পৌষ মেলায় বেড়ানোর সঙ্গে দলের কাজও সারলেন রূপা গাঙ্গুলি

পৌষ মেলায় বেড়ানোর সঙ্গে দলের কাজও সারলেন রূপা গাঙ্গুলি

পৌষ মেলায় শান্তিনিকেতনে রূপা গাঙ্গুলি। বেড়ানোর সঙ্গে সেরে নিলেন দলের কিছু কাজও। জেলা বিজেপি কার্যালয়ে স্থানীয় নেতৃত্বের সঙ্গে কথা বলেন। সাংবাদিকদের প্রশ্নে তিনি জানান, এরআগেও পৌষ মেলায় এসেছেন, তবে এবারের  আসা তার কাছে একটু অন্যরকম। দলীয় সংগঠনকে মজুবত করা লক্ষ্যেই তার এই সফর। সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বীরভূমের দাপুটে তৃণমূল নেতা অনুব্রত মণ্ডলকে কটাক্ষও করেছেন বিজেপি নেত্রী। তবে এই দিন রূপার সঙ্গে দেখা যায়নি বীরভূমের জেলা সভাপতি অর্জুন সাহাকে। তবে বিজেপির প্রাক্তন সভাপতি দুধকুমার মণ্ডলকেই সর্বক্ষণই দেখা গেছে রূপা গাঙ্গুলির সঙ্গে।

বিশ্বভারতী: নির্যাতিতার বাবার ন'দফা দাবি মানল কর্তৃপক্ষ বিশ্বভারতী: নির্যাতিতার বাবার ন'দফা দাবি মানল কর্তৃপক্ষ

বিশ্বভারতী একশো আশি ডিগ্রি ঘুরে। নির্যাতিতার বাবার ন দফা দাবি, মেনে নিল বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ। মুখ্য দাবি ছিল, ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে। মেয়েটি বিশ্বভারতীতে পড়তে চাইলে বিশ্বভারতী সমস্ত খরচ বহন করবে। এই ঘটনায় পুনরায় তদন্তের দাবি করলে বিশ্বভারতী সেটা করবে। কলাভবনের অধ্যক্ষ শিশির সাহানার বিরুদ্ধে দুর্বব্যবহারের অভিযোগ। উপাচার্য ডঃ সুশান্ত দত্তগুপ্তের বিরুদ্ধে দুর্ব্যবহারের অভিযোগ। স্বীকার করে নিয়ে যাবতীয় দায়ভার নিয়েছে বিশ্বভারতী। ঘটনায় মূল চার অভিযুক্তের বিষয়ে যে তদন্ত রিপোর্ট আদালতে জমা দেওয়া হয়েছে বিশ্বভারতীর পক্ষ থেকে, তার আরেকটি কপি এবং হাইকোর্টের রায়, যে রায়ের ভিত্তিতে ওদের আবার পড়তে দেওয়া হয়েছে, তা দেবেন। চোদ্দ মাস ধরে বিশ্বভারতীর কর্তৃপক্ষের দ্বারা হয়রানির শিকার, তাতে বিশ্বভারতী ক্ষমা চেয়েছে। মেয়ে হয়ত পড়বে না। এক মাসের মধ্যে ফ্রুটফুল রেজাল্ট চান। আমরণ অনশনে বসবেন। 

যৌন হেনস্থার ঘটনা চাপা দিতে টাকার প্রস্তাব বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষের, অভিযোগ নিগৃহীতা ছাত্রীর বাবার যৌন হেনস্থার ঘটনা চাপা দিতে টাকার প্রস্তাব বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষের, অভিযোগ নিগৃহীতা ছাত্রীর বাবার

যৌন হেনস্থার ঘটনা ধামাচাপা দিতে টাকা দিতে চেয়েছিল বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ। চাঞ্চল্যকর এই অভিযোগ সিকিম থেকে কলা ভবনে পড়তে আসা নিগৃহীতা ছাত্রীর বাবার। তাঁর অভিযোগ, পুলিসের কাছে মুখ না খুলতেও তাঁকে চাপ দিয়েছে বিশ্বভারতী কর্তৃপক্ষ। নিরাপত্তাহীনতায় তাই বিশ্বভারতী ছাড়ছেন কলা ভবনের ওই ছাত্রী। গত আটই অগাস্ট শান্তিনিকেতন পোস্ট অফিস মোড় থেকে একটি গাড়িতে তুলে ওই ছাত্রীকে যৌন হেনস্থা করে সিনিয়র তিন ছাত্র। ছাত্রীর আপত্তিকর ছবি তুলে শুরু হয় ব্ল্যাকমেল। কর্তৃপক্ষকে জানানোর পরও কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। উল্টে টাকা দিয়ে ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করে কর্তৃপক্ষ। অভিযোগ ছাত্রীর বাবার।