায় দিল্লির পুলিস ও প্রশাসনের `মদত দানের` অভিযোগ এবার স্বীকার করে নিল সিবিআই।