ধ্বংসস্তুপ থেকে ফিনিক্সের মত বেঁচে ফিরল রেশমা

সাভারের ভেঙে পড়া বহুতল থেকে সতেরো দিন পর জীবিত অবস্থায় উদ্ধার করা হল এক তরুণীকে। বছর উনিশের তরুণীর নাম রেশমা খাতুন। শেষ দুদিন অভুক্তই ছিলেই রেশনা। ক্রমশ এগিয়ে আসছিল মৃত্যু। উদ্ধারকার্য চলার সময় সেনাবাহিনীর জওয়ানরা শুনতে পান গোঙানির শব্দ। ধ্বংসস্তুপ সরিয়ে উদ্ধার করা হয় রেশমা খাতুনকে। বহুতল ভেঙে ধ্বংসস্তুপ। বড় বড় যন্ত্র দিয়ে চলছে বাড়ির  নীচে চাপা পড়ে থাকা একের পর দেহ উদ্ধারের কাজ। দুর্ঘটনার পর কেটে গেছে সতেরো দিন। ঘরের মানুষকে ফিরে পাওয়ার আশাও ছেড়ে দিয়েছেন তাদের পরিবার। শুক্রবারও চলছিল সাভারের বহুতল বাড়ির ধ্বংসস্তুপ থেকে দেহ উদ্ধারের কাজ। তখনই শোনা গেল গোঙানির শব্দ। ওয়ারেন্ট অফিসার রাজ্জাকই প্রথম দেখতে পান উনিশ বছরের রেশমাকে। ক্ষীন কন্ঠে রেশমা কোনওভাবে জানায়, বাঁচতে চায় সে।

সাভারে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৩৪০, নিখোঁজ হাজার

ঢাকায় বহুতল ভেঙে মৃত্যুর সংখ্যা ঢাকার কাছে সাভারে বহুতল ভেঙে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়াল ৩৪০। এখনও নিখোঁজ প্রায় এক হাজার মানুষ। ধবংসস্তূপ সরিয়ে বেশকিছু দেহ উদ্ধার করা হয়েছে। কিন্তু সেগুলির অধিকাংশই এতটা বিকৃত হয়ে গেছে যে শণাক্তকরণের কাজ করা যায়নি। দেহগুলি উদ্ধারের পর একটি স্কুলের সামনে রাখা হয়েছে।  স্কুলের বাইরে দেওয়া হয়েছে নিখোঁজদের নামের তালিকাও। ধ্বংসস্তূপ সরিয়ে উদ্ধারকাজ চালাচ্ছেন উদ্ধারকারীরা। ঢাকার সাভারে বহতল ভেঙে পড়ার ঘটনায় উদ্ধার কাজ চলছে জোরকদমে। শনিবারও ধ্বংসস্তূপ থেকে উদ্ধার হয়েছে একের পর এক দেহ। একযোগে উদ্ধারকাজ চালাচ্ছে সেনা, দমকল, সিভিল ডিফেন্স এবং বিজিবি। উদ্ধারকাজে সমন্বয়ের কোনও অভাব নেই বলে জানিয়েছেন সেনাবাহিনীর উচ্চপদস্থ কর্তা। শনিবার দুপুরে হালকা বৃষ্টির মধ্যেও উদ্ধারকাজ হয়েছে।  ঘটনাস্থল থেকে কয়েক কিলোমিটার দূরে একটি স্কুলের বাইরে নিখোঁজদের ছবি টাঙানো হয়েছে। সেখানে উদ্বিগ্ন আত্মীয়-পরিজনদের ভিড়। স্বজন হারানোর কান্না।