এবার অনলাইনেই ট্র্যাক করা যাবে 'সান্তা'কে

এবার অনলাইনেই ট্র্যাক করা যাবে 'সান্তা'কে

এবার থেকে গুগলেও ট্র্যাক করা যাবে সান্তাকে। মাইক্রোসফট এবং গুগল একসঙ্গে মিলে এই ট্র্যাকারটিকে বানিয়েছে। মাইক্রোসফটকে সাহায্য করেছে নর্থ আমেরিকা অ্যারোস্পেস ডিফেন্স কম্যান্ড। এই সাইটটি খুললেই দেখতে পাওয়া যাবে ঠিক কোথায় অবস্থান করছে সান্তা। সাইটটির নাম হল সান্তাট্র্যাকার.গুগল.কম (santatracker.google.com)। এই সাইটে একটি অ্যানিমেটেড ম্যাপ তৈরি করা হয়েছে যেখানে দেখতে পাওয়া যাচ্ছে সান্তা কোথা থেকে কোথায় পৌঁছাচ্ছে। এমনকি এখনও পর্যন্ত কতগুলো গিফট সান্তা বিলি করেছেন তাও দেখেতে পাওয়া যাবে এই সাইটের মাধ্যমে।

চিড়িয়াখানা, পার্কস্ট্রিট, সান্টাক্লজ, শীতের রোদে বড়দিনের আনন্দ চেটেপুটে নিল কলকাতা চিড়িয়াখানা, পার্কস্ট্রিট, সান্টাক্লজ, শীতের রোদে বড়দিনের আনন্দ চেটেপুটে নিল কলকাতা

বড়দিন মানেই তুমুল আনন্দ। একরাশ হুল্লোড়। চুটিয়ে মজা। শীতের রোদ গায়ে মেখে বড়দিন চুটিয়ে অনুভব করল শহর কলকাতা। রাতেই সেজে উঠেছিল শহরটা। বড়দিনের সকালে ভিড়ে জমজমাট হল মহানগরী।

জিঙ্গল বেল, জিঙ্গল বেল, জিঙ্গল অল দ্য ওয়ে... জিঙ্গল বেল, জিঙ্গল বেল, জিঙ্গল অল দ্য ওয়ে...

বড়দিনের আগের রাতে উত্‍সবে ভাসল মহানগরী। সেন্ট পলস ক্যাথিড্রাল থেকে পার্ক স্ট্রিট। থিকথিকে ভিড় ছিল সব জায়গায়। মাথায় সান্তার টুপি আর চোখে রঙচঙে চশমা। বড়দিনের আগের রাতে শহর কলকাতার ছবিটাই বলে দিচ্ছিল বড়দিন আসছে। বাকি সব চিন্তা দূরে সরিয়ে বন্ধু অথবা পরিবারের সঙ্গে রাস্তায় নেমে পড়েছিলেন সকলে।

বিশ্বজুড়ে আক্রান্ত শৈশব, মন ভাল নেই স্যান্টার বিশ্বজুড়ে আক্রান্ত শৈশব, মন ভাল নেই স্যান্টার

লাখ লাখ চিঠি এসেছে।  প্রতিদিনই তাঁর কাছে ভিড় জমাচ্ছেন প্রচুর মানুষ। ফিনল্যান্ডের ছোট্ট গ্রামটিতে এখন উত্সবের মেজাজ। কিন্তু যাঁকে ঘিরে উত্সব, সেই স্যান্টা ক্লজ কিন্তু ভীষণ চিন্তায়। গোটা বিশ্বে যা ঘটছে, তা নিয়ে রীতিমতো উদ্বিগ্ন স্যান্টা।  ফিনল্যান্ডের রোভানিয়েমি। এটাই স্যান্টার গ্রাম। ক্রিসমাসের আগে সেজে উঠেছে গোটা গ্রাম।

সাজো সাজো সান্তা সেলেবরা

সান্তা ক্লজ বলে কি আদৌ কেউ আছেন! প্রশ্নটা নিয়ে অনেক ঝড় ওঠে। এই ফেস্টিভ সেশনে ওসব ঝড়ে উড়ে লাভ নেই। চলুন বরং দেখেনি আমাদের নজরে থাকা সান্তাদের উপর। এঁদের মধ্যে কেউ কেউ হয়তো আর বেঁচে নেই। কিন্তু সান্তা ক্লজ হিসাবে এদের দারুণ মানাবে। চলুন এক নজরে দেখে নেওয়া যাক তাঁদের।

সান্তা আমায় দেবে তো

সান্তাক্লজ আসেন... এসে উপহার দেন.. এই বিশ্বাসটা সবারই থাকে। এমন একটা বিশ্বাসে ডানা মেলে দেখলাম সান্তাক্লজ এসে পড়েছে আমাদের দেশে। আসুন দেখেনি সান্তাকে কাছে পেয়ে কে কী উপহার চাইলেন।---

ওদের সান্তা, আমাদের সান্তা ওদের সান্তা, আমাদের সান্তা

আমার বন্ধু, রাহুল। গবেষণা-চাকরি সূত্রে ও এখন থাকে মার্কিন মুলুকে। ওর সঙ্গে মাঝে মাঝেই কথা হয় গুগল টক-এ। কয়েকদিন আগেই ওর সঙ্গে কথা হল। তারপরেই বুঝলাম ছোটবেলায় বাবা যেটা বলত সেটা ঠিক নয়। সান্তাক্লজ আসলে একজন নন, দু জন মানুষ। একজন থাকেন আমার জগত্‍ থেকে অনেক দূরে আর একজন থাকেন আমার চারিদিকে, চোখের সামনে।

মোহনবাগানে হাজির সান্তা, উপহার ফিট টোলগে

ক্রমাগত বিতর্ক আর খারাপ পারফরম্যান্সে জেরবার মোহনবাগান। এর মধ্যেই সবুজ বাগানে যেন নতুন বার্তা নিয়ে এলেন সান্তা। সামনেই বড়দিন। তার বেশ কয়েকদিন আগেই উপহার নিয়ে মোহনবাগানে হাজির সান্তাক্লজ। উপহার তুলে দিলেন মোহনবাগানের দুই তারকা ওডাফা আর টোলগের হাতে। এই মরসুমে সবচেয়ে বেশি আলোচনা হয়েছে টোলগে আর ওডাফার ইগোর লড়াই নিয়ে। সান্তা যেন নিজের ক্যারিশমা দিয়ে মিলিয়ে দিলেন দুই মহাতারকাকে।