মহাকাশে এবার বাসযোগ্য ঘর বানাচ্ছে নাসা!

মহাকাশে এবার বাসযোগ্য ঘর বানাচ্ছে নাসা!

শোনা যাচ্ছে পৃথিবীতে নাকি থাকার জায়গা কম পড়তে চলেছে। যে ভাবে ক্রমাগত জনসংখ্যা বৃদ্ধি হয়ে চলেছে তাতে এই পরিস্থিতি আগামী কয়েক বছরের মধ্যেই হতে চলেছে। আর তাই মহাকাশ গবষণাকেন্দ্র নাসা এবার মহাকাশের বুকেই ঘর বানাচ্ছে। ইতিমধ্যই এই অভিনব পরিকল্পনা বাস্তবায়নের পথেই হাঁটছে এই গবেষণা কেন্দ্রটি। প্রাথমিক পরীক্ষায় ইতিমধ্যেই তারা সফলও হয়েছে।

স্পেস স্টেশন থেকে সরাসরি দেখুন মহাকাশচারীর যন্ত্রাংশ মেরামত LIVE স্পেস স্টেশন থেকে সরাসরি দেখুন মহাকাশচারীর যন্ত্রাংশ মেরামত LIVE

আকাশটাকে ভালবাসেন? খুব একা হয়ে গেলে, দিনের শেষে ওই আকাশের দিকেই তাকিয়ে থাকেন?

`ফার্স্ট স্টেপ টুওয়ার্ডস এ শাইনিং ফিউচার`

ওয়ান জায়ান্ট লিপ ফর ম্যানকাইন্ড। চাঁদে পা দিয়ে কথাটা বলেছিলেন নীল আর্মস্ট্রং। আর মহাশূন্যে পৌঁছে কিরোবো বলল, ফার্স্ট স্টেপ টুওয়ার্ডস অ্যা শাইনিং ফিউচার। সত্যিই তো ফার্স্ট স্টেপ। কিরোবোর মতো রোবটদের জন্য। জাপানী ভাষায় কিরোবো যা বলল তার মানে দাঁড়ায়, ২১ অগাস্ট, ২০১৩-এর উজ্জ্বল ভবিষ্যতের পথে প্রথম পা রাখল রোবটরা।  

মহাকাশে সুনীতা

দুদিন মহাশুণ্যে যাত্রা করে মঙ্গলবার আন্তর্জাতিক স্পেস স্টেশনে পৌঁছলেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত সুনীতা উইলিয়ামস ও তার দুই সহযাত্রী নভোশ্চর। ভারতীয় সময় সকাল ১০টা ২১ নাগাদ স্পেস স্টেশন পৌঁছয় তাঁদের মহাকাশযান। গত ১৫ জুলাই কাজাখিস্তান থেকে রুশ সয়ুজ টিএমএ-জিরোএমফাইভ যানে মহাকাশে রওনা দিয়েছিলেন তাঁরা।