গত ২৬ বছরে তিনটে বাগী দেখলো বলিউড!

গত ২৬ বছরে তিনটে বাগী দেখলো বলিউড!

আজই মুক্তি পেল পরিচালক সাব্বির খানের ফিল্ম বাগী। এই বাগীর মুখ্য চরিত্রে অভিনয় করলেন টাইগার শ্রফ এবং শ্রদ্ধা কাপুর। ফিল্ম ক্রিটিকরা বাগী ফিল্মকে খুব বেশি নম্বর দিচ্ছেন না। তবে, তাঁদের কাছ থেকে ঢালাও নম্বর পাচ্ছেন টাইগার শ্রফ। যাক, এই বাগী কেমন হল, এরমধ্যে একদিন গিয়ে দেখে আসুন।

মুন্নাভাইয়ের মুক্তিতে খুশির হাওয়া বলিউডে মুন্নাভাইয়ের মুক্তিতে খুশির হাওয়া বলিউডে

সাজার মেয়াদ শেষ হওয়ার চার মাস আগেই মুক্তি পেলেন সঞ্জয় দত্ত। সংশোধনাগারে থাকাকালীন ভালো আচরণের জন্য মুন্নাভাইকে আগাম মুক্তির সিদ্ধান্ত নেয় মহারাষ্ট্র সরকার। তবে মুক্তি পেলেও অস্বস্তি কাটল না। সময়ের আগেই সঞ্জয়ের মুক্তি নিয়ে মুম্বই হাইকোর্টে একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়েছে।

১৯৯৩ থেকে ২০১৬, কী কী হয়েছিল সঞ্জয় দত্ত কেসে ১৯৯৩ থেকে ২০১৬, কী কী হয়েছিল সঞ্জয় দত্ত কেসে

পুণের ইয়েরওয়াড়া জেল থেকে অবশেষে মুক্তি পেলেন বলিফড অভিনেতা সঞ্জয় দত্ত। ৪২ মাস জেলে কাটানোর পরে মুক্তি পেলেন তিনি। মুম্বই বিস্ফোরণের সময় বেআইনি অস্ত্র রাখার দায়ে শাস্তির কোপে পড়েন বলিউড সুপারস্টার। কিন্তু, সংশোধনাগারে থাকার সময় ভালো আচরণের জন্য, মুন্নাভাইকে আগাম মুক্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় মহারাষ্ট্র সরকার। যদিও মুক্তির আগেই, এর বিরুদ্ধে একটি জনস্বার্থ মামলা দায়ের হয়েছে হাইকোর্টে। অভিযোগ উঠেছে, সুপারস্টার হওয়ার সুবাদে সাজার মেয়াদ শেষের আগেই, মুক্তির জন্য তাঁকে বিশেষ সুবিধা পাইয়ে দেওয়ার।

জেল থেকে মুক্ত সঞ্জয় দত্ত জেল থেকে মুক্ত সঞ্জয় দত্ত

জেল থেকে মুক্তি পেলেন সঞ্জয় দত্ত। পাঁচ বছরের সাজার মেয়াদ শেষ হওয়ার ৮মাস, ১৬দিন আগেই।

'কয়েক ঘণ্টা পরেই আমার সিংহ বাইরে আসবে'- বললেন তৃশালা দত্ত 'কয়েক ঘণ্টা পরেই আমার সিংহ বাইরে আসবে'- বললেন তৃশালা দত্ত

কাল জেল থেকে মুক্তি পাচ্ছেন বলিউডের 'খলনায়ক' সঞ্জয় দত্ত। তাঁর মুক্তির খবরে উত্তাল গোটা দেশ। 'মুন্না ভাই'-এর মুক্তির খবরে ইতিমধ্যেই সেলিব্রেশনের হাওয়া বইয়ে শুরু করেছে তাঁর ফ্যানমহলে। শুধু কি আর ফ্যানেরাই সেলিব্রেট করছেন? বাবার মুক্তির খবরে আনন্দে উচ্ছ্বসিত মেয়ে তৃশালা দত্ত। বলেছেন, 'আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা পরেই আমার সিংহ খাঁচার বাইরে আসবে'।

৪৫০ টাকা পারিশ্রমিক পকেটে নিয়ে জেল ছাড়লেন 'মুন্না ভাই' ৪৫০ টাকা পারিশ্রমিক পকেটে নিয়ে জেল ছাড়লেন 'মুন্না ভাই'

তিনি বলিউড স্টার। এমনটাই জানে গোটা বিশ্ব। সিনেপ্রেমীদের কাছে তাঁর পরিচিতি, তিনি মুন্না ভাই MBBS। কিন্তু জেলে তাঁর পরিচয় কী? গারদে সঞ্জয় দত্ত ছিলেন একজন পেশাদার শ্রমিক, যার প্রতিনিয়ত রোজগার ছিল ৫০ টাকা। পুনের সেন্ট্রাল জেলে কাগজের ঠোঙা বানাতেন সঞ্জয় দত্ত। জেলে ঠোঙা বানিয়ে সঞ্জয় দত্তের মোট সঞ্চয় ৩৮ হাজার টাকা। কিন্তু দৈনন্দিন কাজে প্রায় গোটা সঞ্চয়ই ব্যয় করে ফেলেছেন সঞ্জয়। জেল থেকে যখন ছাড়া পেলেন, 'সঞ্জু বাবা'র পকেটে তখন মাত্র ৪৫০ টাকা।

সঞ্জু বাবার মুক্তিতে অভিনব সেলিব্রেশন সঞ্জু বাবার মুক্তিতে অভিনব সেলিব্রেশন

সঞ্জয় দত্তের জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার তারিখ নিয়ে বেশ জল্পনা চলছিল। কোনও সূত্রে জানা যাচ্ছিল তাঁকে ৭ ফেব্রুয়ারি মুক্তি দেওয়া হবে, তো কোনও সূত্রে অন্য কোনও তারিখ বলা হচ্ছিল। তবে এবার সঠিক খবর পাওয়া গেল। ২৫ ফেব্রুয়ারি মানে বৃহষ্পতিবার জেল থেকে মুক্তি পাবেন সঞ্জয় দত্ত।

 বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না মুন্নাভাইয়ের বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না মুন্নাভাইয়ের

ছাড়া পাওয়ার দিনক্ষণ ঘোষণা হলেও এখনও বিতর্ক পিছু ছাড়ছে না মুন্নাভাইয়ের। কালই অভিনেতার আইনজীবী হিতেশ জৈন জানিয়ে দেন সাতাশে ফেব্রুয়ারিই মুক্তি পাচ্ছেন সঞ্জয় দত্ত। তবে এরপরেই তৈরি হয় নয়া বিতর্ক। মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রঞ্জিত পাটিল জানিয়ে দেন মুন্নাভাইয়ের মুক্তি আসন্ন তবে দিনক্ষণ নিয়ে এখনও কিছুই ঠিক করেনি মহারাষ্ট্র সরকার। একই সুর শোনা গেল অতিরিক্ত ডিজি বিকে উপাধ্যায়ের গলাতেও। তিনি জানিয়ে দেন এবিষয়ে সরকারের তরফে কোনও নির্দেশ তাঁরা এখনও পাননি। এরপরেই অভিনেতার  ছাড়া পাওয়ার দিন নিয়ে নতুন করে তৈরি হয়েছে অনিশ্চয়তা।

মার্চের ৭ তারিখ জেল থেকে মুক্তি পেতে পারেন সঞ্জয় দত্ত মার্চের ৭ তারিখ জেল থেকে মুক্তি পেতে পারেন সঞ্জয় দত্ত

আর মাস তিনেক। তারপরই জেল থেকে পুরোপুরি মুক্তি পেতে চলেছেন সঞ্জয় দত্ত। ১৯৯৩ মুম্বই বিস্ফোরণ মামলায় অভিযুক্ত সঞ্জয় দত্ত ৪০ মাস জেল খাটার পর মুক্তি পাচ্ছেন আগামী বছর মার্চের ৭ তারিখ। জেলে ভাল আচরণের জন্য দু মাসের শাস্তি কমিয়ে দেওয়া হয় মুন্নাভাইয়ের। সঞ্জয় দত্তকে নিয়ে আবার নতুন আশা দেখতে শুরু করবে বলিউড। অনেকেই বলছেন, জেল খাটার পর বদলে গিয়েছেন সঞ্জু ভাই। এবার পর্দায় নাকি তাঁকে আরও বেশি করে পাওয়া যাবে।

মানসিক সমস্যার শিকার শুধু আপনি নন, সফল তারকারাও, এমনই কিছু তারকার কথা মানসিক সমস্যার শিকার শুধু আপনি নন, সফল তারকারাও, এমনই কিছু তারকার কথা

শারীরিক অসুস্থতা বা সমস্যা নিয়ে আমরা যতটা খোলাখুলি ভাবে কথা বলতে পারি, মানসিক অসুস্থতা বা সমস্যা নিয়ে কথা বলতে ঠিক ততটাই পিছিয়ে যাই। অথচ অনেক ক্ষেত্রেই মানসিক সমস্যা ডেকে আনে গুরুতর শারীরিক অসুস্থতা। প্রত্যেকেই জীবনে কখনও না কখনও মানসিক সমস্যায় ভোগেন। শুধু আমরা নই, ভোগেন তারকারাও। সফল ব্যক্তিত্বরও ডুবে যেতে পারেন অবসাদের গভীরে। তেমনই কিছু তারকাদের নিয়ে এই প্রতিবেদন। এরা কেউ গভীর অবসাদে ঢলে পড়েছেন মৃত্যুর কোলে, কেউ সমস্যার সঙ্গে লড়াই করে খুঁজে পেয়েছেন জীবনের অন্য মানে।

সঞ্জয়ের দোষকে ক্ষমা করলেন না রাজ্যপাল, জেলেই থাকতে হবে মুন্নাভাইকে সঞ্জয়ের দোষকে ক্ষমা করলেন না রাজ্যপাল, জেলেই থাকতে হবে মুন্নাভাইকে

১৯৯৩ মুম্বই বিস্ফোরণে অস্ত্র মামালায় অভিযুক্ত সঞ্জয় দত্তের ক্ষমার আবেদন খারিজ করলেন মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল। ২০১৩ সালে সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি মার্কণ্ডেয় কাটজু বলিউডের বিখ্যাত এই অভিনেতার হয়ে দোষ ক্ষমা করার আবেদন জানিয়েছিলেন। সেই আবেদন খারিজ করে মহারাষ্ট্রের রাজ্যপাল বিদ্যাসাগর রাও জানিয়ে দেন, সুপ্রিম কোর্ট সঞ্জয় দত্তকে দোষী সাব্যস্ত করেছে। এমন অবস্থায় তাঁকে ছেড়ে দেওয়া হলে সমাজের কাছে খারাপ নজির হয়ে থাকবে।

ফের প্যারোলে মুক্ত সঞ্জয় দত্ত, ৩০ দিন জেলের বাইরে থাকবেন মুন্নাভাই ফের প্যারোলে মুক্ত সঞ্জয় দত্ত, ৩০ দিন জেলের বাইরে থাকবেন মুন্নাভাই

মুম্বই বিস্ফোরণে অবৈধ অস্ত্র রাখার অপরাধে অভিযুক্ত সঞ্জয় দত্ত ফের প্যারোলে মুক্ত হলেন। মেয়ের অসুস্থতার কারণে গত জুন মাসে প্যারোলের আবেদন করেছিলেন সঞ্জয়। সেই আবেদনে সাড়া দিয়ে  ৩০দিনের প্যারোলে মুক্ত করা হল বলিউডের মুন্নাভাইকে।

জন্মদিনে জেলেই সঞ্জয় দত্ত জন্মদিনে জেলেই সঞ্জয় দত্ত

আজ তাঁর জন্মদিন। খলনায়ক থেকে নায়ক হয়ে উঠতে পুনের ইয়েরওয়াড়া জেলের কুঠুরিতেই ৫৬ বছরের জন্মদিনটা পালন করেছন তিনি। যেই সাজার কথা ভাবলেই চোখের সামনে ভেসে ওঠে ২২ বছর আগের সেই অভিশপ্ত দিনটার ছবি। মুম্বই বিস্ফোরণ মামলায় বেআইনি অস্ত্র রাখার অপরাধেই এখন সাজা খাটছেন তিনি। অন্যদিকে, মহারাষ্ট্রেরই নাগপুর জেলে ফাঁসির মঞ্চ সাজছে মুম্বই বিস্ফোরণের মূলচক্রী ইয়াকুব মেমনের। কাকাতালীয় ভাবে, আগামিকালই জন্মদিন তার।

আরও ৪ দিন বৃদ্ধি পেল সঞ্জয় দত্তের জেল যাপনের সময়সীমা আরও ৪ দিন বৃদ্ধি পেল সঞ্জয় দত্তের জেল যাপনের সময়সীমা

আরও ৪ দিন বৃদ্ধি পেল সঞ্জয় দত্তের কারাবাসের সময়সীমা। মহারাষ্ট্রের স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী রাম শিন্ডে জানিয়েছেন প্যারোলের মুক্তির সময় মেয়াদকাল অতিক্রান্ত হয়ে যাওয়ার পরেও জেলের বাইরে অতিরিক্ত দিন থাকার কারণে বৃদ্ধি পেল মুন্না ভাইয়ের জেল যাপনের দিন।

 ফের মুন্না ভাইয়ের ঠিকানা পুণের ইয়েরওয়ারা জেল ফের মুন্না ভাইয়ের ঠিকানা পুণের ইয়েরওয়ারা জেল

আবার ব্যাগ গুছিয়ে জেলে যাওয়ার সময় হল সঞ্জয় দত্তের। প্যারোলে মুক্তির সময়সীমা আরও ১৪দিন বাড়ানোর আবেদন জানিয়েছিলেন এই বলিউডি তারকা। কিন্তু আদলতে তাঁর আবেদন খারিজ হয়ে যাওয়ার ফলে ফের মুন্না ভাইয়ের ঠিকানা পুণের ইয়েরওয়ারা জেল।

পিকে দেখতে চান ফেডেরার পিকে দেখতে চান ফেডেরার

ট্রেলর, ডায়লগ প্রোমো, পোস্টার দেখে এর মধ্যেই পিকেতে মজে রয়েছে ভারতের দর্শক। এবার পিকের আকর্ষণ এড়াতে পারলেন না ফেড এক্সপ্রেসও। পিকে দেখার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন রজার ফেডেরার।